গোবিন্দগঞ্জে সড়ক দুর্ঘটনায় শিশুসহ নিহত ৬

বাংলারজমিন

উত্তরাঞ্চল প্রতিনিধি | ২০ মার্চ ২০১৭, সোমবার
গোবিন্দগঞ্জ উপজেলার বালুয়াহাট এলাকায় ঢাকা-রংপুর মহাসড়কে গতকাল ভোর রাত সাড়ে ৩টায় পঞ্চগড় থেকে আগত পাথরবাহী ট্রাকের সঙ্গে ধাক্কা লেগে ঢাকা থেকে নীলফামারিগামী একটি  নৈশকোচ খাদে পড়ে গিয়ে শিশুসহ ৬ জন নিহত ও ১৩ জন আহত হয়। নিহতদের মধ্যে ৪ জনের পরিচয় পাওয়া গেছে তারা হলেন- নীলফামারীর জলঢাকার ধর্মপাল গ্রামের আবদুল ওহাব মণ্ডল (২৬), দিনাজপুরের খানসামা উপজেলার আশরাফুল ইসলাম (২৬), গাইবান্ধা সদর উপজেলার বল্লমঝাড় গ্রামের শাপলা বেগম (২৮) ও তার ৬ বছরের শিশু পুত্র আবদুল আলিম। আহতদের উদ্ধার করে গোবিন্দগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স ও বগুড়া শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালসহ বিভিন্ন ক্লিনিকে ভর্তি করা হয়। আহতরা সঙ্গে সঙ্গেই বগুড়াসহ তাদের নিজ নিজ এলাকায় চলে যাওয়ার ফলে তাদের কোনো নাম পরিচয় জানা যায়নি। গোবিন্দগঞ্জ হাইওয়ে থানার ওসি মো. আবুল বাশার জানান, ঢাকা থেকে ছেড়ে আসা নীলফামারীর সৈয়দপুরগামী ‘শাকিল পরিবহন’ নামের একটি নৈশকোচ ওই এলাকায় পৌঁছলে বিপরীতমুখী একটি পাথরবোঝাই ট্রাকের সঙ্গে সজোরে ধাক্কা লাগে। এতে কোচটি উল্টে গিয়ে মহাসড়কের পাশে খাদে পড়ে যায়। তিনি আরো জানান, দুর্ঘটনার পর খবর পেয়ে হাইওয়ে টহল পুলিশ গোবিন্দগঞ্জ ফায়ার সার্ভিস কর্মীদের সহায়তায় আহতদের উদ্ধার করে গোবিন্দগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স ও বগুড়া শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালসহ বিভিন্ন ক্লিনিকে ভর্তি করা হয়।
 নিহতদের লাশ উদ্ধার করে গোবিন্দগঞ্জ থানায় নেয়া হয়েছে। স্থানীয় ফায়ার সার্ভিস কর্মীদের সহায়তায় দুর্ঘটনা কবলিত বাসটি উদ্ধার করা হয়েছে।
গোবিন্দগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো. আবদুল হান্নান জানান, সড়ক দুর্ঘটনায় নিহতের পরিবারকে ১০ হাজার ও আহতদের প্রত্যেককে ৫ হাজার টাকা আর্থিক অনুদান প্রদান করা হবে।

 
এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

আপনার মতামত দিন