ফেসবুক স্ট্যাটাসে আসিফ

‘সিটি নির্বাচনে ভোট দিতে কুমিল্লায় যাচ্ছি না’

এক্সক্লুসিভ

স্টাফ রিপোর্টার, কুমিল্লা থেকে | ২১ মার্চ ২০১৭, মঙ্গলবার
কুমিল্লার সন্তান ও খ্যাতনামা কণ্ঠশিল্পী আসিফ আকবর কুমিল্লা সিটি নির্বাচনে ভোট দিতে কুমিল্লায় আসছেন না। ১৯শে মার্চ তিনি তাঁর ফেসবুক পেজে এ ধরনের কথা পোস্ট করেছেন। ফ্যানপেজ-এ তাঁর এ স্ট্যাটাস আসিফ ভক্তদের মাঝে বেশ সাড়া জাগিয়েছে, লাইক পড়েছে অনেক। অনেকে তাঁর এ সিদ্ধান্তকে সাধুবাদ জানিয়েছে, আবার অনেকে নির্বাচনে তাঁর শূন্যতা অনুভব করছেন। ফেসবুক পেজে তিনি উল্লেখ করেন, ‘কুমিল্লা সিটি কর্পোরেশন নির্বাচন আসন্ন। কুমিল্লার সন্তান হিসেবে আমার ভূমিকা কি হতে পারে- এ নিয়ে মিডিয়া এবং জনমনের কৌতূহল এবং প্রশ্নের মুখোমুখি হতে হচ্ছে প্রতিনিয়ত। আমার পূর্বেকার ভূমিকা এ প্রশ্নের জন্ম দেয়ার জন্য যথেষ্ট, তাই ব্যাখ্যা দেয়ার প্রয়োজনে এই  লেখা। আমি একজন সঙ্গীত শিল্পী হিসেবে বাংলাদেশে কুমিল্লার প্রতিনিধিত্ব করি। তাই বলে আমি শুধু কুমিল্লা  জেলারই সন্তান নই, আমি বাংলাদেশের প্রতিটা ইঞ্চি মাটির সন্তান হিসেবে গর্ববোধ করি। এবার সিটি ইলেকশন হচ্ছে দলীয় প্রতীকে, স্বায়ত্তশাসিত প্রতিষ্ঠানে এ পদ্ধতিটা আমার পছন্দ নয়। যদিও আমার পছন্দে কিছু যায় আসে না। তবে সাধারণ ভোটার হিসেবে আমি বিব্রত। আরো সাত বছর আগে আমি বিএনপি থেকে ব্যক্তিগত কারণে স্বেচ্ছায় পদত্যাগ করেছি, মহাসচিবের স্বাক্ষর করা ‘বুঝিয়া পাইলাম’ পদত্যাগ পত্রের অনুলিপি আমার কাছে আছে। দলের কোন পর্যায়ের কোন পদে আমি নেই, এমনকি দুই টাকা ফর্মের সাধারণ সদস্যও আমি না। গত সিটি নির্বাচনে সাক্কু সাহেব বিদ্রোহী স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে নির্বাচন করেছিলেন। বিভিন্ন কারণে উনার পক্ষে কাজ করেছি সিঙ্গেল কাক হিসেবে, এই নির্বাচনে সাক্কু সাহেবের পক্ষে কাজ করার জন্য কাকের অভাব নাই। এবার তিনি মার্কা নিয়ে নির্বাচনে আছেন, তাই আমার যাবার প্রশ্নই আসে না। এছাড়াও কুমিল্লা নগরবাসী হিসেবে আমি উনার কাজে সন্তুষ্ট নই। অপর পক্ষের প্রার্থী সীমা ভাবী, তিনি জিলা স্কুল ’৮৫ ব্যাচের বড় ভাই নিসারউদ্দিন আহমেদ মিন্টু ভাই এর স্ত্রী, এই হিসেবে আমার খুবই কাছের। ওনার দল বা মার্কার কারণে ভোট দেয়া সম্ভব নয় বলেই আমি ভোট দিতে কুমিল্লাই যাচ্ছি না, এমনকি ব্যক্তিগত সফরেও এ মাসে নিজের শহরে যেতে পারছি না, কারণ অহেতুক কথা ছড়িয়ে দেয়ার মত পাতি নেতায় কুমিল্লা সমৃদ্ধ হয়েছে ব্যাপক। শিক্ষিত লোকের জায়গা দখল করেছে অশিক্ষিতরা। প্রতিদিন ব্যাক ফুটে যাচ্ছে কুমিল্লার সমাজ ব্যবস্থা। পথিকৃৎ কুমিল্লা এখন অশিক্ষিতদের দ্বারা অধিকৃত। সারা দুনিয়ায় কুমিল্লার মানুষ আমাকে  যেখানে দেখেছে পেয়েছে বা পায়- বুঝেছি তারা আমাকে নিয়ে গর্ববোধ করে। আমি আঞ্চলিকতা বাদ দিয়ে তাদেরকে শুধু বাংলাদেশের কথাই ভাবতে বলি। আঞ্চলিকতা মানসিকতাকে ক্ষুদ্র করে ফেলে, এতে অঞ্চলের ক্ষতি হয় যেমন, দেশেরও ক্ষতি হয় ঠিক তেমন। এদেশে আমি সঙ্গীতশিল্পী হিসেবে প্রতিষ্ঠা পেয়েছি, এখনো নিজের অবস্থান নিয়ে সন্তুষ্ট। পুরোদমে গাইছি, গায়ক আসিফ ভাল আছে, আমাকে আপাতত গাইতে দিন। আর এটা কোন রাজনীতিকের পেজ নয়, একজন গায়কের ফ্যান পেজ। তবে বিভাগ প্রশ্নে দাবি একটাই- ‘ময়নামতি নামে নয়, কুমিল্লা নামেই বিভাগ চাই’। কেউ আমাকে ভুল বুঝলে নিজ দায়িত্বে বুঝবেন। সবাই ভাল থাকুন, সুস্থ্য থাকুন, সুন্দর থাকুন। ভালবাসা অবিরাম।’

 
এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

আপনার মতামত দিন