জন্মদিনের উপহার নিয়ে মুম্বইয়ে তামিম

খেলা

স্পোর্টস রিপোর্টার | ২১ মার্চ ২০১৭, মঙ্গলবার
আগের দিন দেশের ক্রিকেট ইতিহাসকে ব্যাট হাতে রঙিন করেছেন তামিম ইকবাল। একদিন পরের জন্মদিনে এরচেয়ে বড় উপহার আর কী হতে পারে! তাই নিজেদের শততম টেস্টে জয় উদযাপনের সঙ্গে জন্মদিনের আনন্দটাও মিলেমিশে একাকার হয়ে গেল। আর জন্মদিনে পাওয়া উপহার নিয়ে লঙ্কা ছেড়ে ছুটে গেলেন মুম্বইতে। সেখানেই অবস্থান করছেন তামিমের স্ত্রী ও সন্তান। উপহারটা তাই ভাগাভাগি করে নিতে চেয়েছেন পরিবারের সঙ্গে। ২৫শে মার্চ মাঠে গড়াবে ওয়ানডে সিরিজের প্রথম ম্যাচ। তার আগে ২২শে মার্চ হবে একটি প্রস্তুতি ম্যাচও। তার আগে ছুটি নিয়ে তিনি কিছুটা বিশ্রামের পর ওয়ানডে মাঠে নামতে চান ফুরফুরে মেজাজে। তাই তাকে ছুটি দিতে কোনো সমস্যা হয়নি বিসিবি’র। তামিমের ছুটির বিষয়টি সংবাদ মাধ্যকে নিশ্চিত করছেন দলের সঙ্গে থাকা ম্যানেজার খালেদ মাহমুদ সুজন।
১৯৮৯ সালে ২০শে মার্চ চট্টগ্রামে জন্ম নেয়া তামিম গতকাল ২৮ বছরে পা রেখেছেন। ক্রীড়া পরিবারের এই সন্তান বাবা, চাচা আর বড় ভাইয়ের হাত ধরেই ক্রিকেটের দুনিয়াতে আসেন। অনেক সম্ভাবনা নিয়ে ২০০৮ সালে নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে ডানেডিনে বাংলাদেশ দলের ৫০তম  টেস্ট ম্যাচে অভিষেক হয়েছিল। প্রথম ম্যাচেই ওপেন করতে নেমে ব্যাট হাতে খেলেন ৫৩ রানের দারুণ এক ইনিংস। শুধু তাই নয়, দ্বিতীয় ইনিংসেও খেলেন ৮৪ রানের ইনিংস। জোড়া ফিফটিতে শুরু করেছিলেন তার টেস্ট ক্যারিয়ার।  এরপর থেকে দেশের হয়ে মাত্র একটি টেস্টেই তিনি খেলতে পারেননি শ্রীলঙ্কার গলে ২০১৩ সালে। তার খেলা ৪৯তম টেস্ট ম্যাচটি শুধু নিজের ক্যারিয়ারেই নয়, ছিল বাংলাদেশের জন্যও অনন্য। কারণ ৫০তম টেস্টে অভিষেক হওয়া এই ক্রিকেটারের এটি ছিল শততম ম্যাচ। শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে এই ম্যাচেও তার জোড়া ফিফটিই হয়ে যাচ্ছিল। কিন্তু  প্রথম ইনিংসে ৪৯ রানে আউট হয়ে একটি রেকর্ড হাতছাড়া হয়। তবে দ্বিতীয় ইনিংসে ৮২ রানের এক ইনিংস খেলে দলের ইতিহাস রচনাতে দারুণ ভূমিকা রাখেন তিনি। এ পর্যন্ত টেস্টের ৯৪ ইনিংসে তার ব্যাট থেকে এসেছে ৩৯.৫৩ গড়ে ৩,৬৭৭ রান। যেখানে রয়েছে ৮টি সেঞ্চুরি এবং ২২টি ফিফটি। অন্যদিকে ১৬২টি ওয়ানডে ম্যাচ খেলে ৭টি সেঞ্চুরি ও ৩৪টি ফিফটির সুবাদে ৫১২০ রান তামিমের।

 
এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

আপনার মতামত দিন