ফ্রান্সের নির্বাচনে চতুর্মুখী লড়াই

বিশ্বজমিন

মানবজমিন ডেস্ক | ১৮ এপ্রিল ২০১৭, মঙ্গলবার
ফ্রান্সে প্রেসিডেন্ট নির্বাচনের প্রধান দুই প্রার্থী এম্যানুয়েল ম্যাক্রন ও ম্যারিন ল্য পেনের  মধ্যে ভোটের ব্যবধান কমিয়ে এনেছেন অন্য দুই প্রার্থী জিন লিক মেলেঞ্চন ও ফ্রাসোয়া ফিলন। নতুন জনমত জরিপে এ তথ্য বের হয়ে এসেছে বলে খবর দিয়েছে দ্য ইন্ডিপেনডেন্ট। খবরে বলা হয়, ইপসস-সপ্রা স্টার্নার নতুন জনমত জরিপ অনুসারে নির্বাচনের প্রথম দফায় মধ্যপন্থী ম্যাক্রন পাবেন ২২ শতাংশ ভোট। ফ্রন্ট ন্যাশনাল দলের নেত্রী ল্য পেনও পাবেন ২২ শতাংশ ভোট। এ ছাড়া, বামপন্থি প্রার্থী মেলেঞ্চন পাবেন ২০ শতাংশ ও ফিলন পাবেন ১৯ শতাংশ ভোট। ইপসস ফ্রান্সের আগের একটি জনমত জরিপে ল্য পেন ও ম্যাক্রন ২৫ শতাংশ করে ভোট পাবেন বলে তথ্য প্রকাশিত হয়েছিল। ওই জরিপ অনুসারে ফিলন পেতেন ১৭.৫ শতাংশ ভোট। তবে কয়েকদিনেই কমে এসেছে ভোটের ব্যবধান। এদিকে জনপ্রিয়তা বৃদ্ধি পেয়েছে কট্টর বামপন্থি প্রার্থী মেলেঞ্চনের। সোশালিস্ট পার্টির বেনহোয়া হ্যামনের জায়গা দখল করে প্রধান বামপন্থি নেতা হিসেবে নিজের আবির্ভাব ঘটিয়েছেন মেলেঞ্চন।  ইউনিভার্সাল ব্যাসিক ইনকাম সমর্থনকারী এই প্রার্থী ন্যাটো ও বিশ্বব্যাংক থেকে ফ্রান্সকে সরিয়ে আনার প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন। এর মধ্যে ল্য পেনের দল ফ্রন্ট ন্যাশনালের বিরুদ্ধে ইউরোপিয়ান ইউনিয়ন ২৯০,০০০ পাউন্ড সমপরিমাণ তহবিল নিয়ে প্রতারণার অভিযোগ এনেছে। এই অভিযোগ আসার পর বিভক্ত হয়ে গেছে ল্য পেনের সমর্থন। ফ্রান্স নির্বাচনের প্রথম দফা শুরু হবে ২৩শে এপ্রিল। ফ্রান্সের নির্বাচন ব্যবস্থা অনুযায়ী কোনো প্রার্থী যদি অর্ধেকের বেশি ভোট না পায় তাহলে ১৪ দিন পর শীর্ষ দুই প্রার্থীর মধ্যে দ্বিতীয় দফা নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। এ বছর প্রেসিডেন্ট হবার জন্য লড়ছেন ১১ জন প্রার্থী। তাই বিশেষজ্ঞদের মতে, নির্বাচন দ্বিতীয় দফা পর্যন্ত  গড়াবেই। সিদ্ধান্তহীনতায় ভোগা ভোটার ও জনমত জরিপে ঘটা ভুল- এসবকিছু বিবেচনায় এখনো নিশ্চিত করে বলা যাচ্ছে না প্রধান চার প্রার্থীর মধ্যে কে কে দ্বিতীয় দফায় লড়তে চলেছেন।  

 
এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

আপনার মতামত দিন

রোহিঙ্গাদের সমর্থনে বোস্টনে প্রতিবাদ বিক্ষোভ

কর্ণফুলীতে বিএনপির তিন প্রার্থীর নির্বাচন বর্জন

পূর্ব লন্ডনে এসিড হামলায় আহত ৬

সাদুল্যাপুরে ১১২ মেট্রিক টন চাল জব্দ, গুদাম সিলগালা

রোহিঙ্গা ইস্যুতে এবার বিমসটেকেও ছায়া পড়েছে

রাজধানীতে আগুনে পুড়ে নিহত ১

চতুর্থ দফা ক্ষমতার দিকে দৃষ্টি মার্কেলের

‘অযথা এসব গুঞ্জনের কোন মানে হয় না’

সন্তানের নাড়ি কাটার সময়ও পাননি হামিদা

সেনাবাহিনীর কার্যক্রম শুরু, ফিরছে শৃঙ্খলা

কাল থেকে গণশুনানি

সার্ক সম্মেলন নিয়ে এবারও অনিশ্চয়তা

মাদরাসায় শিক্ষক নিয়োগ মন্ত্রণালয়ে অভিযোগের স্তূপ

যেখানে এখনো পৌঁছেনি ত্রাণ

স্বস্তিতে বিএনপি আওয়ামী লীগ টেনশনে

চলছে পূজার শেষ মুহূর্তের প্রস্তুতি