জেএসকে তৈরি করেছে ৩০০ দক্ষ স্বাস্থ্যকর্মী

দেশ বিদেশ

স্টাফ রিপোর্টার | ২১ এপ্রিল ২০১৭, শুক্রবার
জেএসকে এবং কেয়ার-এর তত্ত্বাবধায়নে সুনামগঞ্জ অঞ্চলে মা ও শিশু স্বাস্থ্য উন্নয়নকল্পে গড়ে তোলা হয়েছে ৩০০ দক্ষ স্বাস্থ্যকর্মী। জেএসকে এবং কেয়ার-এর স্বাস্থ্যকর্মী বিষয়ক কার্যক্রমের ফলাফল এবং পর্যবেক্ষণ নিয়ে এক অনুষ্ঠানে এসব কথা জানান তারা। অনুষ্ঠানে গবেষণা প্রতিষ্ঠান আইসিডিডিআর,বি’ তাদের জরিপ  থেকে জানায়, গত তিন বছরে সুনামগঞ্জে মা ও শিশুর দক্ষ সেবা গ্রহণের হার বেড়েছে তিন গুণেরও বেশি। সরকার ও উন্নয়ন সহযোগী পার্টনারদের সহায়তায় শিশু মৃত্যুর হার কমেছে অনেকাংশে। এছাড়াও, গড়ে তোলা দক্ষ স্বাস্থ্যকর্মীরা প্রতিমাসে পাঁচ হাজার কিংবা তারও বেশি অর্থ উপার্জন করেছে। অনুষ্ঠানে জানানো হয়, দুর্গম এলাকাগুলোতে সেবা প্রদানে কৌশলগুলো কাজ করছে না। কিন্তু এই উদ্যোগটি সুনামগঞ্জের মা ও শিশু স্বাস্থ্য উন্নয়নে একটি দৃষ্টান্ত করেছে বিশেষ করে শিশু মৃত্যুর হার কমাতে এবং দরিদ্রদের সেবা প্রদানে অসমতা কমিয়ে এনেছে। বিশেষ অতিথির বক্তব্যে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের প্রাইমারি হেলথ  কেয়ার প্রোগ্রামের পরিচালক ডা. জাহাঙ্গীর আলম সরকার বলেন, মাঠ পর্যায়ে এই প্রকল্প ৩০০ দক্ষ স্বাস্থ্য উদ্যোক্তা তৈরি করেছে যারা সবাই স্থানীয় এবং এই প্রকল্প শেষ করেও কাজ চালিয়ে যেতে পারবে। উদ্যোগটি স্থানীয় সরকার এবং কমিউনিটি সাপোর্ট গ্রুপের সঙ্গে ওতপ্রোতভাবে জড়িত। পরিবার পরিকল্পনা অধিদপ্তরের পরিচালক (এমসিএইচ) ডা. মো. শরীফ বলেন, উদ্যোগটি একটি অনন্য দৃষ্টান্ত যা সরকারের কাজকে দুর্গম এলাকাতে পরিপূরক হিসেবে কাজ করেছে।অনুষ্ঠানে জেএসকে-এর আফ্রিকা ও এশিয়া অঞ্চলের ভাইস প্রেসিডেন্ট  ডেবিড প্রিটচার্ড বলেন, গত পাঁচ বছর আগে শুরু হওয়া এই উদ্যোগ এই দুর্গম অঞ্চলে মা ও শিশু স্বাস্থ্যসেবা গ্রহণের একটি ইতিবাচক পরিবর্তন এনেছে। আমি বিশ্বাস করি সরকারের স্বাস্থ্য ব্যবস্থা শক্তিশালী করতে সরকারের সঙ্গে প্রাইভেট সেক্টরের এ সমন্বয় মডেল তৈরি করবে।
জেএসকের অর্থায়নে কেয়ার ইন্টারন্যাশনাল এই উদ্যোগ বাস্তবায়ন করছে। জেএসকের কমিউনিকেশন্স বিভাগের প্রধান রুমানা আহমেদ এই প্রকল্পের নানা দিক তুলে ধরেন। তিনি বলেন, ২০১২ সাল থেকে এ কার্যক্রমের মাধ্যমে সুনামগঞ্জের ২৯ লাখ মা, নবজাতক ও শিশু স্বাস্থ্যসেবা নিশ্চিত করে আসছে।

 
এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

আপনার মতামত দিন