বিশ্বনাথে ফের ষাঁড়ের লড়াই : উত্তেজনা

বাংলারজমিন

বিশ্বনাথ (সিলেট) প্রতিনিধি | ২১ এপ্রিল ২০১৭, শুক্রবার
 হাইকোর্টের স্থগিতাদেশ অমান্য করে সিলেটের বিশ্বনাথে আবারও ষাঁড়ের লড়াইয়ের আয়োজন করা হয়েছে। এ নিয়ে এলাকার সাধারণ ধর্মপ্রাণ মুসল্লিদের মধ্যে দেখা দিয়েছে উত্তেজনা। গতকাল দুপুরে ষাঁড়ের লড়াই বন্ধের দাবিতে এলাকায় বিক্ষোভ মিছিল ও মানববন্ধন শেষে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা বরাবর স্মারকলিপি প্রদান করা হয়েছে। স্থানীয় নকিখালী বাজারে হাফিজ আরব খানের সভাপতিত্বে ও বদরুল আলমের পরিচালনায় বক্তব্য দেন- তালুকদার মো. ফয়জুল ইসলাম, চৌধুরী আলী আনহার শাহান, হাফিজ আনোয়ার হোসেন, আবুল কাসেম, হেলাল আহমদ সেবুল, হাফিজ আনহার আলী, সাদিকুর রহমান, আবদুল মুক্তাদির ফয়সল ও হাফিজ তোফায়েল আহমদ। কর্মসূচিতে বিভিন্ন রাজনৈতিক, সামাজিক সংগঠনের নেতৃবৃন্দ ছাড়াও এলাকার সাধারণ মানুষসহ বিপুল সংখ্যক শিক্ষক-শিক্ষার্থী উপস্থিত ছিলেন। জানা গেছে, বিগত কয়েক বছর হাইকোর্টে নিষেধাজ্ঞা থাকার কারণে ষাঁড়ের লড়াই বন্ধ ছিল। অভিযোগ উঠেছে, গত ১৮ই এপ্রিল মঙ্গলবার হাইকোর্টের নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে হরিকলস-সেনারগাঁও মাঠে ষাঁড়ের লড়াই আয়োজন করেন স্থানীয় হরিকলস গ্রামের মশাহিদ আলীসহ অন্যরা। তবে মশাহিদ আলী দাবি করেন- আপসের মাধ্যমে হাইকোর্টে থাকা মামলা নিষ্পত্তি করে স্থানীয় পুলিশ প্রশাসনের সহযোগিতা নিয়ে শান্তিপূর্ণভাবে ষাঁড়ের লড়াই আয়োজন সম্পন্ন করেন। একইভাবে আগামী ২২শে এপ্রিল শনিবার রামপাশা ইউনিয়নের পুরানগাঁও গাছতলা সংলগ্ন মাঠে ষাঁড়ের লড়াইয়ের ডাক দেন স্থানীয় ফয়জুর রহমানসহ অন্যরা। একই স্থানে স্থানীয় ধর্মপ্রাণ মুসল্লিদের ডাকা ওয়াজ মাহফিল ও ষাঁড়ের লড়াইয়ের ডাক দেয়ায় এলাকায় উত্তেজনা বিরাজ করছে। স্থানীয়রা সংঘাত এড়াতে ইসলাম ও মানবতা বিবর্জিত ষাঁড়ের লড়াই বন্ধ করে এলাকায় শান্তিশৃঙ্খলা রক্ষা করতে প্রশাসনের প্রতি জোর দাবি জানান।  পূর্ব অনুমতি ছাড়া সেনারগাঁও মাঠে ষাঁড়ের লড়াইয়ের আয়োজন করা হয়েছে দাবি করে অফিসার ইন-চার্জ (ওসি) মনিরুল ইসলাম পিপিএম বলেন- খবর পেয়ে জনসাধারণের নিরাপত্তা রক্ষায় পুলিশ মোতায়েন করা হয়।  


 
এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

আপনার মতামত দিন