বোলাররাই নেপথ্য নায়ক

খেলা

স্পোর্টস রিপোর্টার | ২০ মার্চ ২০১৭, সোমবার | সর্বশেষ আপডেট: ১১:০৮
২০০১ সাল থেকে বাংলাদেশ ও শ্রীলঙ্কা খেলেছে ১৮টি টেস্ট ম্যাচ। কিন্তু এবারই প্রথম টাইগারদের বিপক্ষে দুই ইনিংসে অলআউট হলো লঙ্কানরা। গতকাল পি সারা ওভালে কলম্বো টেস্টের শেষ দিন দ্বিতীয় ইনিংসে ৩১৯ রানে গুটিয়ে যায় হেরাথের দল। প্রথম ইনিংসে তারা সব উইকেট হারিয়েছিল ৩৩৮ রানে। মুশফিকুর রহীম বাহিনীর বিপক্ষে এটি তাদের সর্বনিম্ন রানে দুই ইনিংস গুটিয়ে যাওয়ার রেকর্ড। এর আগে আরো ৮ ম্যাচে লঙ্কানদের ১ বার করে অলআউট করতে পেরেছিল  বোলাররা। শততম টেস্টে এটি দলের আরো একটি সফলতা, যা এসেছে বোলারদের হাত ধরেই। টসে জিতে ব্যাট করতে নেমে বিপদেই পড়ে লঙ্কান ব্যাটসম্যানরা। এক দিকে দুই পেসার মোস্তাফিজুর রহমান ও শুভাশিষ রায়দের নিয়ন্ত্রিত বোলিং, অন্যদিকে সাকিব আল হাসান ও তরুণ মেহেদী হাসান মিরাজের ঘূর্ণী। এর মাঝেও কিছুটা প্রতিরোধ গড়ে চান্ডিমাল সেঞ্চুরিও তুলে নেন। কিন্তু দুই পেসার ৪টি ও দুই স্পিনার ৬টি উইকেট নিয়ে ম্যাচের লাগাম নিজেদের হাতে নেয়। এরপর ১২৯ রানে পিছিয়েও আরো বিপদে পড়ে লঙ্কানরা। কিন্তু গলার কাটা হয়ে থাকে করুনারত্নে। তবে অন্যপাশে মোস্তাফিজ, মিরাজ ও সাকিবরা ফের একের পর এক উইকেট নিয়ে জয়ের ভিত গড়তে থাকে। করুনারত্নে ১২৬ রানে আউট হলেও ৯ম উইকেটে পেরেরা লাকমলের ৮০ রানের জুটি বাংলাদেশের স্বপ্নের রং ফিকে করে দিচ্ছিল।  শেষ পর্যন্ত সব বাধা উড়িয়ে শ্রীলঙ্কাকে টেস্টে সর্বনিম্ন রানে অল আউট করে বোলাররা। সাকিব দুই ইনিংসে নেন ৬ উইকেট, মিরাজ ৪টি, মোস্তাফিজ ৫টি, তাইজুল ও শুভাশিষ নেন ২টি করে উইকেট। মূলত বোলারদের গড়ে দেয়া ভিতে ব্যাটসম্যানরা তুলে নেন ঐতিহাসিক জয়।  
আগের ৯৯ টেস্টে মাত্র ৩ দলকে ম্যাচের দুই ইনিংসে অলআউট করতে পেরেছিল টাইগাররা। এরমধ্যে ইংল্যান্ড, ওয়েস্ট ইন্ডিজ ২ বার ও জিম্বাবুয়েকে ৫ বার অলআউট করতে পেরেছে বাংলাদেশের বোলাররা। টেস্টে বাংলাদেশের বোলারদের ২০ উইকেট নেয়ার ক্ষমতা নিয়ে বেশ প্রশ্ন ছিল। গল টেস্ট শেষে সমালোচনা কম হয়নি। অবশ্য মোস্তাফিজুর রহমান, মেহেদী হাসান মিরাজদের প্রতিভাবান তরুণদের সঙ্গে সাকিব আল হাসান তাইজুল ইসলামদের অভিজ্ঞতা মিলে ধীরে ধীরে সেই প্রশ্নের জবাব দিতে শুরু করেছে টাইগার বোলাররা।
২০০০ সালে ভারতের বিপক্ষে টেস্ট অভিষেক হয় বাংলাদেশ দলের। দলটির বিপক্ষে এ পর্যন্ত ৯ টেস্টে মাত্র ৪ বার ম্যাচের একটি ইনিংসে অলআউট করতে সক্ষম হয় বাংলাদেশ। এছাড়াও ইংল্যান্ডকে ১০ ম্যাচে ৭ বার, নিউজিল্যান্ডকে ১৩ ম্যাচে ৮ বার, পাকিস্তানকে ১০ ম্যাচে ৫ বার, জিম্বাবুয়েকে ১৪ ম্যাচে ১১ বার, দক্ষিণ আফ্রিকাকে ১০ ম্যাচে ৩ বার ও অস্ট্রেলিয়াকে ৩ ম্যাচে মাত্র ১ বারই অলআউট করতে পেরেছে টাইগাররা। গতকালের কলম্বো টেস্টসহ শ্রীলঙ্কা দেশের মাটিতে বাংলাদেশের বিপক্ষে সব উইকেট হারায় মাত্র ৪ বার। লঙ্কানরা এবার বাংলাদেশের বিপক্ষে মাত্র ১৯১ রানের লক্ষ্য ছুড়ে দেয়।
এটি তাদের বাংলাদেশের বিপক্ষে ছুড়ে দেয়া সর্বনিম্ন রানের লক্ষ্য। এর আগে ২০১৩ সালে গল টেস্টে তাদের ছুড়ে দেয়া লক্ষ্য ছিল ২৬৮ রানের। সেই ম্যাচে টাইগাররা ড্র করেছিল। শুধু তাই নয়, এটি বাংলাদেশের ১০০ টেস্টের ইতিহাসে ম্যাচ জয়ের জন্য দ্বিতীয় সর্বনিম্ন রানের লক্ষ্যও। এর আগে ২০১৪ সালে জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে ১০১ রানের লক্ষ্য তাড়া করে জয় তুলে নিয়েছিল বাংলাদেশ। টেস্টে ২০০ রানের উপর লক্ষ্য তাড়া করে একবারই টাইগারদের জয়ের রেকর্ড আছে ২০০৯ সালে ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে।
বাংলাদেশের বিপক্ষে টেস্টে অলআউট
দল    ম্যাচ    অল আউট    জয়     হার     ড্র          সাল
শ্রীলঙ্কা    ১৮    ৯    ৭    ০    ১    ২০০১-২০১৭
ইংল্যান্ড    ১০    ৭    ৬    ১    ০    ২০০৩-২০১৭
নিউজিল্যান্ড    ১৩    ৮    ৬    ০    ২    ২০০১-২০১৬
ওয়েস্ট ইন্ডিজ    ১২    ৯    ৫    ২    ২    ২০০২-২০১৪
ভারত    ৯    ৪    ৪    ০    ০    ২০০০-২০১৭
পাকিস্তান    ১০    ৫    ৪    ০    ১    ২০০১-২০১৫
জিম্বাবুয়ে    ১৪    ১১    ৪    ৫    ২    ২০০১-২০১৪
দক্ষিণ আফ্রিকা    ১০    ৩    ০    ০    ১    ২০০২-২০১৫
অস্ট্রেলিয়া    ৪    ১    ০    ০    ০    ২০০৩-২০০৬


 

এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

আপনার মতামত দিন

যুদ্ধ নয় আলোচনায় সমাধান

সিইসি’র বক্তব্য কৌশল হতে পারে

আড়াই ঘণ্টা আলোচনার পর হঠাৎ সংলাপ বয়কট

বর্মী সেনা কর্মকর্তাদের ওপর ইইউ’র নিষেধাজ্ঞা

বাংলাদেশ পরিস্থিতির দিকে নজর রাখছে দিল্লি

কাল ফিরছেন খালেদা ব্যাপক শোডাউনের প্রস্তুতি

সিলেটে সেক্রেটারি গ্রুপের হাতে ছাত্রলীগ কর্মী নিহত

চট্টগ্রাম ও গাজীপুরের দুই শিক্ষার্থী ফাঁদে

‘আসিয়ানে চাপ বাড়ালেই রোহিঙ্গাদের ফেরানো সম্ভব’

এক দিনেই ঢুকলো ২০ হাজার রোহিঙ্গা

ডাকসু’র খোঁজ নিলেন প্রেসিডেন্ট

হেয়ার রোডে ১২ দিন

রাশিয়ায় আইপিইউ সম্মেলনে এমার্জেন্সি আইটেম রোহিঙ্গা ইস্যু

রাধিকাপুর চেকপোস্ট সাময়িক বন্ধ

হাত কেটে তিমি আঁকার 'ভিডিও উদ্ধার'

ঢাকনাযুক্ত যানে রাতের বেলায় বর্জ্য অপসারণের নির্দেশ