ভোগান্তির অপর নাম চাঁদপুরের কাঁচা কলোনির রাস্তা

বাংলারজমিন

মোরশেদ আলম, চাঁদপুর থেকে | ২১ এপ্রিল ২০১৭, শুক্রবার
দুর্ভোগ ও ভোগান্তির অপর নাম চাঁদপুর রেলওয়ে কাঁচা কলোনির রাস্তা। প্রতিদিন চরম দুর্ভোগ এমন পর্যায় এসে পৌঁছেছে যে রিকশা কিংবা অটোবাইকে করে সংসারের প্রয়োজনীয় জিনিসপত্র নিয়ে মূল সড়কে তাদের মালামাল নামিয়ে মাথায় করে ঘরে নিতে হচ্ছে। এভাবেই প্রতিদিন চরম দুর্ভোগের মধ্য দিয়ে এলাকাবাসীকে চলাচল করতে হচ্ছে। এক বছরেরও বেশি সময় ধরে বেহাল দশায় পড়ে আছে চাঁদপুর পৌরসভার ৭নং ওয়ার্ড শহরের রেলওয়ে কাঁচা কলোনির রাস্তা। স্থানীয় কাউন্সিলর একাধিকবার প্রতিশ্রুতি দিলে আজো তা মেরামত করা হয়নি বলে এলাকাবাসীর অভিযোগ।
সরেজমিনে ওই এলাকায় গিয়ে দেখা যায়, চাঁদপুর শহরের বড় স্টেশন রেলওয়ে একাডেমির সামনে থেকে শুরু করে রেলওয়ে কাঁচা কলোনীর কংক্রিটের ঢালাই করা রাস্তাটি বেহাল অবস্থায় পড়ে  রয়েছে। রাস্তার অধিকাংশ জায়গাজুড়ে পাকা ঢালাই ভেঙে উঠে গিয়ে বড় বড় গর্ত সৃষ্টি হয়ে সেগুলো এলোমেলো ভাবে পড়ে আছে। এমনকি রাস্তাটির অনেক স্থানে বৃষ্টির পানিতে মাটি সরে গিয়ে বড় বড় গর্ত হয়ে আছে। যার ফলে ওই রাস্তা দিয়ে স্থানীয়রা ভালোভাবে যাতায়াত করতে পারছে না। রিকশা কিংবা অটোবাইকে করে সংসারের প্রয়োজনীয় জিনিসপত্র নিয়ে ওই রাস্তা দিয়ে তাদের গন্তব্য স্থানে পৌঁছাতে পারছেন না। রাস্তাটির বেহাল দশা থাকায় মূল সড়কে তাদের মালামাল নামিয়ে মাথায় করে ঘরে নিতে হয়। এভাবেই প্রতিদিন অনেক দুর্ভোগের মধ্যদিয়ে তাদেরকে চলাচল করতে হয়। স্থানীয় বাসিন্দা নুরুল আমিন হাওলাদার, হাসান মোল্লা, আবুল কালাম ও মোহাম্মদ হোসেনসহ একাধিক ব্যক্তি জানান, এটি হচ্ছে মাদরাসা রোড লঞ্চঘাটে যাওয়ার একটি শাখা রাস্তা। রাস্তাটি মেরামত করার জন্য স্থানীয় ওয়ার্ড কাউন্সিলর শাহ আলম বেপারীকে একাধিক বার সংস্কার করার কথা বললেও তিনি আজো তার কোনো ব্যবস্থা নেননি। তারা ক্ষোভ প্রকাশ করে বলেন, ভোটের আগে সবাই মিষ্টি কথা বলে আমাদের কাছে ভোট চাইতে আসেন। কিন্তু জনপ্রতিনিধি হয়ে আমাদের কোনো খোঁজখবর নেয় না। তারা আরো বলেন, কাউন্সিলরকে বলে কোন লাভ হবে না। রাস্তাটি দ্রুত মেরামত করার জন্য পৌর মেয়রের হস্তক্ষেপ কামনা করছেন তারা। চাঁদপুর পৌর সভার ৭নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর শাহ আলম বেপারী মুঠোফোনে বলেন, খুব সহসায় এ রাস্তাটির মেরামত কাজ করা হবে।
 
এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

আপনার মতামত দিন