যৌতুকের জন্য চুল কেটে দিলো স্বামী

বাংলারজমিন

সাঘাটা (গাইবান্ধা) প্রতিনিধি | ১২ জানুয়ারি ২০১৭, বৃহস্পতিবার
গাইবান্ধার সাঘাটায় যৌতুকের টাকা দিতে না পারায় রাজিয়া সুলতানা নামের এক গৃহবধূর চুল কেটে দিয়েছে বখাটে স্বামী। স্বামী মিঠু বেপারী (৩২), শ্বশুর  জোব্বার বেপারী ও ভাশুর মিজানুর বেপারীর দীর্ঘদিন ওই গৃহবধূকে যৌতুকের টাকার জন্য চাপ প্রয়োগ করছিল। কিছুদিন পূর্বে বিয়ের সময় নগদ চল্লিশ হাজার টাকা, স্বর্ণালংকার, আসবাব পত্রসহ মোট এক লাখ টাকা যৌতুক আদায় করে তারা। জানা যায়, উপজেলার সাঘাটা মধ্যপাড়া গ্রামের মো. আব্দুল লতিফ শেখের মেয়ে মোছা. রাজিয়া সুলতানার সাথে ঘুড়িদহ গ্রামের মো. জোব্বার বেপারীর ছেলে মো. মিঠু বেপারীর নয় বছর পূর্বে বিয়ে হয়। ওই সময় এক লক্ষ টাকা দেনমোহর ধার্য্য করে নগদ চল্লিশ হাজার টাকা,স্বর্ণালংকার, আসবাবপত্রসহ মোট এক লাখ টাকা উপঢৌকন হিসেবে পাত্রপক্ষকে রাজিয়া সুলতানা বাবা-মা বুঝিয়ে দিয়ে বিদায় দেন। বিয়ের কিছুদিন সুখে ঘরসংসার করার পর। তার জীবনে নেমে আসে অন্ধকার। স্বামী-শ্বশুর কর্তৃক বিভিন্ন সময়ে যৌতুক বাবদ টাকা দাবি করা হয়। দাবিকৃত টাকা দিতে না পারায় বিভিন্ন সময় শারীরিক ও মানসিকভাবে নির্যাতন চালাতে থাকে। তালাক দেয়া হবে বলে ভয়-ভীতি প্রদশর্নও করা হয়। এর জের ধরে গত বুধবার বিকালে বাবার বাড়ি থেকে যৌতুকের টাকা আনার জন্য চাপ প্রয়োগ করে। পিতার অসচ্ছলতার জন্য রাজিয়া টাকা আনতে পারবে না বলে জানায়। তখন বখাটে স্বামী ক্ষীপ্ত হয়ে ক্ষীপ্ত হয়ে পাথর হাতে নিয়ে মারপিট করার উদ্দ্যেশে এগিয়ে এলে সে দৌড়ে প্রতিবেশী ফরিদ মিয়ার উঠানে গিয়ে আশ্রয় নেয়। এসময় মিঠু বেপারী, জোব্বার, মিজানুর, ছামছুনন্নাহার সেখানে গিয়ে রাজিয়া সুলতানাকে লাঠি দিয়ে মারপিট করতে থাকে। একপর্যায়ে মিঠুর হাতে থাকা পাথর দিয়ে মাথায় আঘাত করে। এ সময় রাজিয়া মাটিতে লুটিয়ে পড়লে পাষণ্ড স্বামী মিঠু কাপড় কাটা কেচি দিয়ে রাজিয়া সুলতানার মাথার চুল কেটে দেয়। সংবাদ পেয়ে রাজিয়া সুলতানার মা মনোয়ারা ভাই মিঠু ঘটনাস্থল গিয়ে আহত অবস্থায় তাকে উদ্ধার করে ভ্যানযোগে সাঘাটা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে ভতি করে। এ বিষয়ে সাঘাটা থানায় গতকাল একটি এজাহার পত্র দাখিল করা হয়েছে।
 
এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

আপনার মতামত দিন