লন্ডনে বিসিএ অ্যাওয়ার্ড প্রদান অনুষ্ঠানে বক্তারা

কারি শিল্পের চ্যালেঞ্জ মোকাবিলায় একসঙ্গে কাজ করতে হবে

প্রবাসীদের কথা

লন্ডন প্রতিনিধি | ২ ডিসেম্বর ২০১৬, শুক্রবার | সর্বশেষ আপডেট: ৮:৪৬
বৃটেনে বাংলাদেশি কারি শিল্পের নানামুখী চ্যালেঞ্জের কথা জানিয়ে বক্তারা বলেছেন, এই শিল্পের সামনে নানা চ্যালেঞ্জ আসছে। এসব চ্যালেঞ্জ মোকাবিলায় সবাইকে একসঙ্গে কাজ করতে হবে। বৃটেনে বাংলাদেশি কমিউনিটির সবচেয়ে বৃহৎ ও প্রাচীনতম সংগঠন বাংলাদেশ ক্যাটারার্স এসোসিয়েশন বিসিএ’র ১১তম বার্ষিক গালা ডিনার এবং অ্যাওয়ার্ড প্রদান অনুষ্ঠানে বক্তারা এসব কথা বলেন। জাঁকজমকপূর্ণ এ অনুষ্ঠানটি গত রোববার সেন্ট্রাল লন্ডনের অভিজাত পার্ক প্লাজা হোটেলে অনুষ্ঠিত হয়। আইরিশ কুকিং কুইন খ্যাত র‌্যাচেল এ্যালিন এবং সেলিব্রেটি টিভি ব্যক্তিত্ব রাইটার রাজ গাইর যৌথ পরিচালনায় অনুষ্ঠানে বিশিষ্ট ব্যক্তিবর্গ, রাজনীতিবিদ, মিডিয়া ব্যক্তিত্ব ও কারি শিল্পের সফল ব্যক্তিরা অংশ নেন। অনুষ্ঠানে নির্বাচিত সেরা কারি শিল্পীদের হাতে তুলে দেয়া হয় বিসিএ অ্যাওয়ার্ড।
অনুষ্ঠানে বৃটেনের ব্রেক্সিট সেক্রেটারি ডেভিড ডেভিস বলেছেন, বাংলাদেশি কারি শিল্পের উন্নয়নে সরকার আন্তরিক। দেশের অর্থনীতির স্বার্থে এই শিল্পকে বাঁচিয়ে রাখতে হবে। কর্মসংস্থানসহ নানা ক্ষেত্রে ভূমিকা রাখছে এই শিল্প উল্লেখ করে তিনি বলেন, ব্রেক্সিট বাস্তবায়নেও কারি ইন্ডাস্ট্রিকে গুরুত্বসহকারে বিবেচনা করা হবে। মোট তিন ক্যাটাগরিতে দেয়া অ্যাওয়ার্ডের মধ্যে ৯ জনকে বিসিএ শেফ অব দ্য ইয়ার অ্যাওয়ার্ড, ১১ জনকে বিসিএ রেস্টুরেন্ট অব দ্য ইয়ার অ্যাওয়ার্ড এবং কারি শিল্পে অবদানের স্বীকৃতি হিসেবে ২ বিশিষ্ট ব্যক্তিকে প্রদান করা হয়েছে বিসিএ অনার অব দ্য ইয়ার অ্যাওয়ার্ড। কারি শিল্পে বিশেষ অবদানের স্বীকৃতি হিসেবে চলতি বছর ওনার অব দ্য ইয়ার প্রদান করা হয়েছে, মাইক পেনিং এমপি এবং গয়াছ মিয়াকে। অতিথিদের স্বাগত জানিয়ে অনুষ্ঠানের সূচনা করেন বিসিএ অ্যাওয়ার্ড কমিটির আহ্বায়ক ও সিনিয়র ভাইস প্রেসিডেন্ট কামাল ইয়াকুব। পরে কারি শিল্পের নানা সমস্যা ও সম্ভাবনার চিত্র তুলে ধরে স্বাগত বক্তব্য রাখেন বিসিএ’র প্রেসিডেন্ট পাশা খন্দকার। তিনি বলেন, বাংলাদেশি কমিউনিটির প্রাণ, এই শিল্প বৃটিশ অর্থনীতিতে একটি উল্লেখযোগ্য অবদান রেখে যাচ্ছে। বৃটেনে গুরুত্বপূর্ণ কর্মসংস্থানের খাত হিসেবেও বাংলাদেশি কারি শিল্পের ভূমিকা রয়েছে। তিনি বলেন, কারি ইন্ডাস্ট্রির স্বার্থে এবং ইমিগ্রেশন সুবিধা নিয়ে আসতে ব্রেক্সিটের পক্ষে ছিলেন। তাই এখনো আশা ছাড়তে রাজি নন তিনি। বিদেশি শেফ আনার ক্ষেত্রে পয়েন্টবেইজ সিস্টেম চালু’র সম্ভাবনার কথাও বলেন তিনি। অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন- কুবরা বিয়ারের স্বত্বাধিকারী লর্ড কারেন বিলোমুরিয়া, হলবর্ন অ্যান্ড সেন্ট পেক্রাসের এমপি কিয়ার স্টারমার এমপি, অল পার্টি পার্লামেন্টারি কারি গ্রুপের চেয়ারম্যান পল স্কালী এমপি, যুক্তরাজ্যে নিযুক্ত বাংলাদেশের হাই কমিশনার ও বিসিএ’র পেট্রন নাজমুল কাউনাইন, বিসিএ’র সেক্রেটারি জেনারেল এমএ মুনিম। বক্তারা কারি শিল্পের বর্তমান সমস্যাকে ইমিগ্রেশন নয়, অর্থনৈতিক সংকট হিসেবে বিবেচনা করতে সরকারকে দ্রুত এই সংকট সমাধানে দলমত নির্বিশেষে সকলের প্রতি আহ্বান জানান। ৯ জন বিসিএ শেফ অব দ্য ইয়ার  অ্যাওয়ার্ডস এর মধ্যে দ্বিতীয় স্থান  অর্জন করেন নবীগঞ্জের হাবীব চৌধুরী।
উল্লেখ্য, কারি শিল্পের সবচেয়ে পুরনো ও প্রচীন সংগঠন বাংলাদেশ ক্যাটারার্স এসোসিয়েশন বিসিএ প্রতিষ্ঠা করা হয় ১৯৬০ সালে। বর্তমানে এই সংগঠনটি প্রতিনিধিত্ব করছে বৃটেনের ১২ হাজার রেস্টুরেন্ট এবং টেইকওয়ে প্রতিষ্ঠান। এই শিল্পের সঙ্গে কর্মরত আছেন প্রায় ৯০ হাজার মানুষ।

এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

আপনার মতামত দিন

বিদেশি হস্তক্ষেপ রোহিঙ্গা সমস্যার সমাধান হবে না : বেইজিং

ছাত্রলীগ নেতাসহ তিনজন চারদিনের রিমান্ডে

সোনাজয়ী শুটার হায়দার আলী আর নেই

মালয়েশিয়ায় ভূমি ধসে তিন বাংলাদেশি নিহত

নিউমোনিয়ায় আক্রান্ত মুক্তামনি

খাল থেকে উদ্ধার হলো হৃদয়ের লাশ

রোহিঙ্গা সঙ্কট সমাধানকে কঠিন পর্যায়ে নিয়ে গেছে সরকার: খসরু

সঙ্কট সমাধানে প্রয়োজন পরিবর্তন: দুদু

চোখের চিকিৎসা করাতে লন্ডনে গেলেন প্রেসিডেন্ট

সন্ত্রাসী, চাঁদাবাজ আওয়ামী লীগের সদস্য হতে পারবে না

বৌদ্ধ ভিক্ষু সেজে কয়েক শত কিশোরীর সঙ্গে যৌন সম্পর্ক

৫০ বছরের মধ্যে জাপানে কানাডার প্রথম সাবমেরিন

ছিচকে চোর থেকে মাদক সম্রাট!

বোতলে ভরা চিঠি সমুদ্র ফিরিয়ে দিল ২৯ বছর পর!

কার সমালোচনা করলেন বুশ, ওবামা!

জুমের মাধ্যমে পেমেন্ট নিতে পারবেনা বাংলাদেশের ফ্রিল্যান্সাররা