দেশে আসা হলো না গিয়াসের

এক্সক্লুসিভ

স্টাফ রিপোর্টার, কক্সবাজার থেকে | ১২ জানুয়ারি ২০১৭, বৃহস্পতিবার
২০০৫ সাল থেকে সৌদি আরবে প্রবাস জীবনে ছিলেন গিয়াস উদ্দীন (৩৫)। এই দীর্ঘ সময়ে মাত্র দু’বার দেশে এসেছিলেন। আগামী সপ্তাহে তৃতীয়বারের মতো দেশে আসার জন্য সব কিছু গোছাচ্ছিলেন তিনি। এদিকে স্বজনরাও তার পানে চেয়ে ছিলেন অধীর অপেক্ষায়। কিন্তু বিধি বাম! কারো আশা পূর্ণ হলো না। একটি দুর্ঘটনা কেড়ে নিলো সবার আশা।
বিদ্যুৎ দুর্ঘটনায় মারা গেছেন গিয়াস উদ্দীন। ভবন নির্মাণের কাজ করতে গিয়ে বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে ১০ই জানুয়ারি সৌদি সময় বেলা ১১টায় গিয়াস উদ্দীনের মৃত্যু হয়। তিনি কক্সবাজারের মহেশখালী উপজেলার শাপলাপুরের ইউনিয়নের মুকবেখী এলাকার মৃত গোলাম কুদ্দুসের পুত্র। তার দু’ছেলে ও এক মেয়ে রয়েছে। স্থানীয় ইউপি সদস্য ছৈয়দ আলম জানান, ২০০৫ সালে নির্মাণ কাজের ভিসা নিয়ে সৌদি আরব গিয়েছিলেন গিয়াস উদ্দীন। এই সময়ের মধ্যে তিনি দু’বার দেশে এসেছিলেন। এক সপ্তাহ পরে তার তৃতীয়বার দেশে আসার কথা ছিল। কিন্তু দুর্ঘটনা সব আশা চূর্ণ করে দিলো। গিয়াস উদ্দীনের মৃত্যুতে তার স্বজনরা শোকে ভেঙে পড়েছেন। তার স্ত্রী ও সন্তানদের আহাজারিতে আকাশ-বাতাস ভারী হয়ে উঠেছে। স্ত্রী ছকিনা খাতুন বলেন, স্বামী মারা যাওয়াতে আমাদের সব শেষ হয়ে গেছে। এখন আমরা তার মৃতদেহটা ফেরত চাই। এ জন্য সরকারের সুদৃষ্টি কামনা করছি।

 

এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

আপনার মতামত দিন

বৃদ্ধা মিলু গোমেজ হত্যায় কেয়ারটেকার গ্রেপ্তার

ষোড়শ সংশোধনীর রিভিউ শুনানিতে আন্তর্জাতিক আইনজীবী নিয়োগের আবেদন

বিএনপি প্রার্থীকে প্রচারণায় বাধা দেয়ার অভিযোগ

চবিতে অনির্দিষ্টকালের জন্য অবরোধের ডাক

‘নির্বাচনে না আসলে বিএনপির অস্তিত্ব বিপন্ন হবে’

নিখোঁজ প্রকৌশলীর মরদেহ উদ্ধার

মালিবাগে গুদামে আগুন

ওয়ালটনে প্রতিষ্ঠাতা নজরুল ইসলাম মারা গেছেন

সাবেক প্রক্টর কারাগারে, প্রতিবাদে অবরুদ্ধ চবি

মহিউদ্দিন চৌধুরীর কুলখানিতে পদদলিত হয়ে ১১ জনের মৃত্যু

‘বিএনপি গণতন্ত্রে বিশ্বাস করেনা’

লেবাননে বৃটিশ কূটনীতিককে শ্বাসরোধ করে হত্যা

বিমানে দেখা এরশাদ-ফখরুলের

ছিনতাইকারীর টানাটানিতে মায়ের কোল থেকে পড়ে শিশুর মৃত্যু

‘উন্নয়ন কথামালায়, মানুষ কষ্টে আছে’

সারা দেশে বিএনপির প্রতিবাদ কর্মসূচি আগামীকাল