চট্টগ্রামে আত্মহত্যা বেড়েছে

শেষের পাতা

মহিউদ্দীন জুয়েল, চট্টগ্রাম থেকে | ১৭ ফেব্রুয়ারি ২০১৭, শুক্রবার
চট্টগ্রামে একের পর এক আত্মহত্যার ঘটনা ঘটছে। যার বেশির ভাগই প্রেমঘটিত কিংবা পারিবারিক কলহের জের ধরে। সর্বশেষ গত ৬ মাসে নগরী ও তার আশপাশের এলাকায় ২০টি আত্মহত্যার ঘটনা ঘটেছে। যার মধ্যে নারী পুলিশ সদস্যও রয়েছে। সর্বশেষ চট্টগ্রামে স্ত্রীর সঙ্গে ঝগড়া করে আত্মহত্যা করেছেন লিটন বণিক নামের আরো এক ব্যবসায়ী। গতকাল সকালে হাটহাজারীর জোবরা গ্রামের নিজ বাড়ি থেকে তার লাশ উদ্ধার করে পুলিশ। নিহত লিটন লোহাগাড়া উপজেলার বড়হাতিয়া এলাকার বণিকপাড়ার মৃত মনসা বণিক ও রাণী বণিকের ছেলে। তিনি ঠিকাদারি ব্যবসার সঙ্গে যুক্ত ছিলেন। ফ্যানের সঙ্গে তাকে ঝুলানো অবস্থায় দেখতে পেয়ে প্রতিবেশীরা পুলিশকে খবর দেয়।
সূত্র জানায়, বেশ কিছুদিন ধরে স্ত্রীর সঙ্গে লিটনের কলহ চলছিল। বুধবার রাত আড়াইটায় লিটন বাসায় ফিরেন। এরপর তিনি ফ্যানের সঙ্গে ঝুলে আত্মহত্যা করেন। গতকাল সকাল ৭টায় তার কোনো  সাড়া শব্দ না পেয়ে প্রতিবেশীরা উঁকি দিয়ে দেখেন তার লাশ ঝুলছে। পরে মরদেহ উদ্ধার করে চমেক হাসপাতালে ময়নাতদন্তের জন্য পাঠানো হয়। এই ঘটনায় থানায় একটি অপমৃত্যু মামলা হয়েছে।
হাটহাজারী থানার এসআই আবু বক্কর সিদ্দিক বলেন, যতটুক জানি স্ত্রী ছাড়াও তার দুই সন্তান রয়েছে। পারিবারিক কলহের জের ধরে তিনি আত্মহত্যা করেছেন।
নগর পুলিশের একটি সূত্র জানায়, গত ১৭ই জানুয়ারি চট্টগ্রাম মেট্রোপলিটন পুলিশের পটিয়ায় কর্মরত ইশরাত জাহান (১৯) নামে এক নারী সদস্য গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করেন। পটিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শেখ মো. নেয়ামত উল্লাহ বলেন, দুপুরের দিকে ইশরাত জাহান গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করেছেন। তিনি সিএমপিতে ছিলেন। বাড়িতে এসে মায়ের সঙ্গে অভিমান করে ইশরাত আত্মহত্যা করেছেন বলে প্রাথমিকভাবে ধারণা করছি।
তিনি আরো বলেন, ইশরাত চাকরি করতে অনিচ্ছুক। কিন্তু তার মা ও পরিবার চায় ইশরাত চাকরি করুক। এ নিয়ে মানসিক ভারসাম্য হারিয়ে ইশরাত ছাদের সঙ্গে রশি বেঁধে গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করেছেন। এই ঘটনার কয়েক মাস আগে চট্টগ্রাম মহানগরীর পাহাড়তলি থানার বাচা মিয়া সড়কের ব্যাংক কলোনি এলাকায় গলায় ফাঁস দিয়ে তাহমিনা আক্তার জয়া (২৬) নামের আরেক যুবতী আত্মহত্যা করেন। শাহরিয়ার হোসেন ও সাকিবুল ইসলাম আকন্দ নামে দুটি ছেলে আছে তাহমিনার।
পাহাড়তলি থানার ওসি জানান, পাঁচ মাস আগে জয়ার সঙ্গে স্বামী ফরহাদ হোসেনের ছাড়াছাড়ি হয়। দুই ছেলে ফরহাদের সঙ্গে থাকত। বিচ্ছেদের পর থেকে মানসিক যন্ত্রণায় ভুগছিলেন জয়া।
চড় মারার ঘটনাকে কেন্দ্র করে বিয়ের সাত মাসের মাথায় গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করেছেন জোহরা বেগম (২৫) নামে এক গৃহবধূ। পাহাড়তলির সরাইপাড়া চৌধুরী মসজিদ এলাকায় গরুর মাংস কিনে না আনায় স্বামী-স্ত্রীর মাঝে ঝগড়ার জের ধরে এ ঘটনা ঘটে।
চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ জহিরুল ইসলাম বলেন, আত্মহত্যার ঘটনা সামপ্রতিক সময়ে বেড়েছে। প্রতি সপ্তাহে একটি থেকে দুটি লাশ পাচ্ছি। আগে যেখানে মাসে একটি পেতাম এখন সেখানে সপ্তাহে তার চেয়ে বেশি। প্রতিটি মৃত্যুতেই হাসপাতালের ময়নাতদন্তে পারিবারিক কলহ লেখা হচ্ছে বলে জানান তিনি।

 
এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

আপনার মতামত দিন

সাংবাদিক শিমুল হত্যা: পলাতক ৯ আসামীর আত্মসমর্পণ

এমপি এনামুল হকের বিরুদ্ধে জেএমবিকে মদতসহ বিস্তর অভিযোগ

নিহত জঙ্গি আব্দুল্লাহ’র স্ত্রী গ্রেপ্তার

​৩০ কোটি টাকা আত্মসাতের অভিযোগে ব্যবসায়ী গ্রেপ্তার

নিহত কিশোরের লাশ উদ্ধার

জেএমবির তিন সদস্যের ১৪ বছর কারাদণ্ড

শচীন যা পরেননি পৃথ্বি তা-ই পারলেন

টেকনাফে ৫ কোটি ৭০লক্ষ টাকার ইয়াবা উদ্ধার

‘নিজ অবস্থান থেকে আইন মানলে দুর্নীতি নিয়ন্ত্রণে আসবে’

চাল আমদানি করছেন না ব্যবসায়ীরা

তারেকের গ্রেপ্তার সংক্রান্ত প্রতিবেদন ৩১শে ডিসেম্বর

প্লেবয় মডেল হারতে’র ‘মজা’

ইরাকে আগ্রাসনের হুমকি এরদোগানের

এতিম রোহিঙ্গা শিশুদের জন্য আলাদা ব্যবস্থা করা হচ্ছে

মাঝারী ধরনের ভারী বর্ষণের আশঙ্কা

বিস্ময়কর উত্থান ঘটলেও জার্মানিতে এএফডি’র নেতা কে!