ফিক্সিং ‘ভুল’ নয় ‘অপরাধ’

খেলা

স্পোর্টস ডেস্ক | ২০ মার্চ ২০১৭, সোমবার
ম্যাচ কিংবা স্পট ফিক্সিংকে ‘ভুল’ বলতে রাজি নন মোহাম্মদ হাফিজ। পাকিস্তানের এ উদ্বোধনী ব্যাটসম্যান এটাকে ‘অপরাধ’ বলে অভিহিত করলেন। এ কারণে ফিঙিংয়ে জড়িয়ে পড়লে যেকোনো অপরাধের মতো তার কঠোর শাস্তির পক্ষে তিনি। ক্রিকেটে ফিঙিং নিয়ে সবচেয়ে আলোচিত পাকিস্তান। একের পর একে এ কলঙ্ক তাদের পেছনে লেগেই থাকে। সর্বশেষ পাকিস্তান সুপার লীগের (পিএসএল) দ্বিতীয় আসর শুরু হওয়ার পর ফের সামনে আসে ফিঙিং।
আসরের প্রথম ম্যাচের পরই বেশ কয়েকজন খেলোয়াড়ের বিরুদ্ধে জুয়াড়িদের সঙ্গে যোগযোগের অভিযোগ ওঠে। এতে তখনই আরব আমিরাত থেকে শারজিল খান ও খালিদ লতিফকে পাকিস্তানে পাঠিয়ে দেয়া হয়। তাদের সাময়িক নিষিদ্ধ করা হয়। এরপর একই অভিযোগে অনির্দিষ্টকালের জন্য নিষিদ্ধ করা হয় নাসির জামশেদ ও মোহাম্মদ ইরফানকে। আর সর্বশেষ পঞ্চম খেলোয়াড় হিসেবে শাহজাইব হাসানের নাম এই তালিকায় যুক্ত হলো। স্পট ফিঙিংয়ে জড়িয়ে পড়া খেলোয়াড়দের কঠোর শাস্তির বিষয়ে আগের দিন মুখ খোলেন পাকিস্তানের সাবেক খেলোয়াড় জাভেদ মিয়াদাঁদ। তিনি অপরাধ প্রমাণিত হওয়া খেলোয়াড়দের ‘মৃত্যুদণ্ড’ চাইলেন। আর এবার এ বিষয়ে মুখ খুললেন জাতীয় দলের তারকা খেলোয়াড় মোহাম্মদ হাফিজ। তিনি ফিঙিংকে ‘অপরাধ’ হিসেবে উল্লেখ করে বলেন, ‘যে-ই পাকিস্তানের হয়ে খেলুক, তার দায়িত্ব হলো ব্যক্তিগতভাবে দেশের ভাবমূর্তি সমুন্নত করা। স্পট ফিঙিং নিয়ে কেউ কেউ আমাকে বলেন যে, এটা ভুল। আমি এটাকে মোটেও ভুল মনে করি না। এটা মিথ্যা কথা। বরং ফিঙিং একটি অপরাধ।’ স্পট ফিঙিংয়ের দায়ে নিষিদ্ধ হওয়া মোহাম্মদ আমির ইতিমধ্যে মেয়াদ কাটিয়ে পাকিস্তানের জাতীয় দলে ফিরেছেন। এছাড়া সালমান ও মোহাম্মদ আসিফেরও জাতীয় দলে ফেরার সম্ভাবনা আছে বলে অনেকে মনে করছেন। আমির জাতীয় দলে ফেরার পর বিরোধিতা করেন মোহাম্মদ হাফিজ। তবে এরপর আমিরের সঙ্গে এখনো নিয়মিত খেলে চলেছেন তিনি। তবে নিজের অবস্থান থেকে সরে আসেননি বলে জানালেন হাফিজ। বলেন, ‘প্রত্যেকের ব্যক্তিগত মতামত ও পছন্দ থাকতে পারে। আমি এখনো আমার মনোভাব পাল্টাইনি। ফিঙিংয়ের বিরুদ্ধে সবসময় আমার অবস্থার স্পষ্ট।’ তিনি আরো বলেন, ‘ফিঙিংয়ে জড়িত থাকার বিষয়টি প্রমাণিত হলে কঠোর শাস্তি হওয়া দরকার। এমন শাস্তি যাতে ভবিষ্যতে আর কেউ ওই অপরাধ করতে সাহস না পান।’     

এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

আপনার মতামত দিন

‘অনুপ্রবেশকারীদের ৫০০০ পাওয়ারের বাতি জ্বালিয়েও খুঁজে পাওয়া যাবে না’

‘ক্ষমতা থাকলে সরকারকে টেনে-হিচড়ে নামান’

আগামীকাল আদালতে যাবেন খালেদা জিয়া

‘তদন্তের স্বার্থেই তনুর পরিবারকে ডাকা হয়েছে’

জিম্বাবুয়ের নতুন প্রেসিডেন্ট হচ্ছেন ‘কুমির মানুষ’

আশ্রয়শিবিরে সংক্রমণযুক্ত পানির বিষয়ে ইউনিসেফের সতর্কতা

চীন, উত্তর কোরিয়ার ১৩ প্রতিষ্ঠানের বিরুদ্ধে যুক্তরাষ্ট্রের অবরোধ

রোহিঙ্গা সঙ্কট: উচ্চ আশা নিয়ে বাংলাদেশ-মিয়ানমার বৈঠক শুরু

ঘোড়ামারা আজিজসহ ছয় জনের মৃত্যুদণ্ড

নিবিড় পর্যবেক্ষণে মহিউদ্দিন চৌধুরী

হাফ ডজন গোলে দ্বিতীয় রাউন্ডে রিয়াল মাদ্রিদ

আফ্রিকার স্বৈরাচারদের মেরুদণ্ডে শিহরণ

সাভার আর মানিকগঞ্জে মাটির নিচে পানির 'খনি'

বরুশিয়ার আশা শেষ করলো টটেনহ্যাম

রোহিঙ্গা সংকট সমাধানে চীনের প্রস্তাব, যা বললেন মুখপাত্র...

দুদকের মামলা থেকে অব্যাহতি পেলেন মেয়র সাক্কু