সিমেন্টবিহীন ঢালাই: স্কুলের সিঁড়ি ধসে মাটিতে

অনলাইন

গাংনী (মেহেরপুর) প্রতিনিধি | ৮ জানুয়ারি ২০১৭, রবিবার, ৪:৪১ | সর্বশেষ আপডেট: ৪:৪১
গাংনী উপজেলার কাথুলী ইউনিয়নের নওপাড়া-নবীনপুর সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের নতুন ভবনের ঢালাইয়ের ১৫ দিনের মাথায় বিল্ডিংয়ের সিঁড়ি ভেঙ্গে পড়েছে। এতে মোক্তার হোসেন (২৭) নামের এক শ্রমিক আহত হয়েছেন। আহত মোক্তার হোসেন কুষ্টিয়ার কুমারখালী উপজেলার পান্টি গ্রামের শরিফুল ইসলামের ছেলে। আহত মোক্তার হোসেন স্থানীয়ভাবে চিকিৎসা নিয়েছেন।
শনিবার দুপুর পৌনে ২টার সময় আকস্মিকভাবে সিঁড়িটি ভেঙ্গে পড়ে। এ সময় বিল্ডিংয়ের দ্বিতল-এ সাটারিং কাজে নিয়োজিত শ্রমিক মোক্তার হোসেন আহত হন।
এদিকে এ ঘটনার খবর পেয়ে এদিন বিকেলে গাংনী উপজেলা প্রকৌশলী মাহবুবুল হক ঘটনাস্থল পরিদর্শনে গেলে, উত্তেজিত জনতা তার উপর চড়াও হয়। স্থানীয় প্রকৌশল অধিদপ্তর সূত্রে জানা যায়, কুষ্টিয়ার মেসার্স তামান্না ট্রেডার্স নামের একটি ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠান এ কাজের টেন্ডার নেয়। এ প্রতিষ্ঠানের নামে গাংনীর মোনায়েম হোসেন মোলাক লেসে কাজটি করছেন।
মোলায়েম হোসেন মোলাক জানান, ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠান তামান্না ট্রেডার্সের কাছ থেকে মেহেরপুর জেলা আ.লীগের সাধারণ সম্পাদক এম এ খালেক পাওয়ার অব এর্টনি করে নিয়েছেন।
স্থানীয়রা জানান, নির্মাণ কাজ শুরু থেকেই নি¤œমানের নির্মাণ সামগ্রী দিয়ে কাজ করে আসছেন। নি¤œমানের কাজের বিরোধীতা করায়, ঠিকাদার মোনায়েম হোসেন মোলাক তাদের বিভিন্ন ভাবে মামলা দেওয়ার হুমকি দিয়ে আসছিলেন।
স্থানীয় রাজমিস্ত্রি আমিরুল ইসলাম কালু বলেন, আমি ওই বিল্ডিংয়ে রাজ মিস্ত্রি হিসেবে কিছু আগে কাজ করতাম। নির্মাণ সামগ্রী নিম্বনমানের হওয়ায় আমার বিবেক জাগ্রত হয়। আমি নিজেই প্রতিবাদ করেছিলাম। সে থেকে আমাকে ওই বিল্ডিংয়ের কাজ থেকে বাদ দিয়েছেন ঠিকাদার।
স্থানীয়রা অভিযোগ করেন, বিল্ডিংয়ের কাজ শুরু হওয়ার সময় সাব-এ্যাসিস্টেন্ট ইঞ্জিনিয়ার শামসুল হক কয়েকদিন এসেছিলেন। প্রথম দিকে কাজের ভুল ধরায় ঠিকাদার প্রকাশ্যেই মোটা অংকের টাকা দিয়ে তাকে (ম্যানেজ) নিয়ন্ত্রণ করে। বিল্ডিংয়ের কাজের তদারকিতে থাকা সাব-এ্যাসিস্টেন্ট ইঞ্জিনিয়ার শামসুল হকের সাথে মোবাইল ফোনে কথা বলতে চাইলে, সাংবাদিক পরিচয় পেয়ে ফোনটি কেটে দেন।
এদিকে শনিবার ঘটনাস্থলে মোনায়েম হোসেন মোলাক গেলে উত্তেজিত জনতার রোষানলে পড়েন তিনি। পরে পরিস্থিতি বেগতিক দেখে ঠিকাদার মোনায়েম হোসেন মোলাক ঘটনাস্থল থেকে পালিয়ে যান।
নবীনপুর সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী অভিভাবক কোহিনুর খাতুন, রাবেয়া খাতুন ও আফজাল হোসেন অভিযোগ করেন, ঘরের ছাদ ধসে যাওয়ার কারণে তারা সন্তানদের নিয়ে উদ্বিগ্ন। এ ঘটনার প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা না নিলে তারা ছেলে-মেয়েদের এই স্কুলে রাখবেন না বলে জানান।
নবীনপুর সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক নুরুন্নাহার শেলী বলেন, ২০১৬ ইং সালের ডিসেম্বর মাস পর্যন্ত এ বিল্ডিংয়ের কাজের মেয়াদ ছিল। কিন্তু ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠান নির্ধারিত সময়ের মধ্যে নির্মাণ কাজ শেষ না করে আরো ৬ মাস মেয়াদ বৃদ্ধি করেছে। এ ঘটনায় অভিভাবকরা তাদের সন্তানদের অন্য বিদ্যালয়ের নিয়ে যাবে বলে জানাচ্ছেন।
গাংনী উপজেলা প্রকৌশলী মাহবুবুল হক বলেন, ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠান আমাদের সাথে কোন যোগাযোগ না করেই ঢালাইয়ের মত গুরুত্বপূর্ণ কাজটি করেছে। আমাদের জানালে, এসব অনিয়ম ও দুর্নীতি করতে পারতোনা।
গাংনী নির্বাহী অফিসার আরিফ উজ-জামান বলেন, বিষয়টি দু:খজনক। তদন্ত সাপেক্ষ প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে। এ ঘটনা তদন্ত না হওয়া পর্যন্ত তাদের বিল দেওয়া হবে না। কাজের মান নি¤œ হলে ওই ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠানের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।
১৯৯৮ ইং সালে স্থাপিত নবীনপুর সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়টি ছিল জরাজীর্ণ। পর্যাপ্ত শ্রেণী কক্ষ ছিল না। ভাঙ্গা-চোরা শ্রেণী কক্ষের মধ্যে শিক্ষার্থীরা লেখা-পড়া করে আসছিল। গত কয়েক মাস আগে থেকে স্থানীয় সরকার প্রকৌশল বিভাগ (এলজিইডি) তত্বাবধানে ৬৩ লাখ ৫২ হাজার,৫শ টাকা ব্যয়ে নওপাড়া-নবীনপুর সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় নির্মাণ কাজ শুরু হয়।
এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

পাঠকের মতামত

**মন্তব্য সমূহ পাঠকের একান্ত ব্যক্তিগত। এর জন্য সম্পাদক দায়ী নন।

মামুন আহমদ সালমান

২০১৭-০১-০৭ ২১:৫৩:৫৬

মাননীয় প্রধান মন্ত্রী দেশ কে উন্নয়ন করারা জন্য আপ্রান প্রচেষ্টা চালিয়ে যাচ্চেন, স্যালুট জানাই আপনাকে। আমি জানিনা আমার এই ছোট্ট মেসেজ টি প্রধান মন্ত্রীর কাছে পৌছিবেনা তার পরেও বলি, কন্সট্রাক্সন কাজের জন্য সরকারী ভাবে গোয়েন্দা সংস্থার কাছে এই ভিজিট দায়িত্ব দেয়া হোক, অথবা এই ধরনের বিল্ডিংয়ের কাজ যাতে টিক মত হচ্চে কিনা সেই জন্য প্রধান মত্রীর তরফ থেকে প্রাইভেট একটি গ্রুপ চালু করা হোক। ধন্যবাদ

আপনার মতামত দিন

বাংলামোটরে বাস চাপায় রিকশা চালক নিহত, গাড়িতে আগুন

চীন, ভারত ও রাশিয়ার সঙ্গে ব্যাপকভিত্তিক আলোচনায় ঢাকা

গলায় ছুরি বসানোর পর যেভাবে বেঁচে আসেন রোহিঙ্গা যুবক

স্মার্টকার্ড প্রকল্পে তালগোল সেনাবাহিনীকে দায়িত্ব দিতে চায় ইসি

রিজলভের জরিপ কী বার্তা দিচ্ছে

রোহিঙ্গাদের বাঙালি বানানোর কুপরিকল্পিত বর্মী কৌশল

এবার ধরা খেলেন সচিব ও পুলিশ কর্মকর্তা

কিশোরকে পিটিয়ে হত্যা

সংখ্যালঘুরা সরকার গঠনে সহায়ক ভূমিকা রাখতে পারে

গলা টিপে ধরতেই আফসানার দেহ নিথর হয়ে পড়ে

আওয়ামী লীগে স্নায়ুযুদ্ধ বিএনপি’র শেখ সুজাত

রোহিঙ্গা ইস্যুতে নিরাপত্তা পরিষদের বৈঠক কাল

ভুটানে ব্যান্ডউইথ রপ্তানি নিয়ে নতুন জটিলতা

রাষ্ট্রদ্রোহ মামলায় চট্টগ্রামে ১০ শিক্ষকের জামিন

সীমান্তে স্থল মাইন বিস্ফোরণে রোহিঙ্গা যুবক নিহত

সাংবাদিক শিমুল হত্যা: পলাতক ৯ আসামীর আত্মসমর্পণ