সৌদি আরবে আবারও ৩ মাসের সাধারণ ক্ষমা

বিশ্বজমিন

মানবজমিন ডেস্ক | ২০ মার্চ ২০১৭, সোমবার
আবারও সাধারণ ক্ষমা ঘোষণা করেছে সৌদি আরব। এবার আবাসন খাতে ও শ্রম আইন লঙ্ঘনকারীদের জন্য ৯০ দিনের সময় দেয়া হয়েছে। বলা হয়েছে, এ সময়সীমার মধ্যে আইন লঙ্ঘনকারীরা জরিমানা ছাড়া সৌদি আরব ছেড়ে যেতে পারবেন। এ খবর দিয়েছে অনলাইন আরব নিউজ। এতে বলা হয়েছে, এ জন্য রোববার ‘এ নেশন উইদাউট ভায়োলেশনস’ শীর্ষক একটি প্রচারণা শুরু করেছে দেশটির স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়।  সৌদি আরবের ক্রাউন প্রিন্স, উপ প্রধানমন্ত্রী ও স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী প্রিন্স মোহাম্মদ বিন নায়েফ। আইন লঙ্ঘনকারীরা এ সময়সীমায় সাধারণ ক্ষমার সুযোগ নেবেন বলে আশা করেন তিনি।
সাধারণ ক্ষমা কার্যকর হবে ২ শে মার্চ থেকে। এ জন্য সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষকে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিতে নির্দেশ দিয়েছেন তিনি। বলেছেন, যেসব মানুষ সৌদি আরব থেকে বেরিয়ে যেতে চান তাদেরকে প্রয়োজনীয় সহায়তা দিতে এবং তাদেরকে সব রকম দায়মুক্তি দিতে। স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র মেজর জেনারেল মানসুর আল তুরকি বলেছেন, সাধারণ ক্ষমার এ প্রচারণা চালাতে সরকারের ১৯টি বিভিন্ন সংস্থা। যারা হজ বা ওমরাহ ভিসা, অন্যান্য ভিসার নির্ধারিত মেয়াদের অতিরিক্ত সময় সৌদি আরবে অবস্থান করছেন তারাও আসবেন এই ক্ষমার অধীনে। তিনি বলেছেন, যারা অবৈধভাবে সীমান্ত অতিক্রম করে সৌদি আরবে প্রবেশ করে কাজ করছেন অথবা যাদের আবাসিক অনুমোদন নেই বা আবাসিক আইন লঙ্ঘন করছেন তাদের ক্ষেত্রে এ প্রক্রিয়া সম্পন্ন করা হবে। এসব মানুষের জন্য ‘ট্রাভেল পারমিট’ ইস্যু করা হবে। এসব বিদেশীকে সৌদি আরব ছেড়ে যাওয়ার ক্ষেত্রে সহযোগিতা করতে প্রস্তুতি সম্পন্ন করেছে পাসপোর্ট ও ইমিগ্রেশন ডিপার্টমেন্টের জেনারেল ডাইরেক্টরেট। মানসুর আল তুরকি আরও বলেন, যেসব ‘রেসিডেন্টের’ পরিচয় পত্র নেই অথবা যারা তাদের হজের ভিসার মেয়াদ শেষেও সৌদি আরবে অবস্থান করছেন তাদেরকে সাধারণ ক্ষমার সুবিধা নিতে যোগাযোগ করতে হবে নিকটস্থ পাসপোর্ট ডিপার্টমেন্টে। যারা আবাসন ও কাজের অনুমতি বিষয়ক আইন লঙ্ঘন করেছেন সেসব মানুষকে কাজে না নিতে সৌদি আরবের নাগরিক ও অধিবাসীদের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন তিনি। এমন আইন লঙ্ঘনকারীদের ধরিয়ে দিতে ৯৯৯ নম্বরে ফোন করতে আহ্বান জানানো হয়েছে জনগণের প্রতি। সাধারণ ক্ষমার মেয়াদ শেষ হয়ে যাওয়ার পরে আইন লঙ্ঘনকারীদের বিরুদ্ধে শাস্তিমুলক ব্যবস্থা নেয়া হবে। উল্লেখ্য, তিন বছর আগে একই রকম সাধারণ ক্ষমা দেয়া হয়েছিল। মানসুর আল তুরকির মতে, ওই সময়ে এর সুযোগ নিয়ে সৌদি আরব ছেড়ে গেছেন অথবা যাচ্ছেন ২৫ লাখেরও বেশি মানুষ। ওদিকে বর্ডার গার্ডের মুখপাত্র কর্নেল সাহের আল হারবি বলেছেন, তার বিভাগ জল ও স্থলপথে অনুপ্রবেশকারী কয়েক হাজার মানুষকে ফিরিয়ে দিয়েছে।

 

এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

পাঠকের মতামত

**মন্তব্য সমূহ পাঠকের একান্ত ব্যক্তিগত। এর জন্য সম্পাদক দায়ী নন।

mamun

২০১৭-০৩-২০ ০৫:৩৩:৫৯

Good

আপনার মতামত দিন

কানাডার উন্নয়নমন্ত্রী আসছেন মঙ্গলবার

ব্যক্তির নামে সেনানিবাসের নামকরণ মঙ্গলজনক হবে না: মওদুদ

রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসনে সহায়তার প্রস্তাব জাপানের

পানামা ও প্যারাডাইস পেপারসে নাম আসা ব্যক্তিদের তথ্য প্রকাশের দাবি সংসদে

সমাপনীতে অনুপস্থিত ১৪৫৩৮৩ শিক্ষার্থী

ঈদ-ই মিলাদুন্নবি ২ ডিসেম্বর

দেশের উন্নয়ন ও অগ্রগতির জন্য তারেক রহমানকে দরকার: এমাজউদ্দিন

দল থেকে বরখাস্ত মুগাবে

দেখা হলো, কথা হলো কাদের-ফখরুলের

আখতার হামিদ সিদ্দিকী আর নেই

ইইউ প্রতিনিধি ও তিন পররাষ্ট্রমন্ত্রীর রোহিঙ্গা ক্যাম্প পরিদর্শন

‘এবার প্রশ্নপত্র ফাঁসের কোনো সুযোগ নেই’

নির্বাচনে হস্তক্ষেপ করবে না শেখ হাসিনার সরকার-নৌ মন্ত্রী

‘আমি ব্যবসায়িক প্রতিহিংসার শিকার’

সেনা মোতায়েন নিয়ে বৈঠকে কোনো আলোচনা হয়নি : সিইসি

২০১৮ সালে প্রবল ভুমিকম্পের আশঙ্কা!