বিএসএমএমইউর ২০তম বিশ্ববিদ্যালয় দিবস অনুষ্ঠানে স্বাস্থ্যমন্ত্রী

আগামী জাতীয় নির্বাচন সংবিধান অনুযায়ী যথাসময়েই অনুষ্ঠিত হবে

দেশ বিদেশ

স্টাফ রিপোর্টার | ১ মে ২০১৭, সোমবার
 ঐতিহ্যবাহী মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয় বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয়ের চিকিৎসাসেবার প্রতি মানুষের আস্থা রয়েছে বলে মন্তব্য করেন স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণমন্ত্রী মোহাম্মদ নাসিম, এমপি।  চিকিৎসা শিক্ষা, গবেষণা ও নতুন নতুন চিকিৎসা পদ্ধতি উদ্ভাবনে গুরুত্বপূর্ণ অবদান রাখছে বিএসএমএমইউ। বিশ্ব র‌্যাংকিং-এ স্থান পাওয়া বিএসএমএমইউর মর্যাদা অক্ষুণ্ন রাখতে সংশ্লিষ্ট সবাইকে ঐক্যবদ্ধভাবে কাজ করার আহ্বান জানান তিনি। আগামী জাতীয় নির্বাচন প্রসঙ্গে মন্ত্রী  বলেন, উন্নয়ন ও বিনয়ী আচরণের মাধ্যমে জনগণের মন জয় করে জনগণের ভালোবাসা নিয়ে বর্তমান সরকার আবারো ক্ষমতায় আসবে। আগামী জাতীয় নির্বাচন সংবিধান অনুযায়ী যথাসময়েই অনুষ্ঠিত হবে। তাদের বলবো ফর্মূলা না দিয়ে নির্বাচনের প্রস্তুতি নিতে।  গতকাল বিএসএমএমইউর ২০তম বিশ্ববিদ্যালয় দিবস উদযাপন উপলক্ষে শহীদ ডা. মিলন হলে আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে মন্ত্রী এসব কথা বলেন। এর আগে সকাল ১০টায় বঙ্গবন্ধুর ম্যুরালে পুষ্পাঞ্জলি নিবেদন করে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন। এছাড়া জাতীয় ও বিশ্ববিদ্যালয়ের পতাকা উত্তোলন, পায়রা ও বেলুন উড়ানো হয়। পরে ‘এ’ ও ‘বি’ ব্লকের মধ্যবর্তীস্থল বটতলা থেকে একটি র‌্যালি বের হয়। দিবসটি উপলক্ষে প্রকাশিতব্য স্মরণিকার জন্য প্রেসিডেন্ট মো. আবদুল হামিদ ও  প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা পৃথক বাণী দিয়েছেন। অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তব্যে মন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ বলেন, বাংলাদেশে স্বাস্থ্যখাতে উল্লেখযোগ্য অগ্রগতি হয়েছে। শিশু মৃত্যু, মাতৃমৃত্যু হার হ্রাস পেয়েছে। তিনি বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের জন্য হল নির্মাণে প্রয়োজনীয় সহায়তার আশ্বাস দেন। সভাপতির বক্তব্যে বিএসএমএমইউর ভিসি অধ্যাপক ডা. কামরুল হাসান খান বলেন, আন্তর্জাতিক র‌্যাংকি-এ বিএসএমএমইউর শক্তিশালী অবস্থানে রয়েছে। এ বিশ্ববিদ্যালয়ের চিকিৎসাসেবার মান বৃদ্ধি পেয়েছে। চিকিৎসা শিক্ষা, সেবা ও গবেষণা কার্যক্রমকে আরো এগিয়ে নিতে বর্তমান প্রশাসন ঐক্যবদ্ধভাবে কাজ করে যাচ্ছে। অনুষ্ঠানে আরো উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ মেডিকেল অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি ডা. মোস্তফা জালাল মহিউদ্দিন, বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের স্বাস্থ্য ও জনসংখ্যা বিষয়ক সম্পাদক ডা. রোকেয়া সুলতানা, স্বাধীনতা চিকিৎসক পরিষদের সভাপতি অধ্যাপক ডা. এম. ইকবাল আর্সলান, বাংলাদেশ মেডিকেল অ্যাসোসিয়েশনের মহাসচিব ডা. মো. ইহতেশামুল হক চৌধুরী, স্বাধীনতা চিকিৎসক পরিষদের মহাসচিব অধ্যাপক ডা. এমএ আজিজ, প্রো-ভিসি (প্রশাসন) অধ্যাপক ডা. মো. শারফুদ্দিন আহমেদ, প্রো-ভিসি (গবেষণা ও উন্নয়ন) অধ্যাপক ডা. মো. শহীদুল্লাহ সিকদার,  প্রো-ভিসি (শিক্ষা) অধ্যাপক ডা. এএসএম জাকারিয়া, কোষাধ্যক্ষ অধ্যাপক ডা. মোহাম্মদ আলী আসগর মোড়ল, সিন্ডিকেট সদস্য অধ্যাপক ডা. কাজী শহীদুল আলম, সার্জারি অনুষদের ডিন অধ্যাপক ডা. কনক কান্তি বড়ুয়া, প্রক্টর অধ্যাপক ডা. মো. হাবিবুর রহমান দুলাল, পরিচালক (হাসপাতাল) ব্রিগেডিয়ার জেনারেল মো. আবদুল্লাহ আল হারুন, অধ্যাপক ডা. মো. জাহিদ হোসেন, সহকারী প্রক্টর ও সহযোগী অধ্যাপক ডা. মো. আহসান হাবীব হেলাল, সহকারী অধ্যাপক ডা. আরিফুল ইসলাম জোয়ারদার টিটো প্রমুখ। অনুষ্ঠান সঞ্চালনা করেন রেজিস্ট্রার অধ্যাপক ডা. এবিএম আবদুল হান্নান।


 

এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

আপনার মতামত দিন

স্বস্তির জয় বার্সেলোনার

‘এখানে প্রফেশন থেকে প্যাশন বেশি কাজ করে আমার’

তাবিথ আউয়ালই ডিএনসিসির উপনির্বাচনে বিএনপির প্রার্থী

ফের টেস্ট অধিনায়ক সাকিব

দুই বছর ওএসডি ছিলেন মারুফ জামান

সারা দেশ গুম-খুনে জর্জরিত

শেখ হাসিনা সফটওয়্যার পার্কের যাত্রা শুরু

চালের দাম ফের বাড়ছে

কুড়িগ্রামে মাহমুদুর রহমানের বিরুদ্ধে রাষ্ট্রদ্রোহ মামলা

আওয়ামী লীগে প্রার্থীর ছড়াছড়ি নির্ভার বিএনপি

সিলেটে শামীমের বিরুদ্ধে রুমার মামলা, তোলপাড়

আওয়ামী লীগ, বিএনপি ও জাপা প্রার্থীর ভাবনা

এবি ব্যাংক চেয়ারম্যানসহ ৪ জনকে দুদকে তলব

আড়াইহাজারের এমপির সঙ্গে মাওলানা হাবিবুরের বাগবিতণ্ডার ভিডিও ভাইরাল

রাবি চারুকলা অনুষদের সেই ডিনের পদত্যাগ

সাভারে জমি দখল নিয়ে সংঘর্ষ, গুলিবিদ্ধসহ আহত ৯