গ্যাস না থাকায় মিরপুরে দুর্ভোগ

দেশ বিদেশ

স্টাফ রিপোর্টার | ২২ এপ্রিল ২০১৭, শনিবার
 ঘোষণা অনুসারে গ্যাসে আসেনি। রান্না হয়নি ঘরে। দুর্ভোগ পোহাতে হয়েছে রাজধানীর পূর্ব শ্যাওড়াপাড়া, পূর্ব কাজীপাড়া, মিরপুর ১১ ও ১৪ নম্বরবাসীকে। বাসায় রান্নাবান্না হয়নি। তাই বাইরের বিভিন্ন খাবার দোকানে ভিড় করেন তারা। দীর্ঘ লাইনে দাঁড়িয়ে খাবার কিনতে দেখা গেছে তাদের।
মেট্রোরেলের কাজের কারণে গ্যাস লাইন বন্ধ করে দেয়া হয় বলে তিতাস গ্যাস সূত্রে জানা গেছে। এ উপলক্ষে তিতাস গ্যাস কর্তৃপক্ষ বৃহস্পতিবার রাত ১০টা থেকে গতকাল শুক্রবার সকাল ৮টা পর্যন্ত গ্যাস বন্ধ রাখার ঘোষণা দেন। কিন্তু সকাল ৮টা পেরিয়ে বিকাল ৪টা পর্যন্ত গ্যাস আসেনি বেশির ভাগ এলাকায়। গ্যাস না থাকার বিষয়টি স্বীকার করে তিতাস গ্যাসের মিরপুর জোনের কর্মকর্তা বাহারুল হক বলেন, ঘোষণা ছিল- মেট্রোরেলের কাজের কারণে সকাল ১০টা পর্যন্ত গ্যাস থাকবে না। কিন্তু কাজ শেষ করতে কিছুটা সময় বেশি লেগেছে বলে জানান তিনি। মিরপুরের বাসিন্দা নাজমুল জানান, ঘোষণা অনুসারে গ্যাস আসবে বলেই ধারণা ছিল। কিন্তু গ্যাস আসেনি। পরিবারের সবাইকে সকালে নাস্তা ও দুপুরের খাবার রেস্টুরেন্টে খেতে হয়েছে। একইভাবে ইব্রাহিমপুরের বাসিন্দা ননী গোপাল বলেন, গ্যাস না থাকায় সকালে নাস্তা করা হয়নি। দুপুরে বাধ্য হয়ে বাইরে থেকে খাবার কিনতে হয়েছে। ওই এলাকার বাসিন্দা ফারহানা জানান, রাত ১০টার পর গ্যাস থাকবে না জানার পর রাতের খাবার রান্না করে রেখেছিলেন। রান্না শেষ হতে না হতেই গ্যাস বন্ধ হয়ে যায়। ভেবেছিলেন সকাল ৮টায়তো গ্যাস আসবে। আর কোনো দুশ্চিন্তা নেই। কিন্তু গ্যাসের অপেক্ষায় ছিলেন ১১টা পর্যন্ত। গ্যাস আসেনি বাধ্য হয়েই পাশের দোকান থেকে ফাস্টফুড কিনে বাচ্চাদের খেতে দেন। পরে একটি দোকান থেকে বিরিয়ানী কিনে দুপুরে খেয়েছেন। মিরপুর-১১ এর বাসিন্দা ইমরান খান জানান, গ্যাস না থাকায় রান্নাবান্না হয়নি। দুপুরে পাশের একটি দোকানে তেহারি কিনতে গিয়ে অবাক হন তিনি। দীর্ঘ লাইন। লাইনে দাঁড়িয়ে খাবার কিনছেন লোকজন। তিনিও লাইনে দাঁড়ান। কিন্তু শেষ পর্যন্ত তার ভাগ্যে তেহারি জুটেনি। ততক্ষণে দোকানের সব খাবার বিক্রি হয়ে গেছে।  মিরপুর ৬০ ফুটের ভাঙ্গা ব্রিজ এলাকার বাসিন্দা রাহিমা মঞ্জুর বলেন, বৃহস্পতিবার রাত ১০টা থেকে শুক্রবার সকাল ৮টা পর্যন্ত গ্যাস না থাকার কথা বলা হয়েছিল মাইকে। কিন্তু বিকাল ৪টা পর্যন্ত তার বাসায় গ্যাস আসেনি।

তিতাস গ্যাসের জনসংযোগ বিভাগের ব্যবস্থাপক মো. ওয়ায়েদুজ্জামান বলেন, মেট্রো রেলের কাজ চলছে। এই কারণে মিরপুর এলাকায় গ্যাস লাইন নতুন করে স্থানান্তর করা হচ্ছে। এই কারণে বৃহস্পতিবার রাত ১০টা থেকে গ্যাস লাইন বন্ধ রাখা হয়েছে। বড় পাইপের ভেতরে জমা গ্যাস বের করতে কছিুটা সময়ে লাগে। এজন্য সকাল ৮টার পরিবর্তে দেড়টার দিকে পাইপে গ্যাস সরবরাহ করা হয়েছে। তারপর আস্তে আস্তে পরিস্থিতি স্বাভাবিক হয়েছে বলে জানান তিনি।



 

এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

আপনার মতামত দিন

‘অনুপ্রবেশকারীদের ৫০০০ পাওয়ারের বাতি জ্বালিয়েও খুঁজে পাওয়া যাবে না’

‘ক্ষমতা থাকলে সরকারকে টেনে-হিচড়ে নামান’

আগামীকাল আদালতে যাবেন খালেদা জিয়া

‘তদন্তের স্বার্থেই তনুর পরিবারকে ডাকা হয়েছে’

জিম্বাবুয়ের নতুন প্রেসিডেন্ট হচ্ছেন ‘কুমির মানুষ’

আশ্রয়শিবিরে সংক্রমণযুক্ত পানির বিষয়ে ইউনিসেফের সতর্কতা

চীন, উত্তর কোরিয়ার ১৩ প্রতিষ্ঠানের বিরুদ্ধে যুক্তরাষ্ট্রের অবরোধ

রোহিঙ্গা সঙ্কট: উচ্চ আশা নিয়ে বাংলাদেশ-মিয়ানমার বৈঠক শুরু

ঘোড়ামারা আজিজসহ ছয় জনের মৃত্যুদণ্ড

নিবিড় পর্যবেক্ষণে মহিউদ্দিন চৌধুরী

হাফ ডজন গোলে দ্বিতীয় রাউন্ডে রিয়াল মাদ্রিদ

আফ্রিকার স্বৈরাচারদের মেরুদণ্ডে শিহরণ

সাভার আর মানিকগঞ্জে মাটির নিচে পানির 'খনি'

বরুশিয়ার আশা শেষ করলো টটেনহ্যাম

রোহিঙ্গা সংকট সমাধানে চীনের প্রস্তাব, যা বললেন মুখপাত্র...

দুদকের মামলা থেকে অব্যাহতি পেলেন মেয়র সাক্কু