জামালগঞ্জে নজির হোসেনকে নিয়ে সরব আলোচনা

বাংলারজমিন

তৌহিদ চৌধুরী প্রদীপ, জামালগঞ্জ (সুনামগঞ্জ) থেকে | ২১ এপ্রিল ২০১৭, শুক্রবার
সুনামগঞ্জ-১ আসনের সাবেক সংসদ সদস্য জেলা বিএনপি’র সাবেক সভাপতি ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয় সম্পর্কীত স্থায়ী কমিটির সাবেক সভাপতি বিএনপি’র সংস্কারপন্থি নেতা নজির হোসেনকে নিয়ে জামালগঞ্জে চলছে সরব আলোচনা। আগামী জাতীয় নির্বাচনে বিএনপি’র দলীয়প্রার্থী হিসেবে সুনামগঞ্জ-১ নির্বাচনী এলাকায় কে হচ্ছেন বিএনপি’র প্রার্থী এ নিয়ে চলছে জল্পনা-কল্পনা। গত ১৮ই এপ্রিল বিএনপি’র দলীয় চেয়ারপার্সন বেগম খালেদা জিয়ার সঙ্গে সাক্ষাতে দলীয় বর্তমান পরিস্থিতি নিয়ে আলোচনা হয় নজির হোসেনের। তাকে ৭ বছর পর নির্বাচনী মাঠে কাজ করার নির্দেশ দেয়ার সংবাদে সুনামগঞ্জ-১ নির্বাচনী এলাকার বিএনপি’র তৃণমূলে নতুন রাজনৈতিক মেরুকরণ শুরু হয়েছে। সরব হয়ে উঠেছে পুরো নির্বাচনী এলাকার নেতাকর্মী ও সমর্থকরা। নজির হোসেনকে ঘিরে জাতীয় নির্বাচনে চলছে নানান হিসাব-নিকাশ। যোগাযোগ শুরু হয়েছে নজির হোসেন থেকে তৃণমূলের নেতাকর্মীর সঙ্গে। জানা যায়, বিগত ১৯৯১ ইং সালে সংসদ নির্বাচনে তৎকালীন ১৫ দলীয় জোট থেকে নৌকা প্রতীক নিয়ে সংসদ সদস্য নির্বাচিত হন নজির হোসেন। এ সময় বিএনপি’র সরকার ক্ষমতায় আসার পর এলাকার উন্নয়নের স্বার্থে তিনি বিএনপিতে যোগ দেন। বিএনপিতে যোগ দিয়ে তিনি দলীয় নেতাকর্মীদের সুসংগঠিত করে তুলে দলীয় নেতাকর্মী ও সমর্থকদের প্রশংসা কুড়িয়েছেন। এরপর তিনি বিএনপি’র দলীয় প্রার্থী হিসেবে সুনামগঞ্জ-১ নির্বাচনী এলাকায় পর-পর দুইবার সংসদ সদস্য ও সুনামগঞ্জ জেলা বিএনপি’র সভাপতি নির্বাচিত হন। তত্ত্বা্বধায়ক সরকারের আমলে ১/১১ সময় সংস্কারপন্থি তকমা লাগে তার গায়ে। দীর্ঘ ৭ বছর রাজনৈতিক দল থেকে বিছিন্ন ছিলেন তিনি। দলের কোনো কর্মসূচিতে অংশ নেননি তখন। দলের শীর্ষ পর্যায়ের নেতৃবৃন্দের সঙ্গে যোগাযোগ ছিল বছর করেক আগ থেকে। কেন্দ্র ও তৃণমূল  নেতাকর্মীরা বুঝতে পেরেছে নজির হোসেনের শূন্যতা। বিগত দিনে জামালগঞ্জ, তাহিরপুর, ধর্মপাশা ও মধ্যনগর এলাকায় কমিটি নিয়ে বিএনপি বহুধা বিভক্ত হয়ে পড়ে। অভ্যন্তরীণ কোন্দল ধীরে ধীরে চরম আকার ধারণ করে। বিগত উপজেলা ও ইউপি নির্বাচনে নজির হোসেন প্রত্যক্ষ ও পরোক্ষভাবে প্রার্থীদের পক্ষে কাজ করেছেন। এ সব কাজে কেন্দ্রীয় নেতারা সনু্তুষ্ট হয়ে তার উপর খড়গ দৃষ্টি শিথিল করেন। সর্বশেষ গত মঙ্গলবার বিএনপি চেয়ারপারসন সাবেক প্রধানমন্ত্রী বেগম খালেদা জিয়ার সঙ্গে সাক্ষাৎ করে নিজের অবস্থান পরিষ্কার করেন তিনি। পুরোদমে দলীয় কাজ করার নির্দেশনা পেয়েছেন নজির হোসেন। দলকে সংঘটিত করে সবাইকে একসঙ্গে পেতে কাজ করবেন বলে জানান তিনি। নজির হোসেন বলেন, আমি দলীয়  চেয়ারপারসন দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়ার সঙ্গে সাক্ষাৎ করেছি। গত মঙ্গলবার সন্ধ্যায় প্রায় ৩৫ মিনিট ম্যাডামের সঙ্গে কথা হয়েছে, আগামী জাতীয় নির্বাচনের আগেই দলকে ঐক্যবদ্ধ করে সামনে এগিয়ে নেয়ার নির্দেশ দিয়েছেন। সুনামগঞ্জে বিএনপি‘র দ্বন্দ্ব ও কোন্দল নিরসনে কাজ করার পরামর্শ দিয়েছেন আমাকে। তিনি আরো জানান, দেশের বর্তমান রাজনৈতিক পরিস্থিতি বিএনপি’র নেতাকর্মীদের গ্রেপ্তার হামলা-মামলার বিষয়ে বিস্তারিত কথা হয়েছে। বিএনপি চেয়ারপারসনকে দলীয় নিরপেক্ষতা বজায় রেখে দলের স্বার্থে কাজ করার প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন নজির হোসেন। এর পূর্বেও গেল ফেব্রুয়ারির শেষের দিকে সংস্কারপন্থি দুই নেতা জহির উদ্দীন স্বপন ও শাখাওয়াত হোসেন বকুল বেগম জিয়ার সঙ্গে সাক্ষাৎ করার পর তাদেরকেও দলীয় কর্যক্রম চালিয়ে যাওয়ার নির্দেশ দেয়ার কথা জানান তিনি। এলাকায় এসে বিএনপি’র তৃণমূল নেতৃবৃন্দকে সুসংগঠিত করে কেন্দ্রীয় নির্দেশ মোতাবেক সকল কর্মসূচি পালনের কথা জানান।

 

এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

আপনার মতামত দিন

তিন দিন ধীরগতি থাকবে ইন্টারনেটে

সন্তানকে ফিরে পেতে বাবা-মায়ের আকুতি

‘সুষমা স্বরাজের ঢাকা সফরে রোহিঙ্গা, তিস্তা ইস্যু থাকবে’

কে এই কিংবদন্তী নর্তকি ও গুপ্তচর মাতা হারি?

আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়কে স্থায়ী ও কার্যকর ভূমিকা রাখার আহবান স্পিকারের

রোহিঙ্গাদের জন্য ৪৩ কোটি ৪০ লাখ ডলার সংগ্রহে ডোনার কনফারেন্স করবেন জাতিসংঘের কর্মকর্তারা

ইউপি চেয়ারম্যান ও আ’লীগের নেতার বিরুদ্ধে ধর্ষণ মামলা

‘ব্যাক্তিগত জীবন নিয়ে সিদ্ধান্তের অধিকার সবারই আছে’

ঢাকায় আসছেন জাপানের পররাষ্ট্রমন্ত্রী তারো কোনো

আবারো মিয়ানমারের বিরুদ্ধে অস্ত্র-ভ্রমণ নিষেধাজ্ঞার আহ্বান

কুয়েতে এসি বিস্ফোরণে মৌলভীবাজারের একই পরিবারের ৫ জনের মৃত্যু

৮০০ কোটি টাকার প্রকল্প নিয়ে নানা প্রশ্ন

যুদ্ধ নয় আলোচনায় সমাধান

সিইসি’র বক্তব্য কৌশল হতে পারে

আড়াই ঘণ্টা আলোচনার পর হঠাৎ সংলাপ বয়কট

বর্মী সেনা কর্মকর্তাদের ওপর ইইউ’র নিষেধাজ্ঞা