৪৫০০ পৌর কাউন্সিলর মাসিক ভাতা নিয়ে হতাশায়

প্রথম পাতা

দীন ইসলাম | ১৭ ফেব্রুয়ারি ২০১৭, শুক্রবার
মাসিক ভাতা নিয়ে হতাশায় আছেন দেশের সাড়ে চার হাজার পৌর কাউন্সিলর। বিভিন্ন পর্যায়ের জনপ্রতিনিধিদের ভাতা বাড়লেও কাউন্সিলরদের ভাতা বৃদ্ধিতে নজর না দেয়ায় তাদের হতাশা দিন দিন বাড়ছে। ভাতা বাড়ানোসহ আট দফা দাবি আন্দোলন শুরু করছেন ‘বাংলাদেশ পৌর কাউন্সিলর এসোসিয়েশন’। সর্বশেষ গত ৭ই ফেব্রুয়ারি প্রেস ক্লাবে সংগঠনের মানববন্ধন কর্মসূচি অনুষ্ঠিত হয়। মানববন্ধনে ক শ্রেণির কাউন্সিলরদের সম্মানী ভাতা ২৫ হাজার টাকা, খ শ্রেণির কাউন্সিলরদের মাসিক ভাতা ২০ হাজার টাকা এবং গ শ্রেণির কাউন্সিলরদের ভাতা ১৫ হাজার টাকা নির্ধারণের দাবি জানান এসোসিয়েশনের নেতারা। এছাড়া আরো সাতটি দাবি জানান তারা। আন্দোলন সম্পর্কে জানতে চাইলে ‘বাংলাদেশ পৌর কাউন্সিলর এসোসিয়েশন’-এর সাধারণ সম্পাদক ও ঝিনাইদহ পৌরসভার কাউন্সিলর মো. সাইফুল ইসলাম মধু মুঠোফোনে মানবজমিনকে বলেন, কাউন্সিলরদের ভাতা বাড়ানোসহ আট দফা দাবিতে আমাদের আন্দোলন চলছে। আমাদের দাবি না মানলে আগামী ৮ই মার্চ পৌরসভা বয়কট করা হবে। এরপরও দাবি না মানলে আইনি লড়াইয়ে নামবো আমরা। সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে, পৌরসভার কাউন্সিলররা তাদের সম্মানজনক পদমর্যাদা চান। এছাড়া পৌর পরিষদের সিদ্ধান্ত ছাড়া দেশি-বিদেশি প্রকল্প, কর্মচারী নিয়োগ, টেন্ডার আহ্বান, হাট-বাজার ও খাজনা আদায় করা যাবে না- এমন বিধান চালু করতে হবে। একই সঙ্গে পৌরসভার টেন্ডারে কমিটির সভাপতি হিসেবে কাউন্সিলরদের নিয়োগ করারও দাবি তাদের। ৭ই ফেব্রুয়ারি মানববন্ধনে এসোসিয়েশনের নেতারা বলেন, পৌরসভার নির্বাচন পদ্ধতি পরিবর্তন করতে হবে। এছাড়া, পৌরসভার কাউন্সিলরদের জাতীয়ভাবে পরিচয়পত্র দেয়ার ব্যবস্থা করতে হবে। পাশাপাশি কাউন্সিলরদের দেশে-বিদেশে প্রশিক্ষণের ব্যবস্থা করতে হবে। এসোসিয়েশন সূত্রে জানা গেছে, গত ১৫ই জানুয়ারি ঢাকার আগারগাঁওস্থ স্থানীয় সরকার ইনস্টিটিউটের হোস্টেল ভবনের কনফারেন্স রুমে পৌরসভা কাউন্সিলর এসোসিয়েশনের উদ্যোগে একটি সভা অনুষ্ঠিত হয়। ওই সভায় সংগঠনের কেন্দ্রীয় সভাপতি ও ভৈরব পৌরসভার কাউন্সিলর মো. আকতারুজ্জামান এবং সাধারণ সম্পাদক ও ঝিনাইদহ পৌরসভার কাউন্সিলর মো. সাইফুল ইসলাম মধু নেতৃত্ব দেন। তাদের বৈঠকের পর ৩০শে জানুয়ারি সারা দেশের জেলা সদরে সংগঠনটি মানববন্ধন ও ডিসিদের মাধ্যমে প্রধানমন্ত্রীর কাছে স্মারকলিপি পাঠায়। স্মারকলিপিতে সংগঠনের নেতারা বলেন, সম্প্রতি সরকার স্থানীয় সরকারের বিভিন্ন পর্যায়ের জনপ্রতিনিধিদের সম্মানী ভাতা উল্লেখযোগ্য হারে বাড়ালেও পৌরসভার কাউন্সিলরদের সম্মানী ভাতা তুলনামূলকভাবে কম বেড়েছে। ফলে তাদের সম্মানহানি হয়েছে। তারা বৈষম্যের শিকার হয়েছে। এদিকে পৌর কাউন্সিলরদের এ আন্দোলনের কথা স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়কে বিশেষ প্রতিবেদনের মাধ্যমে জানিয়েছে দেশের শীর্ষ এক গোয়েন্দা সংস্থা। প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, সারা দেশে পৌরসভার কাউন্সিলরদের আন্দোলনের কারণে সাধারণ জনগণ সেবা পেতে বিড়ম্বনায় পড়ছে। এতে সরকার তথা আওয়ামী লীগের ভাবমূর্তি ক্ষুণ্ন হওয়ার আশঙ্কা রয়েছে। সারা দেশে বিএনপি-জামায়াত মতাদর্শের অনেক কাউন্সিলর থাকায় তারা আন্দোলনটিকে ভিন্নখাতে নেয়ার সুযোগ বা চেষ্টা করতে পারে। প্রতিবেদনে সুপারিশে বলা হয়েছে, পৌরসভা কাউন্সিল এসোসিয়েশনের সঙ্গে আলোচনার মাধ্যমে এসব সমস্যা সমাধানের জন্য স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয়কে নির্দেশনা দেয়া যায়। দুয়েক দিনের মধ্যে এ প্রতিবেদনের কপি স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয়ে পাঠাতে যাচ্ছে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়।          
এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

আপনার মতামত দিন

সাংবাদিক শিমুল হত্যা: পলাতক ৯ আসামীর আত্মসমর্পণ

এমপি এনামুল হকের বিরুদ্ধে জেএমবিকে মদতসহ বিস্তর অভিযোগ

নিহত জঙ্গি আব্দুল্লাহ’র স্ত্রী গ্রেপ্তার

​৩০ কোটি টাকা আত্মসাতের অভিযোগে ব্যবসায়ী গ্রেপ্তার

নিহত কিশোরের লাশ উদ্ধার

জেএমবির তিন সদস্যের ১৪ বছর কারাদণ্ড

শচীন যা পরেননি পৃথ্বি তা-ই পারলেন

টেকনাফে ৫ কোটি ৭০লক্ষ টাকার ইয়াবা উদ্ধার

‘নিজ অবস্থান থেকে আইন মানলে দুর্নীতি নিয়ন্ত্রণে আসবে’

চাল আমদানি করছেন না ব্যবসায়ীরা

তারেকের গ্রেপ্তার সংক্রান্ত প্রতিবেদন ৩১শে ডিসেম্বর

প্লেবয় মডেল হারতে’র ‘মজা’

ইরাকে আগ্রাসনের হুমকি এরদোগানের

এতিম রোহিঙ্গা শিশুদের জন্য আলাদা ব্যবস্থা করা হচ্ছে

মাঝারী ধরনের ভারী বর্ষণের আশঙ্কা

বিস্ময়কর উত্থান ঘটলেও জার্মানিতে এএফডি’র নেতা কে!