ন্যু ক্যাম্পে রোমানদের উল্লাস

খেলা

স্পোর্টস ডেস্ক | ২১ এপ্রিল ২০১৭, শুক্রবার
এবার আর অসম্ভবকে সম্ভব করা হলো না বার্সেলোনার। চ্যাম্পিয়ন্স লীগে শেষ ষোলোর প্রথম লেগে প্যারিস সেইন্ট জার্মেই’র (পিএসজি) কাছে ৪-০ গোলে হারের পর ন্যু ক্যাম্পে ফিরতি লেগে ঘুরে দাঁড়ায় বার্সেলোনা। অবিশ্বাস্যভাবে ৬-১ গোলে জিতে ইতিহাস গড়ে কোয়ার্টার ফাইনালে ওঠে কাতালানের ক্লাবটি। কোয়ার্টার ফাইনালেও তারা তেমন একটি অসম্ভবের সামনে দাঁড়িয়ে ছিল। প্রথম লেগে ইতালির ক্লাব জুভেন্টাসের মাঠ থেকে ৩-০ গোলের হার নিয়ে ফেরে তারা। ন্যু ক্যাম্পের ফিরতি লেগে ঘুরে দাঁড়ানো নিয়ে বার্সেলোনার কোচ ও খেলোয়াড়দের প্রত্যাশার পারদ ছিল ঊর্ধ্বে।
পিএসজি’র চেয়ে জুভেন্টাসকে হারানো সহজ হবে বলেও মন্তব্য করেন বার্সেলোনার কোচ লুইস এনরিকে। কিন্তু এবার আর সেটা সম্ভব হলো না। জুভেন্টাসের রক্ষণে চিড় ধরাতেই পারলো না তারা। নিজ মাঠে বার্সেলোনাকে গোলশূন্য রুখে দিলো ইতালির ক্লাবটি। এতে দুই লেগে ৩-০ ব্যবধানে জিতে সেমিফাইনালের টিকিট কাটলো তুরিনোর ওল্ড লেডিরা। ইতালির জাতীয় দলের মতো সে দেশের যে কোনো ক্লাবের রক্ষণ বিশ্বসেরা। ইতালিয়ান সিরি আ’র দলগুলোর সবচেয়ে বড় শক্তি তাদের রক্ষণ। এদিন সেটা হাড়েহাড়ে টের পেলো বার্সেলোনা। তাদের আক্রমণভাগের খেলোয়াড়দের গোলমুখে শটই নিতে দিলো না জুভেন্টাসের ডিফেন্ডাররা। ‘এমএসএন’খ্যাত লিওনেল মেসি, লুইস সুয়ারেজ ও নেইমারদের স্বাচ্ছন্দ্যে খেলতে দেননি মোটেও। পুরো ম্যাচে বার্সেলোনার খেলোয়াড়রা জুভেন্টাসের গোলমুখে অনটার্গেটে মাত্র এক শট নিতে পারে। সেটা ছিল ম্যাচের শুরুর দিকে। লিওনেল মেসির দারুণ ওই শটটি রুখে দেন জুভেন্টাসের বিশ্বসেরা গোলরক্ষক জিয়ানলুইজি বুফন। পুরো ম্যাচে ৬৫ শতাংশ বল নিজেদের দখলে রেখে প্রতিপক্ষের গোলমুখে বার্সেলোনার খেলোয়াড়রা ১৯ শট নেয়। কিন্তু তারমধ্যে অনটার্গেটে ছিল ওই এক শট। অন্যদিকে জুভেন্টাসের খেলোয়াড়রা ১২ শটের ৪টি অনটার্গেটে করেও গোলের দেখা পায়নি। বার্সেলোনার তারকা খেলোয়াড় লিওনেল মেসি এদিন পাঁচটি শট গোলমুখের বাইরে করেন। এই হারে টানা দ্বিতীয় মৌসুমে চ্যাম্পিয়ন্স লীগের সেমিফাইনাল থেকে বিদায় নিলো লুইস এনরিকের বার্সেলোনা। গত মৌসুমে তারা স্বদেশি অ্যাটলেটিকো মাদ্রিদের কাছে হেরে বিদায় নেয়। আর বিশ্বের তৃতীয় দল হিসেবে চ্যাম্পিয়ন্স লীগের দুই লেগেই বার্সেলোনাকে গোলবঞ্চিত রাখলো জুভেন্টাস। এর আগে এই কাজটি করে ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড (২০০৭-০৮) ও বায়ার্ন মিউনিখ (২০১২-১৩)। জুভেন্টাসের গোলরক্ষক জিয়ানলুইজি বুফন এই নিয়ে ৪৬ ম্যাচ নিজ জাল গোলশূন্য রাখলেন। তারচেয়ে বেশি গোলশূন্য থাকার ঘটনা আছে মাত্র তিন গোলরক্ষকের। তারা হলেন ইকার ক্যাসিয়াস (৫৪), ভ্যান দার সার (৫০) ও পিতর চেক (৪৭)। চলতি মৌসুমে ৯ ম্যাচের সাতটিতেই গোল খাননি বুফন। হজম করেছেন মাত্র ২ গোল।
বুধবারের ফল
বার্সেলোনা ০-০ জুভেন্টাস (০-৩)
(দুই লেগে ৩-০ এগ্রিগেটে জুভেন্টাস)
মোনাকো ৩-১ ডর্টমুন্ড (৩-২)
(দুই লেগে ৬-৩ এগ্রিগেটে মোনাকো)
সেমিফাইনালে যারা
রিয়াল মাদ্রিদ (স্পেন), অ্যাটলেটিকো মাদ্রিদ (স্পেন), জুভেন্টাস (ইতালি) ও মোনাকো (ফ্রান্স)
* ড্র হবে আজ
 

এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

আপনার মতামত দিন

‘অভিযোগ কাল্পনিক ও বানোয়াট’

মইনকে আশ্বস্ত করেছিলেন প্রণব

ব্লু হোয়েল গেম জায়েজ নয়

শেখ হাসিনার অধীনে নির্বাচন চায় জেপি

রোহিঙ্গাদের দেখতে আসছেন জর্ডানের রানী

পেপ্যাল ‘জুম’ সার্ভিস বাংলাদেশে

হাওরে সরকারি প্রকল্পে লুটপাট হয়েছে

প্রার্থী নিয়ে নির্ভার আওয়ামী লীগ-বিএনপি

গণমাধ্যম-সশস্ত্র বাহিনীর সম্পর্ক নিয়ে সেমিনার

সিলেটে ছাত্রলীগের কমিটি বিলুপ্ত, সেক্রেটারিসহ ১০ জনের বিরুদ্ধে মামলা

খালেদা জিয়ার পুরো জবানবন্দি

বরিশালে বিচারকের ভূমিকায় বেঞ্চ সহকারী, তোলপাড়

গাজীপুরে প্রাক্তন তিন সেনা সদস্যসহ ৪জন গ্রেপ্তার

খান আতা ইস্যুতে এফডিসিতে চলচ্চিত্র পরিবারের সংবাদ সম্মেলন

আদালত অঙ্গনে খালেদার আইনজীবীদের হাতাহাতি

বন্যায় ৩০ শতাংশ ধান উৎপাদন কম হতে পারে