শ্বশুরকে অস্ত্র ঠেকিয়ে হত্যার হুমকি

বাংলারজমিন

দৌলতপুর (কুষ্টিয়া) প্রতিনিধি | ১১ জানুয়ারি ২০১৭, বুধবার
কুষ্টিয়ার দৌলতপুর সীমান্তে পুলিশের সামনে শ্বশুরকে অস্ত্র ঠেকিয়ে হত্যার হুমকি দিয়েছে মাদকসম্রাট মুকাদ্দেস। সোমবার রাতে উপজেলার রামকৃষ্ণপুর ইউনিয়নের সীমান্ত সংলগ্ন মুন্সীগঞ্জ গ্রামে এ ঘটনা ঘটেছে। প্রত্যক্ষদর্শী ও স্থানীয়রা জানান, পরকীয়ার জের ধরে মুন্সীগঞ্জ গ্রামের রেজাউল হকের ছেলে সীমান্তের শীর্ষ মাদক ও অস্ত্র ব্যবসায়ী মুকাদ্দেস আলী (৩৫) তার স্ত্রী সুমি’র ওপর শারীরিক নির্যাতন চালায়। মেয়ের নির্যাতনের খবর পেয়ে মুকাদ্দেসের শ্বশুর মথুরাপুর এলাকার আকুব্বর ওইদিন রাত ৮টার দিকে মেয়ের খবর নিতে গেলে মাদকসম্রাট মুকাদ্দেস মথুরাপুর ক্যাম্পের এএসআই মিহির ও কনস্টেবল ইনছান আলীর সঙ্গে বসে গল্প করতে দেখে। এ সময় শ্বশুর মুকাদ্দেসকে তার মেয়ের ওপর নির্যাতন না করার জন্য অনুরোধ জানালে মুকাদ্দেস ক্ষিপ্ত হয়ে তার শ্বশুর আকুব্বরকে অপমানিত করে। মুকাদ্দেসের চিৎকার ও শোরগোল শুনে স্থানীয় বুল্লাল মণ্ডলসহ প্রতিবেশীরা ঘটনাস্থলে ছুটে এলে মুকাদ্দেস পুলিশের সামনেই অস্ত্র বের করে তার শ্বশুরকে হত্যার হুমকি দেয়। মুকাদ্দেসের এ আচরণে বুল্লাল মণ্ডল প্রতিবাদ করলে তাকে প্রাণনাশের হুমকি দিয়ে মুকাদ্দেস বলে ‘ভালো-মন্দ খেয়ে নে যেকোনো সময় তোকে গুলি করে হত্যা করবো’। পুলিশের সামনে মাদক ও অস্ত্র ব্যবসায়ী মুকাদ্দেসের এ আচরণে উপস্থিত স্থানীয় জনগণ ক্ষুব্ধ হয় এবং মুকাদ্দেসকে আটক করতে বললে এএসআই মিহির উল্টো এলাকাবাসীকে হুমকি দিয়ে তাদের ছত্রভঙ্গ করে। পুলিশের আচরণে ক্ষুব্ধ এলাকাবাসী ও শ্বশুর আকুব্বর মুকাদ্দেসের বাড়ি ত্যাগ করে। পুলিশের সামনে অস্ত্র বের করে গুলি করতে উদ্যত হওয়ার ঘটনায় এলাকাবাসী দৌলতপুর থানা পুলিশকে জানালে মথুরাপুর ক্যাম্প ইনচার্জ জলিল সঙ্গীয় ফোর্স নিয়ে মুকাদ্দেসকে ধরতে তার বাড়িতে অভিযান চালালে সে পালিয়ে যায়। পুলিশের সামনে অস্ত্র বের করে হত্যার হুমকির ঘটনায় পুলিশের নীরবতা এবং মাদকসম্রাটিকে সমর্থন দেয়ার বিষয়টি তদন্ত সাপেক্ষে সংশ্লিষ্ট পুলিশ ও কুখ্যাত মাদক এবং অস্ত্র ব্যবসায়ীর বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণের দাবি জানান এলাকাবাসী। এ বিষয়ে স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান সিরাজ মণ্ডল জানান, এমন ঘটনার খবর শুনেছি।
এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

আপনার মতামত দিন