আসাদই রাসায়নিক হামলা চালিয়েছেন, প্রমাণ করবে ফ্রান্স

অনলাইন

কূটনৈতিক রিপোর্টার | ২১ এপ্রিল ২০১৭, শুক্রবার, ৬:৩৩ | সর্বশেষ আপডেট: ৬:৩৩
সিরিয়ার প্রেসিডেন্ট বাশার আল আসাদ তার সামরিক বাহিনী দিয়ে দেশটিতে রাসায়নিক হামলা চালিয়েছেন, ফ্রান্সের গোয়েন্দাদের হাতে এমন পর্যাপ্ত তথ্য রয়েছে বলে জানিয়েছেন দেশটির পররাষ্ট্রমন্ত্রী জন মার্ক এরোল্ট। ফ্রান্স টেলিভিশনকে মন্ত্রী বলেন, এ হামলা নিয়ে প্রেসিডেন্ট আসাদ যে মিথ্যা বলেছেন আমরা তা শিগগির প্রমাণ করবো। ফরাসী টেলিভিশনে প্রচারিত ওই খবরের সূত্রে যুক্তরাষ্ট্র, যুক্তরাজ্যসহ বিশ্বের বিভিন্ন দেশের সংবাদ মাধ্যমও প্রায় অভিন্ন রিপোর্ট প্রকাশ করেছে। ইউএসএ টুডে প্রকাশিত রিপোর্টে বলা হয়- ফ্রান্সের পররাষ্ট্রমন্ত্রী এরোল্ট বুধবার বলেছেন, চলতি মাসে চালানো হামলায় সিরিয়ার প্রেসিডেন্ট বাশার আল আসাদের সেনারা যে রাসায়নিক অস্ত্র ব্যবহার করেছেন তা ফ্রান্সের ইনটেলিজেন্স সার্ভিসেস অল্প দিনের মধ্যে দুনিয়ার কাছে প্রমাণ করবে। ওই হামলায় অনেক বেসামরিক লোক নিহত হয়েছেন, যার বেশীর ভাগ নারী ও শিশু। ইউএসএ টুডে’র রিপোর্টে বলা হয়- মন্ত্রী এরোল্ট যেদিন এ বক্তব্য দিয়েছেন, একই দিনে একটি আন্তর্জাতিক তদন্ত দল নিশ্চিত করেছে যে, ওই হামলার ভিটটিমদের শরীরে সারিন বা সারিন নাম এক ধরণের পদার্থ পাওয়া গেছে।
সারিন মানুষের স্নায়ুতন্ত্র নষ্ট বা বিকল করে দেয়। যে কারও প্রাণনাশের জন্য এক ফোঁটা পরিমাণ সারিন-ই যথেস্ট। এটি প্রাণঘাতি অস্ত্র। অন্য সব রাসায়নিক অস্ত্রের মত এই গ্যাসের ব্যবহারও আন্তর্জাতিক আইনে নিষিদ্ধ। সিরিয়ার রাসায়নিক হামলার পেছনে আসাদের যুক্ত থাকার নিশ্চিত তথ্য ফ্রান্সের গোয়েন্দা সংস্থা এবং সামরিক গোয়েন্দাদের হাতে রয়েছে জানিয়ে দেশটির পররাষ্ট্র মন্ত্রী এরোল্ট আরও বলেন, আমাদের গোয়েন্দরা এ নিয়ে উদ্বিগ্ন। অল্প দিনের মধ্যেই আমরা এটি প্রমাণ করবো যে আসাদই ওই হামলা চালিয়েছিলেন এবং সেখানে তিনি রাসায়নিক অস্ত্র ব্যবহার করেছেন। রিপোর্টে উল্লেখ করা হয়- গত ৪ঠা এপ্রিল এই হামলা চালানো হয়। এতে ৯০জন নিহত হওয়া ছাড়াও শতাধিক লোক রাসায়নিক গ্যাসের (বিষক্রিয়ায়) যন্ত্রণায় এখনও ভূগছেন। এ হামলার ভিকটিম একটি শিশুর ছবি সারা দুনিয়ায় ভাইরাল হয়েছে, যা আসাদের বিরুদ্ধে ঘৃণা ও প্রতিবাদকে আরও জোরালো করেছে। সিরিয়ার যে ঘাঁটি থেকে ওই রাসায়নিক চালানো হয়েছে সেই ঘাঁটি লক্ষ্য করে হামলার পরপরই যুক্তরাষ্ট্র ৫৯ টম ক্রুজ মিসাইল নিক্ষেপ করে প্রতিক্রিয়া জানিয়েছে। অবশ্য রাসায়সিক হামলার পর সিরিয়ার প্রেসিডেন্ট আসাদ এবং তার মিত্র রাশিয়া দাবি করেছে- রাসায়নিক অস্ত্র মজুত রয়েছে এমন ঘাঁটি লক্ষ্য সাধারণ অস্ত্র দিয়ে হামলা চালানো হয়েছে। সেখানে আগে থেকে রাসায়নিক অস্ত্র থাকার কারণেই হামলাটি এত ভয়াবহ হয়েছে।

 

এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

আপনার মতামত দিন

সমাপনীতে অনুপস্থিত ১৪৫৩৮৩ শিক্ষার্থী

ঈদ-ই মিলাদুন্নবি ২ ডিসেম্বর

দেশের উন্নয়ন ও অগ্রগতির জন্য তারেক রহমানকে দরকার: এমাজউদ্দিন

দল থেকে বরখাস্ত মুগাবে

দেখা হলো, কথা হলো কাদের-ফখরুলের

আখতার হামিদ সিদ্দিকী আর নেই

ইইউ প্রতিনিধি ও তিন পররাষ্ট্রমন্ত্রীর রোহিঙ্গা ক্যাম্প পরিদর্শন

‘এবার প্রশ্নপত্র ফাঁসের কোনো সুযোগ নেই’

নির্বাচনে হস্তক্ষেপ করবে না শেখ হাসিনার সরকার-নৌ মন্ত্রী

‘আমি ব্যবসায়িক প্রতিহিংসার শিকার’

সেনা মোতায়েন নিয়ে বৈঠকে কোনো আলোচনা হয়নি : সিইসি

২০১৮ সালে প্রবল ভুমিকম্পের আশঙ্কা!

কেয়া চৌধুরী এমপি’র উপর হামলার ঘটনায় মামলা

বাংলাদেশের রাজনীতি, বিকাশমান মধ্যবিত্ত এবং কয়েকটি প্রশ্ন

সড়ক দুর্ঘটনায় গুরুতর আহত এমপি গোলাম মোস্তফা আহমেদ

খেলার মাঠে দেয়াল ধসে দর্শক যুবকের মৃত্যু