শুধু ‘স্টুপিড’রাই রাশিয়ার সঙ্গে সম্পর্ককে ক্ষতিকর হিসেবে ভাবে

বিশ্বজমিন

মানবজমিন ডেস্ক | ৮ জানুয়ারি ২০১৭, রবিবার | সর্বশেষ আপডেট: ৬:০১
তবু রাশিয়ার সঙ্গে যুক্তরাষ্ট্রের ঘনিষ্ঠ সম্পর্কের কথাই বললেন যুক্তরাষ্ট্রে প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত ডনাল্ড ট্রাম্প। তিনি বলেছেন, রাশিয়ার সঙ্গে সুসম্পর্ক হবে একটি ভাল জিনিস। এটা খারাপ কিছু নয়। শুধু ‘স্টুপিড’ মানুষ বা বোকারা মনে করতে পারেন এ সম্পর্ক হবে খারাপ। শুক্রবার যুক্তরাষ্ট্রের গোয়েন্দা সংস্থাগুলোর প্রধানরা যুক্তরাষ্ট্রের নির্বাচন রাশিয়ার হ্যাক করার বিষয়ে ট্রাম্পকে ব্রিফিং করেন। তারা এ সংক্রান্ত ২৫ পৃষ্ঠার রিপোর্ট প্রকাশ করেন।
এরপর ট্রাম্প হ্যাকিংয়ের বিষয়ে স্বীকার করে নেন। তিনি বলেন রাশিয়া, চীন, অন্য কোনো দেশ, বাইরের কোনো গ্রুপ ও লোক অব্যাহতভাবে আমাদের দেশের সরকারি প্রতিষ্ঠান, ব্যবসায় সংগঠন, ডেমোক্রেট ন্যাশনাল কমিটি সহ বিভিন্ন সংগঠনে সাইবার হামলা চালাচ্ছে। তবে তাতে নির্বাচনের ফলের ওপর কোনো প্রভাব পড়ে নি। কিন্তু এর একদিন পরেই তিনি আবারও সুর পাল্টে ফেলে টুইটে ওপরের ওই মন্তব্য করেছেন। তিনি এতে আরও বলেছেন, আরও একটি বাদে বিশ্বজুড়ে প্রচুর সমস্যা আছে। যখন আমি প্রেসিডেন্ট হিসেবে দায়িত্ব নেবো তখন রাশিয়া আমাদেরকে আরও বেশি সম্মান করবে। সম্ভবত দু’দেশ তখন বড় বড় সমস্যা, চাপে থাকা সমস্যা ও বিশ্বের বিভিন্ন ইস্যুগুলো একত্রিত হয়ে সমাধান করবে। যুক্তরাষ্ট্রের গোয়েন্দা সংস্থাগুলো ২০১৬ সালের নির্বাচনে রাশিয়ার হ্যাকিংয়ের বিষয়ে যে রিপোর্ট দিয়েছেন তিনি তার শেষটা মানতে নারাজ। তাই তিনি শনিবার রাশিয়া ও যুক্তরাষ্ট্রের ঘনিষ্ঠ সম্পর্ক নিয়ে ওই টুইট করেছেন। উল্লেখ্য, ৮ই নভেম্বর যুক্তরাষ্ট্রে অনুষ্ঠিত প্রেসিডেন্ট নির্বাচনের প্রচারণা চলার সময় রাশিয়া যুক্তরাষ্ট্রের ডেমোকেটিক পার্টি ও উল্লেখযোগ্য ব্যক্তিদের ইমেইল ও গুরুত্বপূর্ণ তথ্য হ্যাক করে। তা প্রকাশ করে দেয়। এমনটাই বলছেন গোয়েন্দারা। বলা হচ্ছে, এর মধ্য দিয়ে ডনাল্ড ট্রাম্পকে জিতিয়ে নিতে ও হিলারি ক্লিনটনকে পরাজিত করার জন্য কাজ করেছে মস্কো। আর এমন নির্দেশ দিয়েছিলেন রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভøাদিমির পুতিন। গোয়েন্দাদের রিপোর্টে বলা হয়েছে, এসব করে যুক্তরাষ্ট্রের গণতান্ত্রিক ধারাকে খর্ব করতে চেয়েছে রাশিয়া। এটা তাদের দীর্ঘদিনের টার্গেট ছিল। তবে শেষতক ট্রাম্প তা পুরোপুরি স্বীকার করতে নারাজ। তিনি মনে করেন না, যুক্তরাষ্ট্রে প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে রাশিয়ার হস্তক্ষেপের কোনো প্রভাব পড়েছে। শনিবার দিনের শুরুর দিকে তিনি এক টুইটে বলেছে, গোয়েন্দাদের দেয়া তথ্যে নির্বাচনের ফলের ওপর প্রভাব সৃষ্টির কোনো নিরেট প্রমাণ পাওয়া যায় নি। নির্বাচনে পরাজয়ের পর ডেমোক্রেটরা ভীষণ হতাশ। তাই তারা হ্যাকিংয়ের দিকে এতটা নজর দিচ্ছে। ডেমোক্রেটিক ন্যাশনাল কমিটির ভয়াবহ অবহেলার কারণে হ্যাকিং হয়েছে। তবে রিপাবলিকান ন্যাশনাল কমিটির ছিল শক্তিশালী প্রতিরক্ষা ব্যবস্থা।

এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

আপনার মতামত দিন

মসজিদে গুলি ছোড়ার পর পাল্টে গেল এক মার্কিনীর জীবন

দৃশ্যপট একই

আয় বৈষম্য বাড়ায় চাপে মধ্যবিত্ত

নকলা উপজেলা চেয়ারম্যানের লাশ উদ্ধার

রিভিউর প্রস্তুতি

বাংলাদেশির বীরত্বে ধর্ষকদের হাত থেকে রক্ষা পেলো ইতালীয় তরুণী

ঢাবিতে ‘ঘ’ ইউনিটের প্রশ্ন ফাঁস?

সিলেট টার্মিনালে গুলিবর্ষণ নিয়ে পাল্টাপাল্টি

রোহিঙ্গা স্রোত থামছে না

বড় দুই দলেই প্রার্থীর ছড়াছড়ি

সামান্য বৃষ্টিতেই ডুবেছে চট্টগ্রাম

টানা বৃষ্টিতে নগরজুড়ে দুর্ভোগ

নিম্নমানের কাগজে ছাপা হচ্ছে বিনা মূল্যের পাঠ্যবই

দিনে গড়ে দেড় হাজার মামলা

‘বিএনপিকে নির্বাচনের বাইরে রাখার ষড়যন্ত্র চলছে’

পাকিস্তানের ষড়যন্ত্রে রোহিঙ্গাদের উপর আক্রমণ: মতিয়া চৌধুরী