পরিবহন ধর্মঘটে অচল ইবি

শিক্ষাঙ্গন

ইবি প্রতিনিধি | ২৬ ফেব্রুয়ারি ২০১৭, রবিবার
খুলনা বিভাগের ১০ জেলায় পরিবহন ধর্মঘটে অচল হয়ে পড়েছে ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়। রোববার ভোর ৬টা থেকে শুরু হওয়া এ ধর্মঘটে ক্যাম্পাসের কোন গাড়ি চলাচল করতে পারেনি। ধর্মঘটে বিশ্ববিদ্যালয়ের কোন শিক্ষক-শিক্ষার্থী, কর্মকর্তা-কর্মচারী ক্যাম্পাসে না আসায় কার্যত অচল ছিল ইবি।

সরেজমিনে দেখা যায়, রোববার বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রশাসন ভবনসহ সকল অনুষদের ক্লাস ও অফিস রুম তালা বদ্ধ ছিল। এতে কোন বিভাগেই কোন ক্লাস-পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়নি। পরিবহন নির্ভর বিশ্ববিদ্যালয় হওয়ায় কুষ্টিয়া-ঝিনাইদহ হতে কোন শিক্ষক-শিক্ষার্থী ক্যাম্পাসে আসতে পারেননি। আসেননি কোন কর্মকর্তা-কর্মচারীও।
এদিন শুধুমাত্র ইবি শাখা অগ্রনী ব্যাংকের অফিস খোলা ছিল। তাও ছিল জনমানব শূণ্য। বাইরের ঘটনায় বিশ্ববিদ্যালয় বন্ধ থাকায় ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন অধিকাংশ শিক্ষক-শিক্ষার্র্থী।

অনার্স শেষবর্ষের ছাত্র আল-আমিন বলেন, পূর্নাঙ্গ আবাসিক হওয়ার কথা থাকলেও ছাত্রজীবনের শেষেও হলে সিট পাইনি। সম্পূর্ন আবাসিক হলে ক্যাম্পাসের বাইরের ঘটনা নিয়ে অযথা বিশ্ববিদ্যালয় অচল হয়ে থাকতো না। পরিবহনের ওপর নির্ভরতা কমালেই বিশ্ববিদ্যালয় তার আপন গতিতে চলবে।

উল্লেখ্য, গত বুধবার মিশুক মনির ও তারেক মাসুদের সড়ক দুর্ঘটানার রায় ঘোষণা কওে মানিকগঞ্জ আদালত। এত চুয়াডাঙ্গা ডিলাক্স পরিবহনের চালক জামির হোসেনকে যাবজ্জীবন কারাদন্ড দেয় আদালত। রায়ের প্রতিবাদে বিভাগীয় সড়ক পরিবহন ফেডারেশন শনিবার এক সভা থেকে এ অনির্দিষ্ট দিনের পরিবহন ধর্মঘটের ডাক দেয়।

এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

আপনার মতামত দিন