দরজা ঠেলে ঘরে ঢুকে মা দেখলেন ছেলে কাঁচা মাংস খাচ্ছে, মানুষের!

রকমারি

| ২৪ ফেব্রুয়ারি ২০১৭, শুক্রবার | সর্বশেষ আপডেট: ২:৩৭
বছর কুড়ির ছেলেকে খুঁজতে বেরিয়েছিলেন মা। প্রতিবেশীদের জিজ্ঞাসা করে খোঁজ না খেলার মাঠের ধারের একটি পরিত্যক্ত বাড়িতে খুঁজতে গিয়ে প্রায় জ্ঞান হারানোর মতো অবস্থা হয় মহিলার। দেখেন, ছেলে নাজিম ৭ বছরের একটি শিশুর দেহ টুকরো-টুকরো করে কেটে তার মাংস খাচ্ছে। দেরি না করে তত্ক্ষেণাত্‍ স্থানীয় লোকজনদের ডেকে পুলিশে খবর দেন। তবে খবর আগুনের মতো ছড়িয়ে পড়ে। স্থানীয়রা একজোট হয়ে নাজিমকে মারতে উদ্যত হয়। এর মধ্যেই পুলিশ পৌঁছে গ্রেপ্তার করে তাকে। তবে গ্রেপ্তারির পরেও থানার বাইরে জমায়েত করে স্থানীয়রা দাবি জানান, নাজিমকে তাঁদের হাতে তুলে দিতে হবে। গত বুধবার ঘটনাটি ঘটে উত্তরপ্রদেশের আমারিয়া-য়। পুলিশ জানিয়েছে, মহম্মদ মোনিস নামের ওই শিশুটি অন্যান্য বাচ্চাদের সঙ্গে মাঠে খেলছিল। চকোলেট দেওয়ার নাম করে তাকে নাজিম ডেকে নিয়ে যায়। মাঠের পাশের পরিত্যক্ত বাড়িতে নিয়ে গিয়ে তাকে প্রথমে খুন করে। তার পর দেহ টুকরো-টুকরো করে কেটে ফেলে। স্থানীয়দের সঙ্গে কথা বলে জানা গিয়েছে, নাজিম ড্রাগের নেশা করে। তবে তার এই রূপ এর আগে অজানাই ছিল। বৃহস্পতিবার আদালতে তোলা হলে বিচারক তাকে পুলিশি হেফাজতের নির্দেশ দেন। তার বিরুদ্ধে খুন, অপহরণ-সহ একাধিক ধারায় মামলা রুজু করা হয়েছে। আরও একটি ব্যাপার জানিয়েছে পুলিশ। জেরার মুখে এখনও পর্যন্ত একটিও কথা নাজিমের মুখ থেকে বার করা যায়নি। সে বরাবর চুপ করেই থেকেছে। এত ক্ষণ কেউ কোনও কথা না বলে থাকতে পারে তা নাজিমকে না দেখলে বিশ্বাস করা কঠিন হতো।

সুত্রঃ এই সময়
এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

আপনার মতামত দিন