লন্ডনে ড. একে আবদুল মুমিন

‘বাংলাদেশ নাগরিকত্ব খসড়া আইন ২০১৬ দুরভিসন্ধিমূলক ’

প্রবাসীদের কথা

লন্ডন থেকে প্রতিনিধি | ৭ অক্টোবর ২০১৬, শুক্রবার
জাতিসংঘের সাবেক বাংলাদেশ অ্যাম্বাসেডর ও স্থায়ী প্রতিনিধি ড. একে আবদুল মোমিন বলেছেন, ‘বাংলাদেশ নাগরিকত্ব খসড়া আইন ২০১৬’ দুরভিসন্ধিমূলক। কিছু স্বার্থপর ও ধুরন্ধর প্রকৃতির লোক প্রবাসীদের কাছ থেকে ফায়দা হাসিলের সুবিধা রেখে আইনটি প্রণয়নের চেষ্টা করছে। তিনি বলেন, বহির্বিশ্বে ৯৫ লাখ বাংলাদেশি বসবাস করেন। এ ব্যাপারে প্রবাসীরা ঐক্যবদ্ধ হলে সরকার আইন পাস করতে পারবে না। তিনি গত ৩রা অক্টোবর সোমবার সন্ধ্যায় পূর্ব লন্ডনের ইম্প্রেশন ইভেন্ট ভেন্যুতে জালালাবাদ প্রবাসী কল্যাণ পরিষদ আয়োজিত মতবিনিময় সভায় কথাগুলো বলেন। ড. আবদুল মোমিন বলেন, বাংলাদেশে কয়েকজন মন্ত্রীর সঙ্গে কথা বলেছি।
তারাও এই আইনের ব্যাপারে কিছু জানেন না। অনেকেই উল্টো আমাকে প্রশ্ন করেছেন, আইন কি হয়ে গেছে। তিনি বলেন, আইনটি প্রণয়নের পেছনে কোনো রহস্য আছে। এটা কেমন যেন গোলকধাঁধার মতো মনে হচ্ছে। আবদুল মুমিন বলেন, জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান সারাজীবন মানুষের অধিকার আদায়ের সংগ্রামে নিজেকে উৎসর্গ করে গিয়েছিলেন। আমরা তারই উত্তরসূরি। তাই আমাদেরকে অধিকার আদায়ের আন্দোলনে সোচ্চার হতে হবে। তিনি আইনের অসামঞ্জস্য দিকগুলো সরকারের কাছে তুলে ধরার আহ্বান জানান। তিনি বলেন, বাংলাদেশের স্বাধীনতা সংগ্রামে প্রবাসীদের অবদান অপরিসীম। জালালাবাদ প্রবাসী কল্যাণ পরিষদের সভাপতি আশিকুর রহমানের সভাপতিত্বে ও সেক্রেটারি মঈন উদ্দিন আনসারী ও আব্দুস সালামের যৌথ পরিচালনায় অনুষ্ঠিত মতবিনিময় সভায় অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন টাওয়ার হ্যামলেটস কাউন্সিলের নির্বাহী মেয়র জন বিগস, জিএলএ মেম্বার উমেশ দেশাই, শিক্ষাবিদ শাহগীর বক্ত ফারুক ও সংগঠনের সিনিয়র ভাইস প্রেসিডেন্ট হিরণ মিয়া। সভায় বাংলাদেশ নাগরিকত্ব খসড়া আইন সম্পর্কে বিস্তারিত তুলে ধরেন ব্যারিস্টার নাজির আহমদ ও ব্যারিস্টার মাসুদ আহমদ। বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশ বিমান যুক্তরাজ্যের কান্ট্রি ম্যানেজার শফিকুল ইসলাম, বৃটিশ-বাংলাদেশি ক্যাটারার্স অ্যাসোসিয়েশনের সেক্রেটারি শাহানুর খান, কমিউনিটি নেতা আবু তাহের চৌধুরী, বাংলাদেশ হিউম্যান রাইটস ইউকের চেয়ারম্যান আবদুল আহাদ চৌধুরী ও বাংলা টিভির সিইও মনোয়ার মঈনুল।

 

এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

আপনার মতামত দিন