ল্যাপটপ ছিনতাইয়ে ৬ চক্রের ৯০ সদস্য

শেষের পাতা

আল আমিন | ১২ জানুয়ারি ২০১৭, বৃহস্পতিবার | সর্বশেষ আপডেট: ১১:১৬
তারা অধিকাংশ বয়সে তরুণ। সব কিছুইতেই খুব স্মার্ট। পরনে পাশ্চাত্য ধাঁচের পোশাক। হাতে দামি মোবাইল ফোন সেট। সবসময় দামি মোটরসাইকেলে চলাফেরা করে তারা। চলনে-বলনে মনে হবে উচ্চ-বিত্তশালী পরিবারের সন্তান। পরিচয় দেয় প্রাইভেট বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র হিসেবে। কিন্তু, বাস্তব হচ্ছে এ ধরনের ৬ চক্রের প্রায় ৯০ জন তরুণ ঢাকার বিভিন্ন এলাকায় ল্যাপটপ ছিনতাই এবং বিক্রয়ে সক্রিয় রয়েছে বলে ডিবি পুলিশের অনুসন্ধানে উঠে এসেছে। দিনের বেলায় তাদের বিচরণ কম। সন্ধ্যা হলেই তারা দাপিয়ে বেড়ায় বিভিন্ন এলাকায়। রিকশায় চড়ে যাওয়া কোনো নিরীহ পুরুষ বা নারীকে টার্গেট করে তারা ল্যাপটপ ছিনিয়ে নেই। ওই দুর্বৃত্ত চক্রকে ধরতে চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা পুলিশ (ডিবি)।
গত ৭ই জানুয়ারি রাজধানীর ধানমন্ডি এবং বসুন্ধরা এলাকায় অভিযান চালিয়ে চোরাই ল্যাপটপ ছিনতাই এবং বিক্রয় সিন্ডিকেটের ছয় সদস্যকে গ্রেপ্তার করেছে ঢাকা মহানগর দক্ষিণ গোয়েন্দা পুলিশ। এ সময় তাদের কাছ থেকে ৯০টি চোরাই ল্যাপটপ উদ্ধার করা হয়।
এ বিষয়ে ডিবি ডিসি (দক্ষিণ) মো. মাশরুকুর রহমান খালেদ মানবজমিনকে জানান, কয়েকজন ল্যাপটপ ছিনতাইয়ের বিষয়ে ঢাকার একাধিক থানায় জিডি করে। থানায় জিডি করার পাশাপাশি তারা ওই ল্যাপটপগুলো উদ্ধারের জন্য ডিবি পুলিশের কাছে আবেদনও করেছিল।  তিনি আরো জানান, ক্ষতিগ্রস্তরা জানায় যে, তাদের ওই ল্যাপটপে গুরুত্বপূর্ণ তথ্য রয়েছে। ওই প্রেক্ষিতে অভিযান চালিয়ে চোরাই ল্যাপটপ সিন্ডিকেটের ছয় সদস্যকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। পুরো চক্রকে শনাক্ত এবং ধরতে অভিযান চলছে। ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা পুলিশ (ডিবি) সূত্রে জানা গেছে,  ল্যাপটপ ছিনতাই ও বিক্রয়ে রাজধানী ঢাকায় কয়েকটি চক্র গড়ে উঠেছে। ডিবি’র প্রাথমিক অনুসন্ধানে ৬টি চক্রের নাম উঠে এসেছে। ওই চক্রে ৯০ জন সদস্য রয়েছে। যারা ল্যাপটপ ও ট্যাব ছিনতাই এবং বিক্রয়ের সঙ্গে জড়িত। সূত্র জানায়, ওই ৬  চক্র হচ্ছে, তেজগাঁও এলাকায় ইমতিয়াজ গ্রুপ, রমনা এলাকায় আরিফ, উত্তরা এলাকায় সালাম, মিরপুর এলাকায় আবুল কালাম, মতিঝিল এলাকায় এমদাদুল হক ও গুলশান এলাকায় রহমান আজিজ। এ ছয় এলাকায় ছয়জন ল্যাপটপ ছিনতাই এবং বিক্রয়ের সিন্ডিকেট নিয়ন্ত্রণ করে থাকে। তাদের অধীনে একাধিক সদস্য ওই কাজে সহযোগিতা করে থাকে। তার মধ্যে মতিঝিল জোনের এমদাদুল এবং মিরপুর এলাকার আবুল কালামকে গ্রেপ্তার করতে সক্ষম হয়েছে ডিবি পুলিশ। সূত্র জানায়, তবে তুলনামূলকভাবে লালবাগ এলাকায় ল্যাপটপ ছিনতাইয়ের ঘটনা কম হয়ে থাকে। পুরান ঢাকা জনবহুল এলাকা হওয়ার কারণে ওই এলাকায় ছিনতাইয়ের পরিমাণ কম বলে জানা গেছে। ওই চক্রের সদস্যরা দিনের বেলার চাইতে রাতেই ল্যাপটপ ছিনতাই করে থাকে। গভীর রাতে ফাঁকা স্থানে হাঁটা অবস্থায় পথচারীর হাত থেকে ল্যাপটপের ব্যাগ ছিনিয়ে নিয়ে দ্রুত পালিয়ে যায়। ঢাকার বিভিন্ন ব্যাংক বা বহুজাতিক প্রতিষ্ঠান থেকে যেসব পুরুষ ও নারী বের হয় তাদের টার্গেট করে দুর্বৃত্তরা। ওইসব প্রতিষ্ঠানের সদস্যরা বেশি ল্যাপটপ ব্যবহার করে থাকে।
সূত্র জানায়, এইক্ষেত্রে তারা কিছু নারীকে ব্যবহার করছে। ওই নারী সদস্যরা বিভিন্ন ব্যাংক ও বহুজাতিক প্রতিষ্ঠানে গ্রাহকের ছদ্দবেশে প্রবেশ করে দেখে যে, কোন পুরুষ ও নারীর কাছে ল্যাপটপ রয়েছে। পরে ওই নারী ওই তথ্যটি ছিনতাইকারী চক্রের সদস্যদের মোবাইলে ফোনে বা এসএমএস করে বার্তাটি পাঠায়। পরে তারা যখন প্রতিষ্ঠানের বাইরে বের হন তখন ছিনতাইকারীরা তাদের ল্যাপটপটি কেড়ে নিয়ে পালিয়ে যায়। সূত্র জানায়, দুর্বৃত্তরা ছিনতাইকৃত ল্যাপটপগুলো ঢাকার বিভিন্ন অভিজাত মার্কেটে এবং অনলাইন মার্কেটে বিক্রয় করে থাকে। ওই ল্যাপটপগুলো নতুন কভারে মুড়িয়ে গ্রাহকদের কাছে বিক্রয় করে। গত ৮ই জানুয়ারি বসুন্ধরা শপিং মলের এবি ইলেকট্রনিক হতে ৩৪ টি চোরাই ল্যাপটপ উদ্ধার করা হয়। ওই দোকানের মালিক মুশফিকুর রহমানও চোরাই ল্যাপটপ বিক্রয়ের সঙ্গে জড়িত বলে ডিবি পুলিশের কাছে স্বীকার করেছে। এ চক্রের সদস্যরা ঢাকায় ছিনতাই করলেও তারা সাভার ও নারায়ণগঞ্জে বসবাস করে। এমদাদুল নারায়ণগঞ্জ এবং আবুল কালাম সাভারের গেন্ডা এলাকায় থাকে বলে ডিবি পুলিশের কাছে স্বীকার করেছে। আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যদের হাত থেকে গ্রেপ্তার না হওয়ার জন্য তারা ওই পন্থা অবলম্বন করেছে।
এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

আপনার মতামত দিন

মধুপুরে রোহিঙ্গা সন্দেহে যুবক আটক

ম্যানচেস্টারে এবার মসজিদের বাইরে একজন ডাক্তারকে কুপিয়েছে দুর্বৃত্তরা

রোহিঙ্গা ক্যাম্পে কলেরা সংক্রমণের আশঙ্কা বিশ্ব সাস্থ্য সংস্থার

স্বামীকে বেঁধে গৃহবধূকে ধর্ষণ, আটক ১

২৮ ‘হিন্দু’র খুনী কে!

ভেঙ্গে গেল স্পর্শিয়ার সংসার

নির্বাচিত মারকেল, ইসলামবিরোধী এএফডির উত্থান, কঠিন চ্যালেঞ্জ সামনে

মালিতে নিহত সার্জেন্ট আলতাফের বাড়িতে শোকের মাতম

বাংলাদেশী শান্তিরক্ষী নিহত হওয়ায় জাতিসংঘ মহাসচিবের শোক, নিন্দা

যুক্তরাষ্ট্রে ভ্রমণ নিষেধাজ্ঞায় আরও তিন দেশ

‘যেভাবে ভাবি সেভাবে এখনো ক্যামেরার সামনে অভিনয় করতে পারিনি’

​ জার্মানির নির্বাচনে শেষ হাসি মার্কেলেরই

রোহিঙ্গাদের জন্য বাংলাদেশের ব্যাপক আন্তর্জাতিক সহযোগিতা প্রয়োজন: ইউএনএইচআরসি

মার্কেল?

ফের সীমান্তে রোহিঙ্গা স্রোত

ট্রাকচালক থেকে সপরিবারে ইয়াবা ব্যবসায়ী