শোকপ্রকাশের জন্য আলাদা ঘর হবে মেডিক্যালে

রকমারি

| ২৯ ডিসেম্বর ২০১৬, বৃহস্পতিবার | সর্বশেষ আপডেট: ১২:৪৩
তৃণমূলের চিকিৎসক নেতা তথা বিধায়ক নির্মল মাজি বুধবার জানিয়েছেন, মেডিক্যাল কলেজে এমসিএইচ বিল্ডিং এবং জরুরি বিভাগের পাশে তৈরি হচ্ছে একটি ১১ তলা ভবন। ওই ভবনের দোতলায় একটি ঘরকেই শোকপ্রকাশের স্থান হিসাবে গড়ে তোলা হবে। প্রিয়জন হারানোর শোক নিভৃতে প্রকাশের জন্য কলকাতা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে তৈরি হচ্ছে আলাদা ঘর।
তৃণমূলের চিকিৎসক নেতা তথা বিধায়ক নির্মল মাজি বুধবার জানিয়েছেন, মেডিক্যাল কলেজে এমসিএইচ বিল্ডিং এবং জরুরি বিভাগের পাশে তৈরি হচ্ছে একটি ১১ তলা ভবন। ওই ভবনের দোতলায় একটি ঘরকেই শোকপ্রকাশের স্থান হিসাবে গড়ে তোলা হবে। নির্মল বলেন, ‘‘মৃতের আত্মার শান্তি কামনা করা, নিজেদের মধ্যে দুঃখ ভাগ করে নেওয়ার জন্য আলাদা ঘরের কথা আমরা চিন্তা করেছি।’’ রাজ্যে এমন ঘর তৈরির উদ্যোগ এই প্রথম।
তবে এই ঘর তৈরির নেপথ্যে হাসপাতালে অশান্তি ঠেকানোর ভাবনাও রয়েছে। তৃণমূলের চিকিৎসকনেতার কথায়, ‘‘প্রিয়জন চলে যাওয়ার যন্ত্রণা সহ্য করার মতো মানসিক শক্তি সকলের থাকে না।
তখনই মনে হয়, ঠিকমতো চিকিৎসা হল না বলেই মৃত্যু হল। এই মানসিক অবস্থায় অনেকসময় ঝগড়া হয়, ধাক্কাধাক্কি হয়। প্রিয়জনকে হারানোর আঘাত প্রাথমিক ভাবে সহ্য করার জন্য ঘর দরকার।’’
এই পরিকল্পনাকে সাধুবাদ জানালেও চিকিৎসকদের একাংশ প্রশ্ন তুলেছেন, যেখানে বহু হাসপাতালে রোগীর আত্মীয়দের সঙ্গে চিকিৎসকদের আলাদা করে কথা বলার জন্যই ঘর নেই, সেখানে এ ধরনের ঘর তৈরি কতটা যৌক্তিক।
নির্মল জানান, হাসপাতালের উন্নয়নের টাকায় সাজানো হবে ওই  ঘর। তাঁর  কথায়, ‘‘পুরো হাসপাতালকে সৌন্দর্যায়নের মোড়কে নিয়ে আসতে চাইছি। একটা স্বর্গীয় পরিবেশ। কেওড়াতলার পরিবেশ দেখবেন…, ওপারের ডাক যাঁদের হাতছানি দিয়ে ডেকেছে, সেখানেও শান্তির খোঁজ!’’ এক চিকিৎসক অবশ্য এ প্রসঙ্গে বলেন, ‘‘হাসপাতালে এবার শ্মশানের শান্তি? বোঝাই যাচ্ছে, চিকিৎসার হাল কী!’’ হাওড়ার ডোমজুড়ের বাসিন্দা গৌরহরি দাস বলেন, ‘‘আমার রোগী হাসপাতালে। আমরা কি কান্নাঘরে বসে থাকব? রোগী বাঁচানোর ঘর করুন।’’
নির্মল জানিয়েছেন, মেডিক্যাল কলেজে আগে উপাসনাগৃহ ছিল। উপাসনাগৃহ থেকে এবার শোকগৃহ। সেই রূপান্তরের মধ্যে অবশ্য রইল ‘শ্মশানের শান্তি’ বিতর্ক। আর বরাবরের মতো বিতর্কে রইলেন সেই নির্মল।

সুত্রঃ এবেলা

এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

আপনার মতামত দিন

শিক্ষিকা-ছাত্রের যৌন সম্পর্ক, অতঃপর...

রাবি অপহৃত ছাত্রী ঢাকায় উদ্ধার

‘সমাবেশে জোর করে লোক আনা হয়েছে’

যুদ্ধাপরাধের ২৯তম রায়ের আপেক্ষা

ঈদে মিলাদুন্নবী নিয়ে চাঁদ দেখা কমিটির সভা কাল

সিরিয়া ইস্যুতে আবারো রাশিয়ার ভেটো

হারিরির সৌদি আরব ত্যাগ

ঢাকায় চীন-বাংলাদেশ বৈঠক শুরু

প্যারাডাইস পেপারসে শিল্পপতি মিন্টু ও তার পরিবারের নাম

ঝুঁকিপূর্ণ উপায়ে আসছে রোহিঙ্গারা, ইউএনএইচসিআরের উদ্বেগ

নৌকায় বসেই ভাষণ দেবেন শেখ হাসিনা

ইবিতে ছাত্রদল-ছাত্রলীগ সংঘর্ষ-ভাংচুর

নিজ দলে বিদ্রোহ, আজ মুগাবের পদত্যাগ দাবিতে বিক্ষোভ

ছাত্রদল সাধারণ সম্পাদক গ্রেপ্তার

ইরাক ও ইসরায়েল সুন্দরী একসঙ্গে সেলফি তুলে বিপাকে

‘বিএনপিকে দূরে রেখে নির্বাচনের ষড়যন্ত্র করা হচ্ছে’