‘এখনকার গান শুনলে মনে হয় সব সুরই কাছাকাছি’

বিনোদন

ফয়সাল রাব্বিকীন | ২১ এপ্রিল ২০১৭, শুক্রবার
যে কয়জনের হাত ধরে পপ সংগীত আমাদের দেশে প্রতিষ্ঠা পেয়েছে তাদের মধ্যে জানে আলম অন্যতম। নিজের দীর্ঘ ক্যারিয়ারে অনেক জনপ্রিয় গান উপহার দিয়েছেন এ শিল্পী। বিশেষ করে তার  গাওয়া ‘একটি গন্ধমের লাগিয়া’, ‘কালি ছাড়া কলমের মূল্য যে নাই’, ‘বৈশাখে তোমার সাথে’, ‘মায়ে কান্দে  বোনেও কান্দে’ গানগুলো এখনো মানুষের মুখে মুখে। এরই মধ্যে সংগীতে প্রায় সাড়ে তিন যুগ পাড়ি দিয়েছেন জানে আলম। তবে চমকের বিষয় হলো এখন তিনি আগের চেয়েও বেশি কাজ করছেন। অ্যালবাম, স্টেজ, টিভি লাইভ  প্রতিটি মাধ্যমেই সরব এ সংগীত তারকা।
ক্লান্তিহীনভাবে কাজ করে যাচ্ছেন। শুধু তাই নয়, সংগীতের স্বার্থ রক্ষায়ও বেশ ভালো ভূমিকা রাখছেন। যেখানেই সংগীতের ভালোর জন্য কিছু করা প্রয়োজন সেখানেই উদ্যোগী হয়ে ছুটে যাচ্ছেন তিনি। এদিকে বর্তমানে স্টেজ ও অ্যালবাম নিয়েই জানে আলমের মূল ব্যস্ততা। দেশ-বিদেশের বিভিন্ন স্থানে শো করছেন। পাশাপাশি এগিয়ে নিচ্ছেন নিজের নতুন অ্যালবামের কাজ। সব মিলিয়ে কেমন আছেন জানতে চাইলে তিনি বলেন, খুব ভালো আছি। আল্লাহ ভালো রেখেছেন। এই বয়সেও যে আমি এত কাজ করতে পারছি এর জন্য সৃষ্টিকর্তার প্রতি শুকরিয়া জানাই। বর্তমান ব্যস্ততা কি নিয়ে? জানে আলম বলেন, অনেক কিছু নিয়েই ব্যস্ত থাকতে হচ্ছে। নিজের অ্যালবাম করছি। পাশাপাশি আমি তো শো আয়োজনও করি দেশ-বিদেশে। সেই ব্যস্ততাটাও রয়েছে। নিজেরও শোতে পারফর্ম করতে হয়। এত বছর পরও একই রকম গতিতে কাজ করছেন। এর পেছনে শক্তিটা কি? জানে আলম হেসে বলেন, এটা আমাকে অনেকেই জিজ্ঞেস করেন। আসলে আমি কাজ করতে ভালোবাসি। সব সময় কাজের মধ্যে থাকি। শ্রোতাদের ভালোবাসার টানেই হয়তো এখনো গান করে যাচ্ছি। সময় বদলেছে। তরুণ প্রজন্ম খুব ভালো কাজ করছে। তা সত্ত্বেও যে শ্রোতারা আমার গান শুনতে চায় সেটাই তো বড় ব্যাপার। আমার গান শুনে শ্রোতারা যখন আনন্দে আত্মহারা হয়ে উঠেন
সেটাই জীবনের সব থেকে বড় প্রাপ্তি বলে মনে হয়। শ্রোতাদের ভালোবাসাই আমার কাছে বড় অ্যাওয়ার্ড। অ্যালবামের কাজ তো শুরু করেছিলেন। সেটার কি খবর? জানে আলম বলেন, হ্যাঁ, সেটা নিয়েই ব্যস্ততা বেশি যাচ্ছে। দেড়শ’ গানের একটি অ্যালবাম করছি। এর মধ্যে আমার  আগের জনপ্রিয় গানগুলো থেকে থাকছে ৭৫টি। সেগুলো নতুন করে সংগীতায়োজন করা হচ্ছে। আর বাকি ৭৫টি গান থাকছে নতুন। সেসব গানের রেকর্ডিংয়ের কাজ নিয়ে এখন ব্যস্ত সময় যাচ্ছে। এটি এককভাবে কোনো শিল্পীর সবচেয়ে বড় অ্যালবাম হতে যাচ্ছে। এর আগে ১৫০টি গান নিয়ে কোনো শিল্পীর অ্যালবাম প্রকাশ হয়নি। ১৫টি সিডিতে থাকবে এ গানগুলো। খুব শিগগিরই এ অ্যালবামটি প্রকাশ করবো। আশা করছি ভালো লাগবে সবার। এদিকে এর বাইরেও চলতি প্রজন্মের বেশ কজন শিল্পী নিয়ে অ্যালবাম করছেন জানে আলম। এগুলো সিক্যুয়াল অ্যালবাম। ‘ইয়াং স্টার’ শিরোনামে এ অ্যালবামগুলোর কিছু প্রকাশ হয়েছে। আবার ঈদে কিছু প্রকাশ হবে। এরই মধ্যে প্রায় ৫০টি গান তৈরি করেছেন।
এগুলোতে কণ্ঠ দিয়েছেন চলতি প্রজন্মের জনপ্রিয় শিল্পীরা। এ সময়ের গান কেমন হচ্ছে বলে আপনার মনে হয়? জানে আলম বলেন, বেশ ভালো। চলতি প্রজন্ম ভালো করছে। অনেকের গানই ব্যক্তিগতভাবে আমার কাছে খুব ভালো লাগে। কিন্তু একটি বিষয় আমাকে খানিক কষ্টও দেয়। সেটা হলো সুরের একঘেয়েমিতা। এখনকার গান শুনলে মনে হয় সব সুরই কাছাকাছি। সবাই যেন হাবিব ওয়াহিদকে ফলো করে গান করছেন। এটা একটা বড় সমস্যা। এখান থেকে বের হয়ে আসার উপায় কি? জানে আলম বলেন, হাবিব ওয়াহিদ একটি ধারার সূচনা করেছেন। তিনি অবশ্যই প্রশংসার দাবি রাখেন। সেই ধারা এখনো চলছে। নতুন ধারা নিয়ে নতুন কারও আসতে হবে। নিজেকে ভাঙতে হবে। একই ধরনের গান না করে তাতে ভ্যারিয়েশন আনার চেষ্টা করতে হবে। এখন যারা কাজ করছেন তারা মেধাবী। মেধা খাটিয়ে নিজস্ব ধারা তৈরি করতে হবে। তবেই সংগীত আরো অনেক দূর এগিয়ে যাবে।

 

এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

আপনার মতামত দিন

মসজিদে গুলি ছোড়ার পর পাল্টে গেল এক মার্কিনীর জীবন

দৃশ্যপট একই

আয় বৈষম্য বাড়ায় চাপে মধ্যবিত্ত

নকলা উপজেলা চেয়ারম্যানের লাশ উদ্ধার

রিভিউর প্রস্তুতি

বাংলাদেশির বীরত্বে ধর্ষকদের হাত থেকে রক্ষা পেলো ইতালীয় তরুণী

ঢাবিতে ‘ঘ’ ইউনিটের প্রশ্ন ফাঁস?

সিলেট টার্মিনালে গুলিবর্ষণ নিয়ে পাল্টাপাল্টি

রোহিঙ্গা স্রোত থামছে না

বড় দুই দলেই প্রার্থীর ছড়াছড়ি

সামান্য বৃষ্টিতেই ডুবেছে চট্টগ্রাম

টানা বৃষ্টিতে নগরজুড়ে দুর্ভোগ

নিম্নমানের কাগজে ছাপা হচ্ছে বিনা মূল্যের পাঠ্যবই

দিনে গড়ে দেড় হাজার মামলা

‘বিএনপিকে নির্বাচনের বাইরে রাখার ষড়যন্ত্র চলছে’

পাকিস্তানের ষড়যন্ত্রে রোহিঙ্গাদের উপর আক্রমণ: মতিয়া চৌধুরী