লক্ষ্মীপুরে দুই মামলায় ৫ জনের যাবজ্জীবন

এক্সক্লুসিভ

লক্ষ্মীপুর প্রতিনিধি | ২১ মার্চ ২০১৭, মঙ্গলবার
লক্ষ্মীপুর সদরে ধর্ষণ ও রায়পুরে হত্যাসহ পৃথক দুইটি  মামলায় ৫ জনের যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দিয়েছেন আদালত। এছাড়া প্রত্যেককে ৫০ হাজার টাকা করে জরিমানা ও অনাদায়ে আরো এক বছর করে কারাদণ্ডের আদেশ দিয়েছেন আদালত। আজ সোমবার দুপুর দুইটায় জেলা ও দায়রা জজ আদালতের বিচারক ড. আবুল কাশেম চৌধুরী এ দুইটি রায় প্রদান করেন। মামলা দুইটি হচ্ছে সদর উপজেলার বাঙ্গাখাঁ এলাকার কিশোরীকে ধর্ষন ও রায়পুর উপজেলার শিবপুর গ্রামের রাব্বি হত্যা। ধর্ষণ মামলায় যাবজ্জীবন কারাদণ্ড প্রাপ্ত আসামি হচ্ছেন টুটুল চন্দ্র দাস, রাব্বী হত্যা মামলায় দণ্ডপ্রাপ্তরা হচ্ছেন- স্ত্রী জোসনা আক্তার, জয়নাল আবেদিন, রেজিয়া বেগম ও  মো. আলম। ২০১৩ সালের ১৪ই এপ্রিল সদর উপজেলার বাঙ্গাখাঁ এলাকায় বাড়ির পুকুরের পাশে এক কিশোরীকে ধর্ষণ করে টুটুল চন্দ্র দাস। পরে ওই কিশোরীর বাবা শংকর চন্দ্র দাস একই দিন সদর থানায় নারী ও শিশু নির্যাতন আইনে একটি মামলা দায়ের করেন। একই বছরের ১৬ জুন টুটুল চন্দ্র দাসকে অভিযুক্ত করে আদালতে চার্জশিট দেয় পুলিশ। দীর্ঘ শুনানি ও সাক্ষীর সাক্ষ্য শেষে এ রায় দেন আদালত। এছাড়া ২০১৫ সালের ৮ই সেপ্টেম্বর রায়পুর উপজেলার শিবপুর এলাকায় বাড়ির ছাদে নিয়ে হত্যার পর লাশ সুপারী বাগানে ঝুলিয়ে রাখে। পরের দিন রায়পুর থানায় রাব্বীর বাবা নুরুল আমিন পাটওয়ারী বাদী হয়ে রাব্বীর স্ত্রী জোসনা বেগমসহ ৪ জনকে আসামি করে মামলা করেন। ওই বছরের ২৫শে নভেম্বর ওইজনকে অভিযুক্ত করে আদালতে চার্জশিট  দেয় পুলিশ। দীর্ঘ শুনানি ও সাক্ষীদের সাক্ষ্য গ্রহণ শেষে আদালত এ রায় প্রদান করেন।

 
এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

আপনার মতামত দিন

সন্ত্রাসী হামলার জন্য বৃটিশ পররাষ্ট্র নীতি দায়ী: লেবার নেতা করবিন

সামনের কাতারে যেতে মন্টিনিগ্রোর প্রধানমন্ত্রীকে ধাক্কা ট্রাম্পের

সাভারে পুলিশের সঙ্গে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ নিহত ১

এবার ট্রাম্পের জামাতার দিকে নজর এফবিআই’র

অভিযান থেকে ফেরার পথে নিজ বন্দুকের গুলিতে পুলিশ সদস্য নিহত

খুলনায় দুর্বত্তদের গুলিতে দেহরক্ষীসহ বিএনপি নেতা নিহত

মধ্যরাতে সরানো হলো সুপ্রিম কোর্ট চত্বরের ভাস্কর্য

‘শুধু অভিনেতা না মানুষ হিসেবেও প্রসেনজিত দাদা দারুণ’

পদত্যাগ করলেন ইসলামী ব্যাংকের স্বতন্ত্র দুই পরিচালক

নাঈমের জবানিতে রেইনট্রি ধর্ষণকাণ্ড

আরেকটি হামলার প্রস্তুতি নিচ্ছিল সালমান আবেদির ভাই হাশেম