এবার সপ্তাহে ৪ দিন মৈত্রী এক্সপ্রেস

ভারত

পরিতোষ পাল, কলকাতা থেকে | ৬ নভেম্বর ২০১৬, রবিবার | সর্বশেষ আপডেট: ২:৫৩
এবার থেকে ঢাকা ও কলকাতার মধ্যে সপ্তাহে চারদিন মৈত্রী এক্সপ্রেস চলাচল করবে। আগামী ১১ই নভেম্বর ভারতের রেলমন্ত্রী সুরেশ প্রভু ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে এই বর্ধিত রেলযাত্রার সূচনা করবেন বলে রেল মন্ত্রক সূত্রে জানা গেছে। এ বছরের আগস্টে ঢাকায় অনুষ্ঠিত দুই দেশের রেল আধিকারিক ও সংশ্লিষ্ট মন্ত্রকের প্রতিনিধিদের বৈঠকে এই সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে। ভারতীয় রেল বোর্ডের এক্সিকিউটিভ ডিরেক্টর (ট্রাফিক ও ট্রেনস)  পূর্ব রেলওয়ের জেনারেল ম্যানেজারকে এক চিঠিতে এই সিদ্ধান্তের কথা জানিয়েছেন। এতদিন মৈত্রী এক্সপ্রেস কলকাতা স্টেশন থেকে মঙ্গল, শনি ও সোমবার ছেড়ে যেতো এবং ঢাকা থেকে কলকাতায় আসতো বুধ, শুক্র এবং রোববার। এখন থেকে প্রতি শুক্রবারও কলকাতা থেকে মৈত্রী এক্সপ্রেস ছাড়বে এবং শনিবার ঢাকা থেকে ফিরে আসবে। রেলওয়ে সূত্রে জানা গেছে, বাংলাদেশ ও ভারতের মধ্যে সাধারণ মানুষের যাতায়াত আগের তুলনায় বেশ কয়েকগুণ বৃদ্ধি পেয়েছে। তাছাড়া বাংলাদেশে ভারতীয় পর্যটকদের যাতায়াতও অনেক বৃিদ্ধ পেয়েছে। কলকাতায় বাংলাদেশ উপদূতাবাস থেকে প্রতিদিন প্রায় চারশ-পাঁচশ মানুষকে ভিসা দেয়া হয়। তাছাড়া বাসের করে ঢাকা ও কলকাতার মধ্যে যাতায়াতের ভাড়াও বেশ বৃদ্ধি পেয়েছে। সেই তুলনায় ট্রেনের বাড়া অনেকটাই কম। ফলে ট্রেনে যাত্রী সংখ্যার চাপ অনেকটাই বৃদ্ধি পেয়েছে। ২০০৮ সালের ১৪ এপ্রিল বাংলা নববর্ষের দিন থেকে কলকাতা ও ঢাকার মধ্যে এই মৈত্রী একপ্রেস চলাচল শুরু হয়েছিল। প্রথম দিকে সামান্য কয়েকজন যাত্রী নিয়ে ট্রেন চলায় এই ট্রেনের ভবিষ্যৎ নিয়ে রেল আধিকারিকরা চিন্তায় পড়ে গিয়েছিলেন। সীমান্তে ইমিগ্রেশন ও শুল্ক বিভাগের কাজের জন্য প্রায় ৫ ঘণ্টা সময় ব্যয়ও ক্ষোভের সৃষ্টি করেছিল। আস্তে আস্তে অবশ্য সীমান্তে চেকিংয়ের সময় অনেকটাই কমিয়ে আনা হয়েছে। এরপর থেকেই যাত্রী সংখ্যা বেড়ে চলেছে। তবে টিকিট কাটা নিয়ে যাত্রীদের বিস্তর ক্ষোভ রয়েছে। প্রতিদিন কলকাতায় ফেয়ারলি প্লেসের কাউন্টারে সকাল থেকে লাইন দিয়েও অনেক সময় ফিরে আসতে হচ্ছে টিকিট না পেয়ে। প্রতিদিন নির্দিষ্টসংখ্যক ট্রেনের টিকিট ইস্যু করা নিয়েও ক্ষোভ রয়েছে।
এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

আপনার মতামত দিন