কৌতূহল জিইয়ে রাখলেন বার্নি স্যান্ডার্স

এক্সক্লুসিভ

মানবজমিন ডেস্ক | ১১ জানুয়ারি ২০১৭, বুধবার | সর্বশেষ আপডেট: ১১:১৫
সাসপেন্স জিইয়ে রাখলেন বার্নি স্যান্ডার্স। নিশ্চিত করে বললেন না- ২০২০ সালে যুক্তরাষ্ট্রে প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে তিনি প্রতিদ্বন্দ্বিতা করবেন কিনা। শুধু বললেন, ২০২০ সাল সম্পর্কে সিদ্ধান্ত নেয়ার এখনই সময় নয়। সোমবার ওয়াশিংটনে সিএনএনের উদ্যোগে টাউন হল বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন। ওই অনুষ্ঠানে সঞ্চালকের দায়িত্ব পালন করেন ক্রিস কিউওমো। এতে বার্নি স্যান্ডার্স প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামার সঙ্গে রিপাবলিকানদের আচরণের তীব্র সমালোচনা করেন। তিনি বলেন, গত বছর সুপ্রিম কোর্টে বিচারক হিসেবে প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামা মনোনয়ন দিয়েছিলেন মেরিক গারল্যান্ডকে। তাকে মেনে নিয়ে লজ্জাজনক ও ভয়াবহভাবে অস্বীকৃতি জানিয়েছিল রিপাবলিকানরা। বার্নি স্যান্ডার্স বলেন, একই রিপাবলিকানরা করেছে বলে ডেমোক্রেটদেরও একই পথ অনুসরণ করা ঠিক হবে না। তিনি নতুন নির্বাচিত প্রেসিডেন্ট ডনাল্ড ট্রাম্পের সামনে শুধুই বাধা বা প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টি না করে তার কর্মকাণ্ডকে চ্যালেঞ্জ জানাতে আহ্বান জানিয়েছেন ফেলো ডেমোক্রেটদের। তিনি ডেমোক্রেটদের ভেতরকার আরো কিছু গুরুত্বপূর্ণ তথ্য প্রকাশ করেছেন। বলেছেন, সোমবার সিনেট ডেমোক্রেট নেতারা এক আলোচনায় বসেছিলেন। তাতে তারা নিজেদের কৌশল নিয়ে আলোচনা করেছেন। আলোচনা করেছেন প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত ট্রাম্প সুপ্রিম কোর্টে যাকে মনোনয়ন দেবেন তারা সরাসরি তার বিরোধিতা করবেন কি না তা নিয়ে। এরই প্রেক্ষিতে তিনি রিপাবলিকানদের পথ অনুসরণ না করে নতুন প্রেসিডেন্টকে সহায়তা করার আহ্বান জানান। এ খবর দিয়েছে অনলাইন সিএনএন। উল্লেখ্য, ২০১৬ সালে অনুষ্ঠিত যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে ডেমোক্রেট দল থেকে প্রাথমিক মনোনয়ন লড়াইয়ে শক্ত প্রতিদ্বন্দ্বিতা গড়ে তুলেছিলেন ভারমন্টের এই সিনেটর স্যান্ডার্স। কিন্তু তাকে পরাস্ত করে মনোনয়ন লাভ করেন সাবেক পররাষ্ট্রমন্ত্রী, ফার্স্টলেডি হিলারি ক্লিনটন। কিন্তু ৮ই নভেম্বরের চূড়ান্ত নির্বাচনী লড়াইয়ে তিনি হেরে যান রিপাবলিকান প্রার্থী ট্রাম্পের কাছে। এরপর ময়নাতদন্ত হয় নির্বাচন ও নির্বাচনী প্রক্রিয়ার। তাতে অনেকে মত দেন যে, বার্নি স্যান্ডার্সকে ডেমোক্রেট দল মনোনয়ন দিলে হয়তো তাদেরকে পরাজিত হতে হতো না। সেই বার্নি স্যান্ডার্স সোমবার স্বীকার করে নিলেন প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামার ‘ওবামাকেয়ারে’ সমস্যা আছে। তাই বলে তা বাতিল করা যাবে না। এর বিকল্প হিসেবে কিছু দাঁড় করা যাবে না। এ সময় তিনি নির্বাচিত প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পের সমালোচনা করেন। বলেন, তিনি তো নির্বাচনী প্রচারণা চালিয়েছেন ধর্মান্ধতাকে কেন্দ্র করে। এর ভিত্তি ছিল সেক্সিজম, বর্ণবাদ ও বিদেশিদের প্রতি অহেতুক ভীতি। তবে ট্রাম্প যদি এমন কাজ করেন যার অর্থ আছে তাহলে আমাদের উচিত তার সঙ্গে কাজ করা। তিনি বলেন, ট্রাম্পের সঙ্গে কাজ করার মতো অন্তত একটি ইস্যু আছে। তা হলো বাণিজ্য। নির্বাচনী প্রচারণার সময়ে তারা দুজনেই নর্থ আমেরিকান ফ্রি ট্রেড এগ্রিমেন্টের বিরুদ্ধে কথা বলেছেন। একই সঙ্গে ট্রাম্প ও স্যান্ডার্স দুজনেই ট্রান্স-প্যাসিফিক পার্টনারশিপের (টিপিপি) বিরোধিতা করেছেন। বার্নি স্যান্ডার্স বলেন, আমাদের দরকার নতুন বাণিজ্য নীতি। এ জন্য ট্রাম্পের আলোচনায় বসা দরকার। কাজ করা উচিত এমন একটি নীতিতে, যা হবে সুষ্ঠু। এমন হলে আমি তার সঙ্গে কাজ করে খুশি হবো। উল্লেখ্য, নির্বাচনে হিলারি ক্লিনটনের পরাজয় ও প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামার ক্ষমতার মেয়াদ শেষ হওয়ার দিন গণনা চলছে এখন। এমন সময় বার্নি স্যান্ডার্স, ম্যাচাচুসেটসের সিনেটর এলিজাবেথ ওয়ারেন ও দলীয় প্রগতিশীল শীর্ষ স্থানীয় নেতাদের ওপর ভর করছেন ডেমোক্রেটরা। তাদের কাছ থেকে দলীয় অবস্থান ও লড়াইয়ে টিকে থাকার বার্তা চাইছেন তারা। ওয়াশিংটনে সবদিক থেকেই ক্ষমতা হারিয়েছে ডেমোক্রেটরা। তারা প্রেসিডেন্ট পদে হেরেছে। কংগ্রেসের দু’কক্ষের নিয়ন্ত্রণই চলে গেছে রিপাবলিকানদের হাতে। এ অবস্থায় প্রচণ্ড চাপে থাকবে ডেমোক্রেটরা- এটা সহজেই অনুমেয়। সিনেটে রিপাবলিকানরা সংখ্যাগরিষ্ঠ। ফলে প্রেসিডেন্ট হিসেবে ট্রাম্প যাদেরকে মনোনয়ন দেবেন তাদেরকে কোনোভাবেই আটকাতে পারবে বলে দৃশ্যত মনে হচ্ছে না। ওবামাকেয়ার বাতিলের যে ঘোষণা দিয়েছে রিপাবলিকানরা তাও আটকাতে পারবে না তারা। তবে ট্রাম্পের দু’টি মনোনয়ন নিয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন বার্নি স্যান্ডার্স। ওই দুটি মনোনয়নে রয়েছেন অ্যাটর্নি জেনারেল পদে আলাবামার সিনেটর জেফ সেশনস, ইপিএ অ্যাডমিনিস্ট্রেটর হিসেবে ওকলাহোমার অ্যাটর্নি জেনারেল স্কট প্রুইট।
এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

আপনার মতামত দিন

রোহিঙ্গা নবজাতকের নাম ‘শেখ হাসিনা’

রোহিঙ্গা ইস্যুতে জাতীয় ঐক্য হয়ে গেছে : নাসিম

রোহিঙ্গাদের জন্য ত্রাণ পাঠালো সৌদি আরব

ঢাবিতে ভর্তি পরীক্ষায় জালিয়াতির অভিযোগে আটক ৫

‘সরকার পচা চাল আমদানি করছে’

‘রোহিঙ্গা ইস্যুতে বিএনপি লিপ সার্ভিস দিচ্ছে’

অর্থ আত্মসাত মামলায় সাবেক কৃষি ব্যাংক কর্মকর্তা গ্রেপ্তার

‘সুন্দরী মেয়েদের ধর্ষণ করে সেনারা হাত-পা, বুক কেটে ফেলে দেয়’

রোহিঙ্গাদের নির্যাতন বন্ধ করার উপায় খুঁজছেন ট্রাম্প

রোহিঙ্গা গণহত্যার বিরুদ্ধে পদক্ষেপ গ্রহণ করতে জাতিসংঘকে ম্যাক্রনের আহ্বান

রোহিঙ্গা সমস্যার স্থায়ী সমাধানে জাতিসংঘে প্রধানমন্ত্রীর পাঁচ প্রস্তাব