ত্রি-দেশীয় সিরিজ ও চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফির দল ঘোষণা

দরজা কি খুলবে নাসির হোসেনের

খেলা

স্পোর্টস রিপোর্টার | ২১ এপ্রিল ২০১৭, শুক্রবার | সর্বশেষ আপডেট: ৬:১০
জাতীয় দলে নাসির হোসেন ফিরছেন এমন গুঞ্জন খুব একটা ছিল না। বারবার উপেক্ষার শিকার হওয়ায় এবারো ধরে নেয়া হচ্ছিল তিনি ডাক পাচ্ছেন না জাতীয় দলে। তবে জাতীয় লীগের পর ঢাকা প্রিমিয়ার ক্রিকেট লীগে নজর কাড়া ব্যাটিং করছিলেন তিনি। এতেই শেষ পর্যন্ত তাকে ফেরানো হল জাতীয় দলে। গতকাল আয়ারল্যান্ডে ত্রি-দেশীয় সিরিজের জন্য ১৮ ও চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফির জন্য ১৫ সদস্যের দল ঘোষণা করেছে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি)। অবশ্য আয়ারল্যান্ড সফরে মূল দলে থাকলেও চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফিতে থেকেও নেই নাসির। তাকে রাখা হয়েছে অতিরিক্ত হিসেবে। মূলত কঠিন পরীক্ষা দিতেই তাকে রাখা হয়েছে ত্রি-দেশীয় সিরিজে। এখানে উত্তীর্ণ হলে বিবেচনায় থাকবেন তিনি। নাসিরকে নেয়ার বিষয়ে প্রধান নির্বাচক মিনহাজুল আবেদিন নান্নু বলেন, ‘একই পজিশনে তিনজন ক্রিকেটার ছিল। সাব্বির, মোসাদ্দেক ও মাহমুদুল্লাহ আর নাসির একই জায়গাতে খেলতেন। আমাদের বিবেচনায় এই তিনজনের পরে ছিল নাসির। এখন যেহেতু সাব্বিরকে তিন নম্বরে তুলে আনা হয়েছে টপ অর্ডারে, তাই একটা জায়গা খালি হয়েছে। সে জন্যই নাসিরকে নেয়া। এই তিনজন থেকেই আমরা দু’জনকে ছয় ও সাত নম্বরের জন্য নেব। এজন্য তাকে প্রস্তুত করতে হবে। ঘরোয়া ও আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে অনেক ব্যবধান। সেই হিসেবে যথাযথভাবে প্রস্তুত করার জন্যই তাকে রাখা হয়েছে।’
অন্যদিকে জাতীয় দলে ফিরিয়ে আনা হয়েছে পেসার শফিউল ইসলামকেও। নাসির ও শফিউল, দু’জনই সর্বশেষ ওয়ানডে খেলেছেন গত অক্টোবরে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে সিরিজে। এরপর শফিউলের বাইরে থাকার কারণ ছিল ইনজুরি। নিজেকে টানা ফিট রাখতে না পারায় তাকে নিয়ে অসন্তুষ্ট ছিল নির্বাচক কমিটি। নিউজিল্যান্ড সফরে দলে থাকলেও চোটের কারণে বাদ পড়েছিলেন এই পেসার। এবার এই পেসারের উপর আস্থা রেখেছেন নির্বাচকরা। শফিউলের ফেরা নিয়ে প্রধান নির্বাচক বলেন, ‘শফিউল ফিট হয়ে ওঠাতেই তাকে দলে রাখা হয়েছে।’ ত্রি-দেশীয় সিরিজ ও চ্যাম্পিয়ান্স ট্রফিতে দলের অধিনায়ক থাকছেন মাশরাফি বিন মুর্তজা। গুরুত্বপূর্ণ দু’টি টুর্নামেন্টই হবে একেবারে ভিন্ন কন্ডিশনে। আয়ারল্যান্ড ও ইংল্যান্ডে খেলার জন্য দলকে পরিবেশের সঙ্গে খাপ খাওয়াতে ২৫শে এপ্রিল ১৮ সদস্যের দল নিয়ে মাশরাফি যাবেন ইংল্যান্ডের সাসেক্সে। সেখানেই হবে ১০ দিনের প্রস্ততি ক্যাম্প। এরপর ৯ মে আয়ারল্যান্ড যাবে দল। সেখান থেকে ইংল্যান্ডে ফিরে পয়লা জুন চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফির প্রথম খেলায় নামবে টাইগাররা। মূলত ইউরোপের উইকেটের কথা চিন্তা করে দলে গুরুত্ব দেয়া হয়েছে পেসারদের। মাশরাফির সঙ্গে রাখা হয়ছে মোস্তাফিজুর রহমান, তাসকিন আহমেদ, রুবেল হোসেন, শুভাশিষ রয় ও শফিউল ইসলামকে। সেই সঙ্গে অতিরিক্তের তালিকাতে আছেন ৭ম পেসার হিসেবে সাইফুদ্দিনও।
২০১১ সালে টেস্ট, ওয়ানডে ও টি-টোয়েন্টিতে জাতীয় দলের হয়ে অভিষেক হয়েছিল নাসির হোসেনের। এরপর থেকে দলের নিয়মিত সদস্য হয়ে ওঠেন তিনি। ১৭ টেস্টে একটি সেঞ্চুরি আর ৬টি ফিফটিতে ৩৭.৩৪ গড়ে করেন ৯৭১ রান। ৫৮ ওয়ানডে ম্যাচেও তার সেঞ্চুরি ১ ও ফিফটি ৬। তবে ৩২.৩৫ গড়ে করেছেন ১২৬২ রান। অবশ্য ৩১টি টি-টোয়েন্টি ম্যাচে খুব একটা ভাল পারফরমেন্স দেখাতে পারেননি। ২০১৫ সালের বিশ্বকাপের পর থেকে নাসির দলে থাকলেও তাকে বেশির ভাগ সময় দেখা যায় দ্বাদশ ক্রিকেটার  হিসেবে। গুঞ্জন রয়েছে প্রধান কোচ চণ্ডিকা হাথুরুসিংহের সঙ্গে দূরত্বের কারণেই তার এই অবস্থা। প্রধান নির্বাচকও জানালেন তাকে আরও ভালো করে প্রস্তুত করা হবে। তাই প্রশ্ন থেকেই যায় তাকে নতুন ভাবে প্রস্তুত করার মানে কি? এই বিষয়ে প্রধান নির্বাচক বলেন, ‘নাসির এক বছর ধরে দলের সঙ্গে সফর করছে না। সেই হিসেবে ওকে আমরা একটি প্রক্রিয়ার মধ্যে এনেছি। ও ইমার্জিং কাপে ভালো খেলেছে, ঘরোয়া ক্রিকেট যথেষ্ট ভালো খেলেছে। সাসেক্সে প্রস্তুতি ক্যাম্প আছে। তাছাড়া আয়ারল্যান্ড সফরে ওকে অভ্যস্ত করা দরকার। ও টিম ম্যানেজমেন্টের সঙ্গে কাজ করবে। যেহেতু আমাদের ১০ দিনের প্রস্তুতি ক্যাম্প আছে ইংল্যান্ডে। তো সেখানে ওকে দেখা হবে। আর যেহেতু ওর অভিজ্ঞতা আছে, আশা করি, দ্রুত আগের ছন্দে ফিরবে।’ তবে নিন্দুকেরা বলছে, ঢাকা প্রিমিয়ার লীগে দারুণ খেলতে থাকা গাজী গ্রুপ ক্রিকেটার্সকে দুর্বল করতেই দলটির অধিনায়ক নাসিরকে নিয়ে যাওয়া হচ্ছে ইংল্যান্ডে।
শ্রীলঙ্কা সফর থেকে চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফির দলে শুভাগত হোসের মতো জায়গা পাননি নুরুল হাসান ও শুভাশীষ রায়। গত বেশ কিছুদিন ধরেই বাংলাদেশের সব স্কোয়াডে মুশফিকুর রহীমের সঙ্গে বাড়তি উইকেটকিপার রাখা হয়েছে একজন। তবে চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফির দলে কিপার মুশফিক একাই। প্রধান নির্বাচক বলেন, মূল দলের অংশ না হলেও বাড়তি সদস্য হিসেবে চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফির সময়ও দলের সঙ্গে থাকবেন উইকেটকিপার নুরুল হাসান। মুশফিকের চোট বা অন্য কোনো জরুরি প্রয়োজন হলে পাওয়া যাবে হাতের কাছেই। তাই নাসিরের সঙ্গে কাগজে-কলমে নুরুল হাসান থাকছেন অতিরিক্ত হিসেবে। সঙ্গে শুভাশীষ ও মোহাম্মদ সাইফ উদ্দিনও।
চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফির জন্য বাংলাদেশ দল
তামিম ইকবাল, ইমরুল কায়েস, সৌম্য সরকার, সাকিব আল হাসান, মুশফিকুর রহিম, মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ, সাব্বির রহমান, মোসাদ্দেক হোসেন সৈকত, মেহেদী হাসান মিরাজ, সানজামুল ইসলাম, মাশরাফি বিন মুর্তজা (অধিনায়ক), মোস্তাফিজুর রহমান, তাসকিন আহমেদ, রুবেল হোসেন ও শফিউল ইসলাম।
চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফির স্ট্যান্ড বাই তালিকা
নুরুল হাসান সোহান, নাসির হোসেন, মোহাম্মদ সাইফুদ্দিন, শুভাশিস রায়।
ত্রিদেশীয় সিরিজের জন্য বাংলাদেশ দল
তামিম ইকবাল, ইমরুল কায়েস, সৌম্য সরকার, সাকিব আল হাসান, মুশফিকুর রহিম, মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ, সাব্বির রহমান, নুরুল হাসান সোহান, নাসির হোসেন, মোসাদ্দেক হোসেন সৈকত, মেহেদী হাসান মিরাজ, সানজামুল ইসলাম, মাশরাফি বিন মুর্তজা (অধিনায়ক), মোস্তাফিজুর রহমান, তাসকিন আহমেদ, রুবেল হোসেন, শফিউল ইসলাম ও শুভাশিস রায়।

 
এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

আপনার মতামত দিন

ভবিষ্যৎ নির্বাচন নিয়ে প্রধানমন্ত্রীর বক্তব্যে আস্থা নেই বিএনপির

রুবির বক্তব্য আমলে নিয়ে তদন্তের নির্দেশ

মিয়ানমারকেই রোহিঙ্গা সমস্যার সমাধান করতে হবে

সর্বশেষ আসা রোহিঙ্গাদের মুখে নির্যাতনের বর্ণনা

হঠাৎই সব এলোমেলো

হারানো দুর্গ পুনরুদ্ধার করতে চায় বিএনপি

পাহাড়ে দাঙ্গা সৃষ্টির চেষ্টা

একই চিত্র জাকিরুলের বাড়িতে

মা এখনো জানেন না

ত্রাণ ব্যবস্থাপনায় কাজ করছে বিমান বাহিনী

ফের কমলো স্বর্ণের দাম

লিবিয়ার আইএস ঘাঁটিতে মার্কিন বিমান হামলা, নিহত ১৭

উল্টো পথে আবার ধরা সচিবের গাড়ি

ফের কমলো স্বর্ণের দাম

ছাত্রের হাতে শিক্ষক জখম

পালিয়ে আসা রোহিঙ্গাদের ৮০ ভাগ নারী ও শিশু: কেয়ার