দেশে আসা হলো না গিয়াসের

এক্সক্লুসিভ

স্টাফ রিপোর্টার, কক্সবাজার থেকে | ১২ জানুয়ারি ২০১৭, বৃহস্পতিবার
২০০৫ সাল থেকে সৌদি আরবে প্রবাস জীবনে ছিলেন গিয়াস উদ্দীন (৩৫)। এই দীর্ঘ সময়ে মাত্র দু’বার দেশে এসেছিলেন। আগামী সপ্তাহে তৃতীয়বারের মতো দেশে আসার জন্য সব কিছু গোছাচ্ছিলেন তিনি। এদিকে স্বজনরাও তার পানে চেয়ে ছিলেন অধীর অপেক্ষায়। কিন্তু বিধি বাম! কারো আশা পূর্ণ হলো না। একটি দুর্ঘটনা কেড়ে নিলো সবার আশা।
বিদ্যুৎ দুর্ঘটনায় মারা গেছেন গিয়াস উদ্দীন। ভবন নির্মাণের কাজ করতে গিয়ে বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে ১০ই জানুয়ারি সৌদি সময় বেলা ১১টায় গিয়াস উদ্দীনের মৃত্যু হয়। তিনি কক্সবাজারের মহেশখালী উপজেলার শাপলাপুরের ইউনিয়নের মুকবেখী এলাকার মৃত গোলাম কুদ্দুসের পুত্র। তার দু’ছেলে ও এক মেয়ে রয়েছে। স্থানীয় ইউপি সদস্য ছৈয়দ আলম জানান, ২০০৫ সালে নির্মাণ কাজের ভিসা নিয়ে সৌদি আরব গিয়েছিলেন গিয়াস উদ্দীন। এই সময়ের মধ্যে তিনি দু’বার দেশে এসেছিলেন। এক সপ্তাহ পরে তার তৃতীয়বার দেশে আসার কথা ছিল। কিন্তু দুর্ঘটনা সব আশা চূর্ণ করে দিলো। গিয়াস উদ্দীনের মৃত্যুতে তার স্বজনরা শোকে ভেঙে পড়েছেন। তার স্ত্রী ও সন্তানদের আহাজারিতে আকাশ-বাতাস ভারী হয়ে উঠেছে। স্ত্রী ছকিনা খাতুন বলেন, স্বামী মারা যাওয়াতে আমাদের সব শেষ হয়ে গেছে। এখন আমরা তার মৃতদেহটা ফেরত চাই। এ জন্য সরকারের সুদৃষ্টি কামনা করছি।

 

এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

আপনার মতামত দিন

মসজিদে গুলি ছোড়ার পর পাল্টে গেল এক মার্কিনীর জীবন

দৃশ্যপট একই

আয় বৈষম্য বাড়ায় চাপে মধ্যবিত্ত

নকলা উপজেলা চেয়ারম্যানের লাশ উদ্ধার

রিভিউর প্রস্তুতি

বাংলাদেশির বীরত্বে ধর্ষকদের হাত থেকে রক্ষা পেলো ইতালীয় তরুণী

ঢাবিতে ‘ঘ’ ইউনিটের প্রশ্ন ফাঁস?

সিলেট টার্মিনালে গুলিবর্ষণ নিয়ে পাল্টাপাল্টি

রোহিঙ্গা স্রোত থামছে না

বড় দুই দলেই প্রার্থীর ছড়াছড়ি

সামান্য বৃষ্টিতেই ডুবেছে চট্টগ্রাম

টানা বৃষ্টিতে নগরজুড়ে দুর্ভোগ

নিম্নমানের কাগজে ছাপা হচ্ছে বিনা মূল্যের পাঠ্যবই

দিনে গড়ে দেড় হাজার মামলা

‘বিএনপিকে নির্বাচনের বাইরে রাখার ষড়যন্ত্র চলছে’

পাকিস্তানের ষড়যন্ত্রে রোহিঙ্গাদের উপর আক্রমণ: মতিয়া চৌধুরী