টেকনাফে লুট হওয়া অস্ত্র ও গুলি উদ্ধার, গ্রেপ্তার ২

বাংলারজমিন

স্টাফ রিপোর্টার, কক্সবাজার থেকে | ১১ জানুয়ারি ২০১৭, বুধবার
গত বছরের ১৩ই মে টেকনাফের আনসার ক্যাম্প থেকে লুট হওয়া পাঁচটিসহ ১০টি আগ্নেয়াস্ত্র ও ১৮৯ রাউন্ড গুলি উদ্ধার করেছে র‌্যাব সদস্যরা। এ সময় আনসার ক্যাম্পের অস্ত্র লুটের দু’হোতাকেও আটক করা হয়েছে। সোমবার রাত থেকে এক দীর্ঘ অভিযানে র‌্যাব’র সদস্যরা এসব অস্ত্র উদ্ধার ও দু’হোতাকে  গ্রেপ্তার করতে সক্ষম হন। অভিযানে অংশ র‌্যাব’র ডিজি বেনজীর আহমেদ ও আনসারের ডিজি মিজানুর রহমান।  গ্রেপ্তারকৃতরা হলেন, মিয়ানমারের রোহিঙ্গা নাগরিক খাইরুল আমিন ও মাস্টার আবুল কালাম আজাদ। মঙ্গলবার রাত ৯টার দিকে উখিয়ার কুতুপালং থেকে তাদের গ্রেপ্তার করা হয়।
মঙ্গলবার নাইক্ষ্যংছড়িতে এক সংবাদ ব্রিফিংয়ে র‌্যাব জানান, উখিয়ার কুতুপালং এলাকা থেকে সোমবার রাতে দু’টি অস্ত্র ও গুলিসহ গ্রেপ্তার দুই রোহিঙ্গা সন্ত্রাসীকে নিয়ে নাইক্ষ্যংছড়ির গহীন পাহাড়ে অভিযান চালান র‌্যাব সদস্যরা। মঙ্গলবার ভোর রাতে এ অভিযান চালানো হয়। এ সময় টেকনাফের আনসার ক্যাম্প থেকে লুট হওয়া পাঁচটি অস্ত্রসহ মোট ১০টি অস্ত্র ও ১৮৯ রাউন্ড গুলি উদ্ধার করে র‌্যাব ও আনসার বাহিনীর সদস্যরা। মঙ্গলবার দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে নাঈক্ষ্যংছড়ির তুমব্রু এলাকার গহীন অরণ্য থেকে এসব অস্ত্র ও গুলি উদ্ধার করা হয়।
অভিযানে র‌্যাব’র ডিজি বেনজীর আহমেদ ও আনসারের ডিজি মিজানুর রহমানসহ বিপুল সংখ্যক র‌্যাব, পুলিশ, সাংবাদিক ও আনসার সদস্য উপস্থিত ছিলেন। পরে ঘটনাস্থলেই প্রেস ব্রিফিং করেন বেনজীর আহমেদ ও মিজানুর রহমান। তারা বলেন, পাহাড়ি অঞ্চলের গভীর অরণ্যের সম্ভাব্য দু’টি পাহাড় ঘিরে  রেখেছে  র‌্যাব ও আনসার বাহিনীর সদস্যরা। সেখানে আরো দু’দিন অভিযান অব্যাহত থাকবে। তারা আরো জানান, আনসার ক্যাম্পে হামলা ও অস্ত্র লুটের ঘটনায় অভিযান চালিয়ে অস্ত্রসহ এ পর্যন্ত তিনজনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।
এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

আপনার মতামত দিন