দুর্বৃত্তদের আগুন কেড়ে নিলো সোনিয়াকে

শেষের পাতা

স্টাফ রিপোর্টার, মুন্সীগঞ্জ থেকে | ২২ এপ্রিল ২০১৭, শনিবার | সর্বশেষ আপডেট: ১২:২৩
গজারিয়ায় দুর্বৃত্তদের দেয়া আগুনে দগ্ধ কলেজছাত্রী সোনিয়া আক্তার (১৯) চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা গেছেন। বৃহস্পতিবার রাত সাড়ে ৩টার দিকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের বার্ন ইউনিটে তিনি মারা যান। নিহত সোনিয়া গজারিয়ার বালুয়াকান্দি ডা. আবদুুল গফ্‌ফার স্কুল অ্যান্ড কলেজ থেকে এবার এইচএসসি পরীক্ষায় অংশ  নেন। বড় বালুয়াকান্দি গ্রামের মো. শহীদুল্লাহ মিয়ার মেয়ে সোনিয়া।
গজারিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. হেদায়াতুল ইসলাম ভূঞা জানান, গজারিয়ার ফ্যাক্টরি থেকে পরিত্যক্ত কেমিক্যাল সংগ্রহ করেন সোনিয়া আক্তারের মা হাজেরা বেগম। এসব কেমিক্যাল (দাহ্য পদার্থ) বাড়িতে এনে বিক্রি করে আসছেন। গত ১৬ই এপ্রিল সকাল সাড়ে ৭টার দিকে সোনিয়ার কাছ থেকে অজ্ঞাত এক যুবক ১০০ টাকায় ২ বোতল কেমিক্যাল ক্রয় করে। কেমিক্যাল বিক্রি করে সোনিয়া ঘরের পাশে কলপাড়ে হাত মুখ ধোয়ার সময় ওই যুবক সোনিয়ার শরীরে দাহ্য পদার্থ ঢেলে আগুন ধরিয়ে দিয়ে পালিয়ে যায়। সোনিয়া জীবন বাঁচাতে পার্শ্ববর্তী পুকুরের পানিতে নেমে পড়ে। তার আর্তচিৎকারে আশপাশের লোকজন এসে সোনিয়াকে গজারিয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যায়। সেখানে প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে উন্নত চিকিৎসার জন্য সোনিয়াকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে রেফার করা হয়। পরে সেখানে ৫দিন মৃত্যুর সঙ্গে লড়ে বৃহস্পতিবার দিবাগত রাত সাড়ে ৩টার দিকে সোনিয়া মৃত্যুবরণ করেন।
এদিকে, এ ঘটনায় নিহত সোনিয়ার মা হাজেরা বেগম বাদী হয়ে  ১৯শে এপ্রিল অজ্ঞাত দৃর্বৃত্তকে আসামি করে গজারিয়া থানায় নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনের ৪(১) ধারায় মামলা রুজু করেছেন।
স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, অগ্নিদগ্ধ সোনিয়ার বিয়ের কথা হয়েছিল খালাতো ভাই হারুন অর রশিদের সঙ্গে। এইচএসসি পরীক্ষার পর তাদের বিয়ে হওয়ার কথা ছিলো।
গজারিয়া থানার ওসি আরও জানিয়েছেন, অজ্ঞাত দৃর্বৃত্তকে শনাক্তের চেষ্টা চলছে। নিহত সোনিয়া মুমূর্ষু থাকায় তার কাছ থেকে তথ্য সংগ্রহ করা সম্ভব হয়নি বলে ওই পুলিশ কর্মকর্তা জানিয়েছেন।
 
এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

আপনার মতামত দিন

সন্ত্রাসী হামলার জন্য বৃটিশ পররাষ্ট্র নীতি দায়ী: লেবার নেতা করবিন

সামনের কাতারে যেতে মন্টিনিগ্রোর প্রধানমন্ত্রীকে ধাক্কা ট্রাম্পের

সাভারে পুলিশের সঙ্গে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ নিহত ১

এবার ট্রাম্পের জামাতার দিকে নজর এফবিআই’র

অভিযান থেকে ফেরার পথে নিজ বন্দুকের গুলিতে পুলিশ সদস্য নিহত

খুলনায় দুর্বত্তদের গুলিতে দেহরক্ষীসহ বিএনপি নেতা নিহত

মধ্যরাতে সরানো হলো সুপ্রিম কোর্ট চত্বরের ভাস্কর্য

‘শুধু অভিনেতা না মানুষ হিসেবেও প্রসেনজিত দাদা দারুণ’

পদত্যাগ করলেন ইসলামী ব্যাংকের স্বতন্ত্র দুই পরিচালক

নাঈমের জবানিতে রেইনট্রি ধর্ষণকাণ্ড

আরেকটি হামলার প্রস্তুতি নিচ্ছিল সালমান আবেদির ভাই হাশেম