নেইমারের কান্না এবং একজন আলভেজ

খেলা

স্পোর্টস ডেস্ক | ২১ এপ্রিল ২০১৭, শুক্রবার
ম্যাচ শেষে কান্নায় ভেঙে পড়েন নেইমার। নিজেদের মাঠ থেকে এমন বিদায় মেনে নিতে পারছিলেন না বার্সেলোনার এ তারকা স্ট্রাইকার। ইউয়েফা চ্যাম্পিয়ন্স লীগে কোয়ার্টার ফাইনালের প্রথম লেগে জুভেন্টাসের কাছে ৩-০ গোলে হারের পর ন্যু ক্যাম্পে ফিরতি ম্যাচটি গোলশূন্য ড্র হয়। এ ম্যাচে বার্সেলোনার ফরোয়ার্ডরা তেমন সুবিধা করতে পারেননি। এতে গতবারের মতো এবারো কোয়ার্টার ফাইনাল থেকে বিদায় হয়ে যায় কাতালানরা। এমন বিদায়ের পর নিজেকে ধরে রাখতে পারেননি নেইমার। কাঁদতে থাকা নেইমারকে সান্ত্বনা দিতে এগিয়ে যান প্রতিপক্ষের এক ডিফেন্ডার- দানি আলভেজ। দীর্ঘ আট বছর বার্সেলোনায় খেলেছেন তিনি। নেইমারের সঙ্গে কাঁধে কাঁধ মিলিয়ে লড়াই করেছেন। এছাড়া ব্রাজিল জাতীয় দলের সতীর্থ তারা। চলতি মৌসুমের শুরুতে বার্সেলোনা ছেড়ে জুভেন্টাসের যোগ দেন তিনি। সাবেক ক্লাবের মাঠে ফিরে নিজেও আবেগাপ্লুত হয়ে পড়েন। আর ম্যাচ শেষে জাতীয় দলের সতীর্থ নেইমারকে কাঁদতে দেখে নিজেকে ধরে রাখতে পারেননি আলভেজ। তিনি এগিয়ে গিয়ে নেইমারকে বুকে জড়িয়ে ধরে সান্ত্বনা দেন। নেইমারকে তখন তিনি কী বলেছেন তা উল্লেখ করতে গিয়ে বলেন, ‘আমি নেইমারকে বলেছি, এটাই জীবন। কী দুর্ভাগ্য আমাদের। আমরা একে অন্যের বিপক্ষে খেলছি! এত বছর একসঙ্গে খেলেছি, এভাবে প্রতিপক্ষ হওয়াটা খুব কঠিন। আমরা পেশাদার ফুটবলার, নিজেদের দায়িত্বে নিজেকে মনোযোগ দিতে হবে। কিন্তু আবেগটা থেকেই যায়।’ নিজেরা জিতলেও বার্সার হারে কষ্ট পেয়েছেন আলভেজ। বলেন, ‘আমরা জানতাম ম্যাচটা কঠিন হবে। আমি আমার দলের জয়ে খুশি। কিন্তু একইসঙ্গে এতদিন পর এখানে ফিরে এসে খারাপ লাগছে। বার্সার হারের পর আমার অনুভূতিটা আসলে অম্লমধুর। আমার বন্ধুরা কষ্টে আছে, তাদের জন্য আমারও খারাপ লাগছে। কিন্তু এটাই ফুটবল।’


 
এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

আপনার মতামত দিন

যুবলীগ নেতাকে অস্ত্রের মুখে অপহরন

ধুমপানে বাধা দেয়ায় দোকানিকে সিগারেটের ছ্যাঁকা

পারমাণবিক যুদ্ধের হিম আতঙ্ক

লেবার নেতা হিসেবে সাদিক খানকে দেখতে চান বৃটিশ ভোটাররা

রোহিঙ্গাদের সমর্থনে বোস্টনে প্রতিবাদ বিক্ষোভ

কর্ণফুলীতে বিএনপির তিন প্রার্থীর নির্বাচন বর্জন

মনিপুর থেকে ১০৭ ‘বাংলাদেশী’ পুশব্যাক

পূর্ব লন্ডনে এসিড হামলায় আহত ৬

সাদুল্যাপুরে ১১২ মেট্রিক টন চাল জব্দ, গুদাম সিলগালা

রোহিঙ্গা ইস্যুতে এবার বিমসটেকেও ছায়া পড়েছে

রাজধানীতে আগুনে পুড়ে নিহত ১

চতুর্থ দফা ক্ষমতার দিকে দৃষ্টি মার্কেলের

‘অযথা এসব গুঞ্জনের কোন মানে হয় না’

সন্তানের নাড়ি কাটার সময়ও পাননি হামিদা

সেনাবাহিনীর কার্যক্রম শুরু, ফিরছে শৃঙ্খলা

কাল থেকে গণশুনানি