নোট বাতিল নিয়ে জনতার দরবারে মোদি

ভারত

কলকাতা প্রতিনিধি | ২৩ নভেম্বর ২০১৬, বুধবার
ভারতে বড় অঙ্কের নোট বাতিলের ফলে সাধারণ মানুষ প্রবল দুর্ভোগে পড়েছেন বলে বিরোধীরা যে প্রচার চালাচ্ছেন তার পাল্টা হিসেবে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি সরাসরি জনতার মত নিচ্ছেন। গত কয়েকদিন ধরে সংসদের শীতকালীন অধিবেশনের সব কাজকর্ম লাটে তুলে বিরোধীরা একাট্টা হয়ে নোট বাতিলের প্রতিবাদে শামিল হয়েছেন। মঙ্গলবারেও সংসদের দুই কক্ষের চিত্রটা ছিল একই রকম। তবে এই সময়েই প্রধানমন্ত্রী সাধারণ মানুষের মতামত জানতে চেয়েছেন। ঘোষণা করেছেন, স্মার্ট ফোনে ‘নরেন্দ্র মোদি’ অ্যাপে জানানো যাবে নোট বাতিল নিয়ে দেশবাসীর মতামত। যে কেউ রেট দিয়ে মতামত জানাতে পারবেন।
মোদি তার টুইটে জানিয়েছেন, নোট বাতিল নিয়ে সরাসরি আপনাদের মতামত নিতে চাই। এন এম অ্যাপে জরিপে অংশ নিন। অ্যাপে রয়েছে বেশ কয়েকটি প্রশ্ন। যেমন: আপনি কি মনে করেন দেশে কালো টাকা রয়েছে? বা আপনি কি মনে করেন দুর্নীতি এবং কালো টাকার বিরুদ্ধে লড়াই করে তা দূর করা দরকার? বা মোদি সরকারের ৫০০ এবং হাজার টাকার নোট বাতিল নিয়ে আপনি কী ভাবছেন? এরাই পাশাপাশি প্রধানমন্ত্রী জানতে চেয়েছেন, নোট বাতিল নিয়ে কোনও ভাবনা বা পরামর্শ রয়েছে কিনা? বিরোধীদের আনা অভিযোগ নিয়েও মোদি জানতে চেয়েছেন, দুর্নীতি, কালো টাকা, সন্ত্রাসবাদ রুখতে নোট বাতিল করার পর অসুবিধা হয়েছে কিনা? কয়েকদিন আগেই অবশ্য দেশবাসীর কাছে ৫০ দিন সময় চেয়ে নিয়েছিলেন। বলেছিলেন, সাময়িক অসসুবিধা হলেও তা মিটে যাবে। আর ৫০ দিনেও সমস্যা না মিটলে তিনি যে কোনো শাস্তি মাথা পেতে নিতে রাজি বলেও জানিয়েছিলেন। এদিকে মঙ্গলবারই প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির নোট বাতিলের সিদ্ধান্তকে সমর্থন জানিয়েছে বিজেপির সংসদীয় বোর্ড। গৃহীত প্রস্তাবে এই  সিদ্ধান্তকে  ‘ঐতিহাসিক, বৈপ্লবিক এবং দরিদ্র মানুষের স্বার্থবাহী’ বলে উল্লেখ করা হয়েছে। প্রস্তাবে আরও বলা হয়েছে, বিরোধী রাজনৈতিক দলগুলোকে ঠিক করতে হবে তারা গরিব মানুষের পাশে থাকবেন নাকি কালো টাকার কারবারিদের স্বার্থ দেখবেন। এই সাহসী সিদ্ধান্তের ফলে সন্ত্রাসবাদী এবং উগ্রপন্থিদের অর্থ সরবরাহ বন্ধ হবে। দুর্নীতিগ্রস্তদের কাছে কঠোর বার্তা দেয়া যাবে।

এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

আপনার মতামত দিন