আল্লামা শফী

স্বীকৃতির পর কওমি আলেমদের হীনম্মন্যতায় ভোগার দিন শেষ

এক্সক্লুসিভ

স্টাফ রিপোর্টার | ২২ এপ্রিল ২০১৭, শনিবার | সর্বশেষ আপডেট: ১২:২৯
কওমি মাদরাসার দাওরায়ে হাদিসকে মাস্টার্স (ইসলামিক স্টাডিজ এবং আরবি) সমমান স্বীকৃতির পর কওমির তরুণ আলেমদের হীনম্মন্যতায় ভোগার দিন শেষ। এ স্বীকৃতিকে কাজে লাগতে হবে। এজন্য ছাত্রজীবনের দীর্ঘ সাধনার মাধ্যমে অর্জিত জ্ঞানকে সমাজের নানাক্ষেত্রে আরো কাজে লাগানোর সুযোগ তৈরি হয়েছে। গতকাল চট্টগ্রাম হাটহাজারীর দারুল উলুম হাটহাজারী মাদরাসার দাওরায়ে হাদিস (স্নাতকোত্তর) সমাপনী বর্ষের হাদিস শাস্ত্রের সর্বনির্ভরযোগ্য গ্রন্থ বুখারি শরীফের শেষ ক্লাসের দরসদানের পর আখেরি মোনাজাত ও বিশেষ দোয়া মাহফিলে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন। মাওলানা আহমদ শফী বলেন, কওমি মাদরাসা এবং আলেমদের আদর্শচ্যুত করার বহুবিদ ষড়যন্ত্র চলতেই থাকবে। কিন্তু যড়যন্ত্র সফল হয়নি।
এ পর্যায়ে আলেমরা যদি নীতি ও লক্ষ্যে অবিচল ঐক্যবদ্ধ থাকতে পারেন, তবে কোনো ষড়যন্ত্রণই কওমি মাদরাসা শিক্ষার ক্ষতি করতে পারবে না ইনশাআল্লাহ।  খতমে বুখারি ও দোয়া মাহফিলে জামিয়া’র উস্তাদরাসহ শীর্ষ পর্যায়ের ইসলামী নেতৃবৃন্দ, দেশের প্রত্যন্ত অঞ্চলের উলামা-মাশায়েখ, বিভিন্ন রাজনৈতিক নেতৃবৃন্দ, সরকারি-বেসরকারি কর্মকর্তা, ব্যবসায়ীরা উপস্থিত ছিলেন।
 

এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

আপনার মতামত দিন

মানবজমিনের কালকিনি প্রতিনিধি দেলোয়ার হোসেনের দাফন সম্পন্ন

ঝিনাইদহের ওসি কবিরকে প্রত্যাহার

যশোরে পৃথক দুই ‘বন্দুকযুদ্ধে’ নিহত ৪

হোটেলে যেতে রাজি না হওয়ায় প্রেমিকাকে কুপিয়ে জখম

যুক্তরাষ্ট্রের সরকারি কার্যক্রম বন্ধ

বগুড়ায় ট্রাকের ধাক্কায় প্রাণ গেল দুই পথচারীর

ইয়েমেনির হামলায় নিহত ৮ সৌদি সেনা

আন্তর্জাতিক অপরাধ আদালতে রোহিঙ্গা নির্যাতনের বিচার দাবি, প্রত্যাবর্তনে কানাডাকে বিরোধিতা করার আহ্বান

চালককে গলাকেটে হত্যার পর অটো ছিনতাই

যুক্তরাষ্ট্রের প্রতিরক্ষা নীতিতে বড় পরিবর্তন এনে সামরিক শক্তি বাড়াতে চায় যুক্তরাষ্ট্র

ইংলিশ চ্যানেলে ব্রিজ নির্মাণ করে ফ্রান্সকে যুক্ত করার প্রস্তাব: বিদ্রুপের শিকার ব্রিটিশ পররাষ্ট্রমন্ত্রী

উখিয়ায় রোহিঙ্গাদের ২ গ্রুপের গোলাগুলি, নিহত ১

উত্তরাঞ্চলের কয়েক জায়গায় মৃদু ভূমিকম্প

‘মুক্তিযুদ্ধ নিয়ে আমার একটা দাপটের সিনেমা করার ইচ্ছা ছিল’

স্বাক্ষর করে গরহাজির এমপিদের চিফ হুইপের চিঠি

কলেজে এসকেলেটর বিলাস, ৪৫৪ কোটি টাকার প্রকল্প