‘শিল্পীদের কেউ যেন দুস্থ না থাকে’

বিনোদন

মারুফ কিবরিয়া | ২০ মার্চ ২০১৭, সোমবার | সর্বশেষ আপডেট: ১:৩৪
বর্তমানে একাধিক ধারাবাহিক নাটকে অভিনয় করছেন শামীমা তুষ্টি। এর মধ্যে উল্লেখযোগ্য হলো- ‘অলসপুর’, ‘এক চিলতে পাখি’, ‘নীড় খোঁজে গাঙচিল’, ‘বাবুই পাখির বাসা’, ‘অল্প অল্প গল্প’ সহ আরো বেশ কয়েকটি। একজন অভিনেত্রী হিসেবে সব ধরনের নাটকেই অভিনয় করেন এ অভিনেত্রী। খন্ড কিংবা ধারাবাহিকের মধ্যে তেমন কোনো পছন্দ নেই তার। তবে সারা বছর ধারাবাহিকে কাজ করেন বলে খন্ড নাটকের প্রতি বরাবরই আলাদা গুরুত্ব থাকে বলেও উল্লেখ করেন তুষ্টি। এ ব্যাপারে তিনি বলেন, একজন অভিনয় শিল্পী হিসেবে সব ধরনের নাটকেই অভিনয় করতে হয়।
খন্ড বা ধারাবাহিক নিয়ে তেমন বিশেষ কোন  পছন্দের জায়গা নেই। তবে একখন্ডের নাটকের প্রতি সবসময় আলাদা গুরুত্ব থাকে। কারণ ধারাবাহিক তো সারা বছরই করা হয়। খন্ড নাটকে কাজ কম করি। চলতি বছর ফেব্রুয়ারি মাসে হয়ে গেল অভিনয় শিল্পী সংঘের নির্বাচন। এতে প্রার্থী হিসেবে দাঁড়িয়েছিলেন তুষ্টি। শুধু তাই নয়, আইন ও কল্যাণ সম্পাদক হিসেবে নির্বাচিতও হয়েছেন তিনি। সে অনুযায়ী দায়িত্ব বুঝে নেয়ার পর থেকে নিয়মিত কাজ করছেন। প্রসঙ্গক্রমে তুষ্টি বলেন, সবাই আমাকে ভোট দিয়ে জয়ী করেছেন। সেজন্য প্রত্যেকের কাছে কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করছি। শিল্পীদের একটি বড় প্ল্যাটফরম হলো এই অভিনয় শিল্পী সংঘ। আমি যে পদটিতে আছি তাতে শিল্পীদের কল্যাণের জন্য কাজ করে যাবো। শিল্পীদের কেউ যেন দুস্থ না থাকে। সেদিকটা জোর দিয়ে খেয়াল রাখবো। অভিনয়ের সঙ্গে দীর্ঘদিনের পথচলা। এর মধ্যে অর্জন করেছেন অনেক অভিজ্ঞতা। সে আলোকে বর্তমান সময়ের নাটক নিয়ে তুষ্টি বলেন, আসলে নাটকের মান নিয়ে কথা বলার জন্য অনেক অভিজ্ঞ মানুষ আছেন। তারা আমার চেয়ে ভালো বলতে পারবেন। আমি না হয় এ বিষয়ে কথা না বলি। তবে এটা ঠিক যে অতিমাত্রায় বিজ্ঞাপনের কারণে দর্শক বিদেশী চ্যানেলে ঝুঁকছেন। সে সঙ্গে নাটকের মানও খারাপের দিকে যাচ্ছে। আমার কাছে এ জন্য বাজেট একটা সমস্যা বলে মনে হয়। তবে আমাদের নাটকের হারানো ঐতিহ্য ফিরে আসবে এমনটাই বিশ্বাস আমার। অভিনয়ের পাশপাশি শিক্ষকতা করছেন তুষ্টি। রাজধানীর বিএএফ শাহীন স্কুলে অনেকদিন ধরেই এ পেশায় সম্পৃক্ত রয়েছেন তিনি। পাশপাশি দেশের কল্যাণে, দেশের মানুষের পাশে দাঁড়াতে নাম লিখিয়েছেন রাজনীতিতেও। ২০১৫ সালে ‘ইয়াং অ্যাকটিভ’ নামের একটি রাজনৈতিক দলের কাজ শুরু করেছেন তুষ্টি। এ প্রসঙ্গে তিনি বলেন, অভিনয় কিংবা শিক্ষকতা আমার নিজের পরিচয় বহন করে। সেখানে আমি নিজের সম্মানবোধ খুঁজে পাই। দর্শক আমার অভিনয় দেখে আমাকে ভালোবাসেন। একইভাবে আমার শিক্ষার্থী এবং অভিভাবকরা আমাকে আমার কাজের জন্য যথেষ্ট সম্মান করেন। এ সম্মান এবং ভালোবাসার জায়গাটার ব্যাপ্তি আরও বাড়াতে, দেশের মানুষের পাশে দাঁড়াতে আমি রাজনীতিতে নিজেকে সম্পৃক্ত করেছি। আর আমি একজন মুক্তিযোদ্ধার সন্তান। সে জায়গা থেকেও আমার দেশের প্রতি, দেশের মানুষের প্রতি কিছু দায়িত্ব রয়েছে। আশা করি শুভাকাঙ্খীরা আমার পাশে থাকবেন, আমাকে সহযোগিতা করবেন। ইয়াং অ্যাকটিভ দলটি নিয়ে যেন আমি এগিয়ে যেতে পারি সেজন্য সবাই দোয়া করবেন। রাজনীতির পাশাপাশি গেল বছরে ‘মানুষ ফাউন্ডেশন’ নামের একটি সংগঠন চালু করেছেন তুষ্টি। বিশেষ করে সুবিধাবঞ্চিত শিশুদের জন্যই এই সংগঠনের হয়ে কাজ করছেন তিনি। তুষ্টি শুধু এখানে একা নন। তার সঙ্গে রয়েছে একদল তরুণ-তরুণী। নাটকে অভিনয়ের পাশপাশি চলচ্চিত্রেও কাজের অভিজ্ঞতা রয়েছে তুষ্টির। দুই বছর আগে রুহুল আমিনের পরিচালনায় ‘হাছন রাজা’ নামের একটি চলচ্চিত্রের কাজ শেষ করেছেন তিনি। এর মধ্যে অনেক সময়ই পার হয়ে গেছে। কিন্তু ছবিটি মুক্তির মিছিলে যোগ দেয়নি। অবশ্য তুষ্টি সম্প্রতি জানতে পেরেছেন সব ঠিক থাকলে এ বছরই প্রেক্ষাগৃহে দেখা মিলবে ‘হাছন রাজা’র। এ প্রসঙ্গে তিনি বলেন, আসলে এতদিন মিঠুন দা (মিঠুন চক্রবর্তী)’র জন্য অপেক্ষা করেছিলাম। তার ডাবিং বাকি ছিল। যে কারণে সব কাজ শেষ হওয়া স্বত্ত্বেও আটকে ছিল। এখন মিঠুন দার কাজও সম্পন্ন হয়েছে। আশা করছি এ বছরই মুক্তির মিছিলে যোগ দেবে ছবিটি।  


 

এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

আপনার মতামত দিন

খেলার মাঠে দেয়াল ধসে দর্শক যুবকের মৃত্যু

‘বিচার বিভাগের স্বাধীনতার মৃত্যু ঘটেছে’

কুমারিত্বের দাম ৩ মিলিয়ন ডলার!

ছাত্রদল সাধারণ সম্পাদক আকরাম ৮ দিনের রিমান্ডে

১৫৪ টার্গেট গেইল-ম্যাককালামের

বাড়ি ফিরেছেন নিখোঁজ ব্যবসায়ী অনিরুদ্ধ রায়

শিক্ষার্থীদের মাথা ন্যাড়ার শর্তে এসএসসি’র ফরম পূরণ!

একটি অংশগ্রহণমূলক নির্বাচন গুরুত্বপূর্ণ

রাবি অপহৃত ছাত্রী ঢাকায় উদ্ধার

‘সমাবেশে জোর করে লোক আনা হয়েছে’

সমাবেশ মঞ্চে শেখ হাসিনা

যুদ্ধাপরাধের ২৯তম রায়ের আপেক্ষা

সিরিয়া ইস্যুতে আবারো রাশিয়ার ভেটো

হারিরির সৌদি আরব ত্যাগ

ইরাক ও ইসরায়েল সুন্দরী একসঙ্গে সেলফি তুলে বিপাকে

‘বিএনপিকে দূরে রেখে নির্বাচনের ষড়যন্ত্র করা হচ্ছে’