অন্ধকার হাজারীবাগে আলো ফেরাতে চায় শিল্প মন্ত্রণালয়

এক্সক্লুসিভ

দীন ইসলাম | ১৪ মে ২০১৭, রবিবার
অন্ধকার হাজারীবাগে আলো ফেরানো ও ট্যানারির মালামাল স্থানান্তরে সহায়তা করতে চায় শিল্প মন্ত্রণালয়। এ জন্য ওই এলাকায় বন্ধ থাকা ট্যানারিগুলোর জন্য ২২০ ভোল্টের নতুন বিদ্যুৎ সংযোগ চেয়েছে তারা। গত ৩০শে এপ্রিল নতুন বিদ্যুৎ সংযোগ প্রদান সংক্রান্ত একটি চিঠি বিদ্যুৎ বিভাগের সচিবের কাছে পাঠিয়েছে শিল্প মন্ত্রণালয়। এ চিঠির পর নতুন বিদ্যুৎ সংযোগ এখনো যুক্ত হয়নি। শিল্প মন্ত্রণালয় সূত্রে জানা গেছে, উচ্চ আদালতের নির্দেশে হাজারীবাগের সব ট্যানারিতে (কারখানা) গত ৮ই এপ্রিল থেকে বিদ্যুৎ, পানি ও গ্যাস সংযোগ বিচ্ছিন্ন করতে শুরু করে বাংলাদেশ পরিবেশ অধিদপ্তর। প্রতিষ্ঠানটির পাঁচজন ম্যাজিস্ট্রেট এ কাজে নেতৃত্ব দেন।
ইউটিলিটি সব সংযোগ বিচ্ছিন্ন করার পর থেকে হাজারীবাগে ভুতুড়ে পরিবেশ বিরাজ করছে। বাংলাদেশ ট্যানার্স এসোসিয়েশন হাজারীবাগের বর্তমান অবস্থা জানিয়ে শিল্প মন্ত্রণালয়কে চিঠি দিয়েছে। ওই চিঠিতে তারা বলেছে, হাজারীবাগ এলাকায় দুইশ’ কারখানা রয়েছে। এর মধ্যে ১৫৪টি কারখানা সাভারে জায়গা পেয়েছে। তবে প্লট সংকট এবং ঋণ না পাওয়ায় ৪৬টি ট্যানারি এখনো সাভারে স্থানান্তরের অনুমতি মেলেনি। ওই অবস্থার মধ্যেই ইউটিলিটি সার্ভিস বন্ধ করে দেয়া হয়েছে। ট্যানার্স এসোসিয়েশনের চিঠির ভিত্তিতে বিদ্যুৎ সচিবকে লেখা চিঠিতে শিল্প মন্ত্রণালয় বলেছে, হাইকোর্টের আদেশে পরিবেশ অধিদপ্তর গত ৮ই এপ্রিল হাজারীবাগের সব ট্যানারির বিদ্যুৎ সংযোগ বিচ্ছিন্ন করে দেয়। ট্যানারিগুলো হাজারীবাগ থেকে সাভার চামড়া শিল্প নগরীতে ভারী মেশিনারিজ ও যন্ত্রাংশগুলো স্থানান্তরের কাজ অব্যাহত থাকা অবস্থায় পরিবেশ অধিদপ্তর কর্তৃক সব ইউটিলিটি সার্ভিস (বিদ্যুৎ, গ্যাস ও পানি) সংযোগ বিচ্ছিন্ন করা হয়। অন্ধকারাচ্ছন্ন পরিবেশ বিরাজ করায় ট্যানারিগুলোর ভারী মেশিনারিজ ও যন্ত্রাংশগুলোর বিযুক্ত ও স্থানান্তরের ব্যাঘাত ঘটছে। এছাড়া বাণিজ্যিক রপ্তানিকারকদের রপ্তানিতে বিঘ্ন ঘটছে। এমন অবস্থায় হাজারীবাগের ট্যানারি ও বাণিজ্যিক রপ্তানিকারকদের প্রতিষ্ঠানগুলোতে নতুন করে ২২০ ভোল্ট বিদ্যুৎ সংযোগ অর্থাৎ হাজারীবাগের ট্যানারিগুলোতে ভারী মেশিনারিজ ও যন্ত্রাংশগুলোর বিযুক্ত ও সাভারের চামড়া শিল্প নগরীতে স্থানান্তরের সহায়তা দেয়ার জন্য জরুরিভিত্তিতে কার্যক্রম নিতে নির্দেশক্রমে অনুরোধ করা হলো। বিদ্যুৎ বিভাগের সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে, ২২০ ভোল্টের বিদ্যুৎ সংযোগ দেয়া যায় কিনা ওই বিষয়টি খতিয়ে দেখছেন তারা। সহসাই এ বিষয়ে সিদ্ধান্ত হবে। সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে, শিল্প মন্ত্রণালয়ের উদ্যোগে বিসিক কর্তৃক ‘চামড়া শিল্পনগরী, ঢাকা (২য় সংশোধিত) শিরোনামের প্রকল্পটি বাস্তবায়ন করা হচ্ছে। হাজার কোটি টাকার এ প্রকল্পটি ২০০৩ সালে শুরু হয়েছে, এ বছরই শেষ হওয়ার কথা। এ প্রকল্পের আওতায় ২০০৬ ও ২০০৭ সালে দুটি চামড়া শিল্প সমিতি বাংলাদেশ ট্যানার্স এসোসিয়েশন (বিটিএ) ও বাংলাদেশ ফিনিশড লেদার, লেদারগুডস অ্যান্ড ফুটওয়্যার এক্সপোর্টার্স এসোসিয়েশন (বিএফএলএলএফইএ)-এর সদস্যভুক্ত ট্যানারি প্রতিষ্ঠানের অনুকূলে ১৫৫টি প্লট বরাদ্দ দেয়া হয়েছে। ওই সব প্লটেই এখন ট্যানারি স্থাপনের কাজ করছেন শিল্প মালিকরা।     

 

এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

আপনার মতামত দিন

সব স্কুলে ছাত্রলীগের কমিটি দেয়ার নির্দেশ

একতরফা নির্বাচন কোন নির্বাচনী প্রক্রিয়া নয়

‘অনুমোদনহীন বারের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা’

কি পেলাম কি পেলাম না সেই হিসাব মেলাতে আসিনি: প্রধানমন্ত্রী

ঢাকা ওয়াসাকে ১৩টি খাল উদ্ধারের নির্দেশ

এসডিজি অর্জন করতে হলে প্রতিবছর ৩০ শতাংশ নতুন বিদ্যুৎ সংযোগ বাড়াতে হবে

‘অনুপ্রবেশকারীদের ৫০০০ পাওয়ারের বাতি জ্বালিয়েও খুঁজে পাওয়া যাবে না’

‘ক্ষমতা থাকলে সরকারকে টেনে-হিচড়ে নামান’

আগামীকাল আদালতে যাবেন খালেদা জিয়া

‘সেনা মোতায়েনের প্রয়োজন নেই’

‘তদন্তের স্বার্থেই তনুর পরিবারকে ডাকা হয়েছে’

জিম্বাবুয়ের নতুন প্রেসিডেন্ট হচ্ছেন ‘কুমির মানুষ’

আশ্রয়শিবিরে সংক্রমণযুক্ত পানির বিষয়ে ইউনিসেফের সতর্কতা

চীন, উত্তর কোরিয়ার ১৩ প্রতিষ্ঠানের বিরুদ্ধে যুক্তরাষ্ট্রের অবরোধ

রোহিঙ্গা সঙ্কট: উচ্চ আশা নিয়ে বাংলাদেশ-মিয়ানমার বৈঠক শুরু

রোহিঙ্গা সংকট সমাধানে চীনের প্রস্তাব, যা বললেন মুখপাত্র...