তিন তালাক মুসলিমদের ধর্মীয় বিশ্বাসের বিষয়- এআইএমপিএলবি

বিশ্বজমিন

মানবজমিন ডেস্ক | ১৬ মে ২০১৭, মঙ্গলবার
তিন তালাকের রীতিটি মুসলিমদের ধর্মীয় বিশ্বাসের বিষয়। ১৪০০ বছর ধরে মুসলিমরা এ রীতি চর্চা করে আসছে। ভারতের সুপ্রিম কোর্টে তিন তালাক নিয়ে শুনানির চতুর্থ দিন মঙ্গলবার এসব কথা বলেছে অল ইন্ডিয়া মুসলিম পারসোনাল ল বোর্ড (এআইএমপিএলবি)। তারা আরো বলেছে, অন্য ধর্মের লোকেরা যেমন বিভিন্ন রকম বিশ্বাস নিয়ে তা চর্চা করেন মুসলিমদের কাছেও একই রকম তিন তালাকের বিষয়টি। এ খবর দিয়েছে অনলাইন জি নিউজ। এতে বলা হয়, এআইএমপিএলবি’র পক্ষে আইনী লড়াই করছেন কেন্দ্রীয় সাবেক আইনমন্ত্রী ও সিনিয়র এডভোকেট কপিল সিবাল।
সুপ্রিম কোর্টে তিনি বলেছেন, ৬৩৭ খ্রিস্টাব্দ থেকে তিন তালাকের রীতিটি প্রচলিত। মুসলিমরা গত ১৪০০ বছর ধরে এই রীতি মেনে চলছেন। এটা বিশ্বাসের বিষয়। তাই সাংবিধানিক নৈতিকতা বা সমতার প্রশ্ন এক্ষেত্রে আসতে পারে না। উল্লেখ্য, তিন তালাক নিয়ে করা আবেদনের শুনানির জন্য ভারতের প্রধান বিচারপতি জগদিশ সিং কেহর’কে প্রধান করে ৫ সদস্যের বেঞ্চ গঠন করা হয়েছে। এর অন্য সদস্যরা হলেন বিচারপতি কুরিয়ান জোসেফ, রোহিন্তন ফালি নাইরমান, উদয় উমেশ ললিত ও এস আবদুল নাজির।

এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

পাঠকের মতামত

**মন্তব্য সমূহ পাঠকের একান্ত ব্যক্তিগত। এর জন্য সম্পাদক দায়ী নন।

Mr. Jamaddar

২০১৭-০৫-১৬ ১৪:২৮:৫৩

মুসলিম নারিদের ৩ তালাক রিতি নিতি মেনে নেয়া উত্তম , যদি সে মুসলমান দাবি করে। রাস্টিও আইন অথবা অন্য কোন বেক্তি মুসলিমদের ৩ তালাক নিয়ে যাহা কিছু বলুক বা লিখুক বা অন্য কোণ ভিন্ন রিতি অনুসরন করা উহা সম্পূর্ণ রুপে বেক্তিগত আইন বলিয়া গণ্য হইবে, তাহাতে অধিক কোন শুভ ফলাফল পাওয়া যাবে না।৩ তালাকে তালাক সম্পূর্ণ করাতে যে সকল উপকারিতা লক্ষ করা যায় তাহার ব্যাখ্যা অনেক লম্বা । সারমর্ম এই যে, দম্পতিরা ৩ বার সংশোধনের সুযোগ পায়। সকল আইন প্রণেতাদের ৩ তালাক বহাল রাখা সর্ব উত্তম কাজ। অবশ্য কুরানে ২ বারে তালাক কার্যকর বলা আছে । তৃতীয় বারে দুজনের সমযতায় যদি পুনরায় মিলিত হয় তাহাতে কোন পাপ নাই বলা আছে। এই তিন বারকেই ৩ তালাক ধরা হয়।। ধন্যবাদ সবাইকে আপনি ও জেনে নিতে পারেন সূরা আল বাকারা থেকে।।

আপনার মতামত দিন

খেলার মাঠে দেয়াল ধসে দর্শক যুবকের মৃত্যু

‘বিচার বিভাগের স্বাধীনতার মৃত্যু ঘটেছে’

কুমারিত্বের দাম ৩ মিলিয়ন ডলার!

ছাত্রদল সাধারণ সম্পাদক আকরাম ৮ দিনের রিমান্ডে

১৫৪ টার্গেট গেইল-ম্যাককালামের

বাড়ি ফিরেছেন নিখোঁজ ব্যবসায়ী অনিরুদ্ধ রায়

শিক্ষার্থীদের মাথা ন্যাড়ার শর্তে এসএসসি’র ফরম পূরণ!

একটি অংশগ্রহণমূলক নির্বাচন গুরুত্বপূর্ণ

রাবি অপহৃত ছাত্রী ঢাকায় উদ্ধার

‘সমাবেশে জোর করে লোক আনা হয়েছে’

সমাবেশ মঞ্চে শেখ হাসিনা

যুদ্ধাপরাধের ২৯তম রায়ের আপেক্ষা

সিরিয়া ইস্যুতে আবারো রাশিয়ার ভেটো

হারিরির সৌদি আরব ত্যাগ

ইরাক ও ইসরায়েল সুন্দরী একসঙ্গে সেলফি তুলে বিপাকে

‘বিএনপিকে দূরে রেখে নির্বাচনের ষড়যন্ত্র করা হচ্ছে’