জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয় বটতলার খাবার যেমন

দেশ বিদেশ

জাবি প্রতিনিধি | ২২ এপ্রিল ২০১৭, শনিবার
জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের বটতলার খাবার দোকানগুলোতে চলছে সীমাহীন নৈরাজ্য। মানবজমিনের অনুসন্ধানে কয়েকদিনের বাসি খাবার পরিবেশন, অস্বাস্থ্যকর পরিবেশে রান্না, দোকান কর্মীদের অপরিচ্ছন্ন হাতে খাবার পরিবেশন, নিম্নমানের ভোজ্য তেল ব্যবহারসহ নানা বিষয় লক্ষ্য করা গেছে। বাসি খাবার খাওয়ানো হয় কিনা তা জানতে টানা এক সপ্তাহ ধরে রাতের বেলা দোকান বন্ধ করার সময় খাবার দোকানগুলো পর্যবেক্ষণ করেন এ প্রতিবেদক। প্রায় প্রত্যেকটা দোকানে প্রতিদিনই দেখা গেছে বিভিন্ন রান্না করা তরকারির বেশ কিছু অংশ রয়ে গেছে। রয়ে যাওয়া তরকারিগুলো কি করা হবে তা জানতে চাওয়া হয় দোকানদারদের কাছে। অধিকাংশ দোকানদার এ প্রশ্নের জবাবে মুখ খোলেননি।
তবে এক দোকানকর্মী নাম না প্রকাশ করার শর্তে বেশ কিছু  চমকপ্রদ তথ্য জানান এ প্রতিবেদককে। ওই দোকানকর্মী জানান দিনের বেলা রয়ে যাওয়া তরকারিগুলো রাতের বেলার জন্য রান্না করা তরকারির সঙ্গে মিশিয়ে খাওয়ানো হয়। রাতের বেলায় রয়ে যাওয়া তরকারি ফ্রিজে রেখে দেয়া হয় এবং পরেরদিন একই ধরনের রান্না করা তরকারির সঙ্গে মিশিয়ে খাওয়ানো হয়। কোনো একটা তরকারি কোনো বেলায় সম্পূর্ণ শেষ হয়ে না গেলে এ মিশ্রণ চলতে থাকে। বিশেষ করে গরু, মুরগি ও মাছের তরকারির ক্ষেত্রে এ ঘটনা বেশি ঘটে। রয়ে যাওয়া নানা পদের ভর্তাগুলোও ফ্রিজে রেখে নতুন বানানো ভর্তার সঙ্গে মিশিয়ে খাওয়ানো হয়। যেসব বাসি মুরগির মাংস নতুন তরকারির সঙ্গে আর মেশানোর অবস্থায় থাকে না সেগুলো দিয়ে বানানো হয় চিকেন ভর্তা। বিভিন্ন নামের বাহারি ভর্তাগুলোতে আলু থাকে কমন উপাদান। টাকি মাছের ভর্তা বলে অধিকাংশ দোকানে যা খাওয়ানো হয় তা মূলত বানানো হয় বিভিন্ন বাসি মাছ দিয়ে। চাহিদার চেয়ে অতিরিক্ত রান্নার কারণেই তরকারি রয়ে যায় বলে জানান ওই দোকানকর্মী। এ ব্যাপারে জানতে চাইলে অতিরিক্ত রান্নার বিষয়টি স্বীকার করে দোকান মালিক সমিতির (বঙ্গবন্ধু হল অংশের) সভাপতি মাহবুব আলম বলেন, ’যে দোকানে খাবার বেশি থাকে নতুন শিক্ষার্থী ও বেড়াতে আসা লোকজন সে দোকানেই বেশি ঢুকে। ফলে বেশি ক্রেতা পেতে অতিরিক্ত রান্না করে অনেক দোকানদার। আগে এক সময় আমরা যতটুকু প্রয়োজন ততটুকুই রান্না করতাম। প্রতিদিনকার খাবার প্রতিদিনই শেষ হয়ে যেত। কিন্তু এখন এটা একা কোনো দোকানদারের পক্ষে সম্ভব না। যে করতে চাইবে তার ব্যবসা ডাউন খাবে। কারণ যে দোকানে বেশি খাবার সেখানেই সবাই যাবে।’ এ প্রতিবেদকের অনুসন্ধানে আরো দেখা গেছে অধিকাংশ দোকানেই সয়াবিনের পরিবর্তে রান্নায় ব্যবহার করা হচ্ছে রিফাইন্ড পামওয়েল। সরজমিনে গিয়ে দেখা গেছে প্রায় সব  দোকানের পেছনে খাবার রান্না হচ্ছে নোংরা পরিবেশে। ঢেকে রাখা হচ্ছেনা রান্না করা খাবার। মাছি উড়ছে  খাবারের ওপর। দোকানকর্মীরা ন্যাকড়া দিয়ে টেবিল মোছার পর হাত না ধুয়েই আবার খাবার পরিবেশন করছেন। বটতলার খাবার দোকানগুলো নিয়ন্ত্রণ করে কামালউদ্দিন, মওলানা ভাসানী ও বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান হল প্রশাসন। এসব বিষয়ে সংশ্লিষ্ট হলগুলোর প্রশাসনের কার্যকরী কোনো পদক্ষেপ নেই বলে অভিযোগ শিক্ষার্থীদের। এ বিষয়ে কনজ্যুমার ইউথ জাবি শাখার সভাপতি সোহরাওয়ার্দী শুভ বলেন, ‘সংশ্লিষ্ট প্রশাসনের কার্যকরী কোনো পদক্ষেপ না থাকার কারণেই দোকানদাররা এসব স্বেচ্ছাচারিতা করার সুযোগ পাচ্ছেন। হল প্রশাসন মাঝে-মধ্যে লোক দেখানো কিছু অভিযান চালিয়ে জরিমানা করে, কিন্তু এতে পরিস্থিতির কোনো পরিবর্তন হয় না। সার্বক্ষণিক তদারকি আর কঠোর পদক্ষেপ থাকলে এসব চলতে পারত না।’ এ ব্যাপারে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব হলের প্রভোস্ট অধ্যাপক ফরিদ আহমদে বলেন, ‘আমি দায়িত্ব নিয়েছি অল্প কয়েকদিন হলো। ইতিমধ্যে আমরা এ বিষয়ে কয়েকজন শিক্ষককে দায়িত্ব দিয়েছি। ভবিষ্যতে এসব সমস্যা থাকবে না বলে আশা করা যায়।’ কামাল উদ্দিন হলের প্রভোস্ট সিকদার মো. জুলকারনাইন বলেন, ‘এ সমস্যাগুলো নিয়ে আমরা কাজ করছি। তিন হলের দায়িত্বরত শিক্ষকদের নিয়ে গত ১৭ তারিখে একটা তদারক কমিটি গঠন করা হয়েছে। এ ব্যাপারে তারা একটা প্রতিবেদন দিবেন। প্রতিবেদন পাওয়ার পর এ ব্যাপারে যৌথভাবে ব্যবস্থা নিবে তিন হল।’


 

এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

আপনার মতামত দিন

‘অনুপ্রবেশকারীদের ৫০০০ পাওয়ারের বাতি জ্বালিয়েও খুঁজে পাওয়া যাবে না’

‘ক্ষমতা থাকলে সরকারকে টেনে-হিচড়ে নামান’

আগামীকাল আদালতে যাবেন খালেদা জিয়া

‘তদন্তের স্বার্থেই তনুর পরিবারকে ডাকা হয়েছে’

জিম্বাবুয়ের নতুন প্রেসিডেন্ট হচ্ছেন ‘কুমির মানুষ’

আশ্রয়শিবিরে সংক্রমণযুক্ত পানির বিষয়ে ইউনিসেফের সতর্কতা

চীন, উত্তর কোরিয়ার ১৩ প্রতিষ্ঠানের বিরুদ্ধে যুক্তরাষ্ট্রের অবরোধ

রোহিঙ্গা সঙ্কট: উচ্চ আশা নিয়ে বাংলাদেশ-মিয়ানমার বৈঠক শুরু

ঘোড়ামারা আজিজসহ ছয় জনের মৃত্যুদণ্ড

নিবিড় পর্যবেক্ষণে মহিউদ্দিন চৌধুরী

হাফ ডজন গোলে দ্বিতীয় রাউন্ডে রিয়াল মাদ্রিদ

আফ্রিকার স্বৈরাচারদের মেরুদণ্ডে শিহরণ

সাভার আর মানিকগঞ্জে মাটির নিচে পানির 'খনি'

বরুশিয়ার আশা শেষ করলো টটেনহ্যাম

রোহিঙ্গা সংকট সমাধানে চীনের প্রস্তাব, যা বললেন মুখপাত্র...

দুদকের মামলা থেকে অব্যাহতি পেলেন মেয়র সাক্কু