আখাউড়া ও আগরতলার মধ্যে ট্রেন চলবে ২০১৮ সালের শেষে

ভারত

কলকাতা প্রতিনিধি | ২৩ অক্টোবর ২০১৬, রবিবার
আখাউড়া ও আগরতলার মধ্যে আগামী ২০১৮ সালের শেষাশেষি নাগাদ ট্রেন চালু হবে। সম্প্রতি আগরতলায় অনুষ্ঠিত দু’দিনের বৈঠকে বাংলাদেশ ও ভারতের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় ও রেল আধিকারিকদের বৈঠকে এ লক্ষ্য নির্ধারণ করা হয়েছে। বৈঠক শেষে আশা প্রকাশ করা হয়েছে, এই ট্রেন চালু হলে বাংলাদেশের পণ্য উত্তর-পূর্ব ভারতে সরাসরি পৌঁছাতে পারবে। এর ফলে বাণিজ্য বৃদ্ধি সম্ভব হবে। তেমনি ভারতের পণ্যও বাংলাদেশে সহজেই যেতে পারবে। ট্রান্স এশিয়া রেলওয়ে নেটওয়ার্কের অংশ হিসেবেই এটি নির্মিত হচ্ছে। আর তাই দুই দেশের প্রধানমন্ত্রীর দপ্তর এই প্রকল্প রূপায়ণের ব্যাপারে নজরদারি করছেন বলে জানা গেছে। প্রজেক্ট স্টিয়ারিং কমিটির এই বৈঠকে বাংলাদেশের ৮ সদস্যের প্রতিনিধিদলের নেতৃত্ব দিয়েছেন অতিরিক্ত সচিব শশী কুমার সিংহ এবং ভারতের ১০ সদস্যের প্রতিনিধিদলের নেতৃত্ব দিয়েছেন পররাষ্ট্র মন্ত্রকের যুগ্ম সচিব অজিত কুমার গুপ্ত। দুই দেশের বৈঠকে এই রেলপ্রকল্প কিভাবে কার্যকর করা হবে তার নানাদিক নিয়ে আলোচনা হয়েছে বলে জানা গেছে। ১৫ কিলোমিটার এই রেলপথ নির্মাণের জন্য ভারত সরকার অর্থ দিচ্ছে। মোট খরচ হবে ৯৭২ কোটি ৫২ লাখ রুপি। বৈঠক শেষে বাংলাদেশ প্রতিনিধিদলের নেতা শশী কুমার সিংহ জানিয়েছেন, এই কানেকটিভি দুই দেশের পক্ষেই খুব গুরুত্বপূর্ণ। এর ফলে দ্বিপাক্ষিক বাণিজ্যের ক্ষেত্রে যেমন গতি আসবে তেমনি দুই দেশের মানুষের মধ্যে যোগাযোগও বাড়বে। ভারতের যুগ্ম সচিব জানিয়েছেন, প্রকল্পের ক্ষেত্রে জমি অধিগ্রহণসহ সব সমস্যা যেমন আলোচিত হয়েছে তেমনি এই প্রকল্প শেষ করার জন্য লক্ষ্যও নির্ধারিত হয়েছে। তিনি আরো জানিয়েছেন, এই রেলপথ নির্মাণের জন্য দুই দেশেই সংশ্লিষ্ট সব মন্ত্রকের অনুমোদন পাওয়া গিয়েছে। দরপত্র ডাকা ও কিভাবে কাজ বণ্টন করা হবে তা নিয়েও আলোচনা হয়েছে বলে জানা গেছে। ভারতের ৫ কিলোমিটার অংশের জমি অধিগ্রহণের কাজ এ বছরেই শুরু হবে। বাংলাদেশের অংশের ১০ কিলোমিটারের জন্য জমি অধিগ্রহণ শুরু হয়েছে। আগামী জুনের মধ্যেই এই অধিগ্রহণ কাজ সম্পন্ন হওয়ার পরই ঠিকাদার সংস্থাকে দায়িত্ব দেয়া হবে। উল্লেখ্য, বাংলাদেশ ও ভারতের মধ্যে সাতটি জায়গা দিয়ে রেল যোগাযোগ রয়েছে। তবে তার মধ্যে তিনটি বর্তমানে চালু রয়েছে।

 
এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

আপনার মতামত দিন