‘বাবা-মা দুজনের সঙ্গেই ছেলের চেহারার মিল আছে’

বিনোদন

মারুফ কিবরিয়া | ১৮ মে ২০১৭, বৃহস্পতিবার | সর্বশেষ আপডেট: ১০:৪৫
২০০৬ সালের কথা। রিয়েলিটি শো লাক্স চ্যানেল আই সুপারস্টার প্রতিযোগিতার মধ্য দিয়ে শোবিজ অঙ্গনে পা রাখেন সীমানা। পুরো নাম রিস্তা লাবনী সীমানা। ক্যারিয়ারের শুরুতে ধারাবাহিক ও খ- নাটকের মধ্য দিয়ে দর্শক মন জয় করেন তিনি। নিত্য নতুন নাটকে কাজের মাধ্যমে ধীরে ধীরে জনপ্রিয় হয়ে ওঠেন সীমানা। সে সঙ্গে আলোচিত চলচ্চিত্র ‘দারুচিনি দ্বীপ’-এ অভিনয়ের মাধ্যমে নিজের কথা জানান দেন তিনি।
পাশাপাশি গ্রামীণফোনের একটি বিজ্ঞাপন সীমানার ক্যারিয়ারে ভিন্নমাত্রা যোগ করে। এরপর আর তাকে পেছনে তাকাতে হয়নি। একের পর এক বিজ্ঞাপন ও নাটকে কাজের মধ্য দিয়ে নিজেকে নিয়মিত আলোচনায় রাখেন। দর্শক ভালোবাসায়ও সিক্ত হন । তার প্রমাণও তিনি পেয়েছেন। বাংলাভিশনে প্রচার হওয়া ‘গুলশান এভিনিউ’ নাটকে সামিয়ার চরিত্রে অভিনয় করে ব্যাপক পরিচিতি লাভ করেন এ মিডিয়া কন্যা। শুধু তাই নয়, নাটকটি প্রচার শেষ হওয়ার কিছুদিন পর যখন বিভিন্ন শপিং মলে কিংবা কোথাও বেড়াতে যেতেন তখনই সীমানাকে তার ভক্তরা দূর থেকে বলতেন, ওই যে ‘গুলশান এভিনিউ’ নাটকের সামিয়া যাচ্ছে। কথাটি কানে পৌঁছুলেই সীমানার ভেতর এক অন্যরকম ভালোলাগা কাজ করতো। যা এখনো করে । যদিও এ সময়ে আগের মতো টানা কাজ করছেন না সীমানা। ইদানিং পর্দায় তার উপস্থিতি নেই বললেই চলে। যে কারণে চারিপাশে কানাঘুষা চলছে সীমানা কি মিডিয়া ছেড়ে দিলেন? বুধবার রাতে মানবজমিনের সঙ্গে আলাপকালে সীমানা এ প্রসঙ্গে বলেন, মিডিয়া ছেড়ে দেয়ার কথা কেন আসবে? বরং নিজেকে প্রস্তুত করে ময়দানে ফিরতে যাচ্ছি। সেটা কেমন? এমন প্রশ্নের জবাবে সীমানা বলেন, সবাই জানেন আমার ছেলের কথা। এখনো তার বয়স মাত্র ছয় মাস। তাই ওর বেড়ে ওঠা আর দেখভাল নিয়েই এখন ব্যস্ততা যাচ্ছে। মূলত এই কারণেই এখন মিডিয়ায় ফিরতে পারছি না। তবে ছেলেটা বড় হওয়ার সঙ্গে সঙ্গে আমিও প্রস্তুত হচ্ছি। নিজের ফিটনেসের একটা ব্যাপার আছে। তাই সবমিলিয়ে কিছু সময় লাগবে ফিরতে। ফেরা প্রসঙ্গে তো বললেন সীমানা। এর মাঝে কোনো কাজের ব্যাপারে চূড়ান্ত কিছু কি হয়েছে জানতে চাইলে তিনি বলেন, মুরাদ পারভেজের পরিচালনায় এটিএন বাংলায় প্রচার চলতি ধারাবাহিক নাটক ‘রেডিও জকি ও কতিপয় গল্প’-এর কাজ আগেই কিছু করে গিয়েছিলাম। এই নাটকটিরই নতুন লটের কাজ করার পরিকল্পনা রয়েছে। এছাড়া আরেকটি সিরিয়ালের ব্যাপারেও অনেকটা কথা পাকা হয়ে আছে। তবে আমার ফেরার  দিনক্ষণ চূড়ান্ত নয় বলে এখনো বলা যাচ্ছে না। আশা করছি এই নাটকগুলো দিয়েই আবার আমার শুরুটা হবে। মা হওয়ার বেশ লম্বা সময় আগে থেকেই মিডিয়া থেকে অনেকটাই বিচ্ছিন্ন সীমানা। ঠিক কারো সঙ্গে আগের মতো যোগাযোগ করেন না তিনি। এ প্রসঙ্গে সীমানা বলেন, আমি আসলে আগেও তেমন একটা সরব ছিলাম না। এখন তো আরো নেই। আর তাছাড়া কারো সঙ্গে আলাপ করা মানে তো হলো কাজের প্রসঙ্গে কথা বলা। যেহেতু কাজ নেই তাই এই কয়টাদিন আড়ালেই থাকি। কাজের কথা ছাড়া এখন আমার সংসারের বিষয়টা নিয়ে বলতে হবে। আমি ব্যক্তিজীবনটাকে মিডিয়া থেকে আলাদা রাখতেই বেশি সাচ্ছ্বন্দ্যবোধ করি। বোঝা গেল সীমানার বর্তমান অবস্থান। তবে মা হওয়ার পর একমাত্র ছেলে নিয়ে কেমন আছেন কিংবা ছেলেটিই বা কেমন আছে সেসব তো তার ভক্তরা জানতে চাইতেই পারে। হাসতে হাসতেই সীমানা বলেন, আপনাদের সবার দোয়া ও আল্ল¬াহর অশেষ মেহেরবানীতে ছেলেটা বেশ ভালো আছে। সবাই ওর জন্য দোয়া করবেন। ছেলে দেখতে কেমন হয়েছে? মা না বাবার মতো? সীমানা বললেন, আমার মুখম-ল ছেলে পেয়েছে। আর কপালটা পারভেজের মতো হয়েছে। বাবা-মা দুজনের সঙ্গেই ছেলের চেহারার মিল আছে। ছেলের দেখভাল ও সংসার নিয়েই এখন কাটছে সীমানার সময়। এর ফাঁকে কি টিভি দেখা হয় জানতে চাইলে জনপ্রিয় এ অভিনেত্রী বলেন, তেমন একটা সময় পাই না। তবে যখনই টিভি দেখতে বসি অন্তত খ- নাটকগুলো মন দিয়ে দেখার চেষ্টা করি। ধারাবাহিকের গল্পে ধারাবাহিকতা তেমন একটা থাকছে না। আর বিজ্ঞাপনের আধ্যিক্যের কারণে এ ধাঁচের নাটক দেখার আগ্রহটা থাকছে না। সীমানার সঙ্গে আলাপের শেষাংশে ঘুরে ফিরে আগের প্রশ্ন-আপনার ফেরার ব্যাপারে নির্দিষ্ট করে করে কি কিছু বলা যায়? সীমানা বলেন, এটা ঠিক বলতে পারছি না। তবে আশা করছি আর মাস তিনেকের মধ্যে সব গুছিয়ে ফিরতে পারবো। প্রসঙ্গত, ২০১৪ সালের জুলাই মাসে সংগীতশিল্পী পারভেজের সঙ্গে বৈবাহিক সম্পর্কে আবদ্ধ হয়েছিলেন সীমানা। আর দুই মাস পরই তার বিয়ের তিন বছর পূর্তি হবে। তিন বছরের সংসারে গত ১১ই ডিসেম্বর এ তারকা দম্পতির কোলজুড়ে একটি পুত্র সন্তান দুনিয়ার আলো দেখে।

এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

আপনার মতামত দিন

খেলার মাঠে দেয়াল ধসে দর্শক যুবকের মৃত্যু

‘বিচার বিভাগের স্বাধীনতার মৃত্যু ঘটেছে’

কুমারিত্বের দাম ৩ মিলিয়ন ডলার!

ছাত্রদল সাধারণ সম্পাদক আকরাম ৮ দিনের রিমান্ডে

১৫৪ টার্গেট গেইল-ম্যাককালামের

বাড়ি ফিরেছেন নিখোঁজ ব্যবসায়ী অনিরুদ্ধ রায়

শিক্ষার্থীদের মাথা ন্যাড়ার শর্তে এসএসসি’র ফরম পূরণ!

একটি অংশগ্রহণমূলক নির্বাচন গুরুত্বপূর্ণ

রাবি অপহৃত ছাত্রী ঢাকায় উদ্ধার

‘সমাবেশে জোর করে লোক আনা হয়েছে’

সমাবেশ মঞ্চে শেখ হাসিনা

যুদ্ধাপরাধের ২৯তম রায়ের আপেক্ষা

সিরিয়া ইস্যুতে আবারো রাশিয়ার ভেটো

হারিরির সৌদি আরব ত্যাগ

ইরাক ও ইসরায়েল সুন্দরী একসঙ্গে সেলফি তুলে বিপাকে

‘বিএনপিকে দূরে রেখে নির্বাচনের ষড়যন্ত্র করা হচ্ছে’