ভিজিট বাংলাদেশ মধ্যপ্রাচ্যের মানুষকে বাংলাদেশ দেখার আমন্ত্রণ

প্রবাসীদের কথা

মোবারক হোসেন ভুঁইয়া, জেদ্দা থেকে | ৩ সেপ্টেম্বর ২০১৬, শনিবার
নৈসর্গিক সৌন্দর্য্যের লীলাভূমি বাংলাদেশের পর্যটন খাতকে সৌদি আরবসহ মধ্যপ্রাচ্যে জনপ্রিয় করে তুলতে গত ২৭শে আগষ্ট শনিবার ‘ভিজিট বাংলাদেশ’ শ্লোগান নিয়ে ঢাকার কৃষিবিদ গ্রুপ এর ট্যুরস এন্ড ট্রাভেলস এবং জেদ্দার দিয়াফাহ হলি ডেইজ এর যৌথ উদ্যোগে জেদ্দার তাহলিয়ায় রাহমা রেষ্টুরেন্টে এক ব্যতিক্রমধর্মী অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। বাংলাদেশের পর্যটন শিল্পকে তুলে ধরার জন্য কৃষিবিদ গ্রুপ এর ম্যানেজিং ডিরেক্টর মাহবুর রহমানের দীর্ঘ প্রচেষ্টার বাস্তবতা ছিল আয়োজিত এ অনুষ্ঠানটি।

জেদ্দায় বাংলাদেশ কনস্যুলেটের সার্বিক সহযোগিতায় আয়োজিত এ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন জেদ্দায় বাংলাদেশ কনস্যুলেটের লেবার কাউন্সিলর মুহাম্মদ রেজা ই রাব্বি ও বিশেষ অতিথি ছিলেন বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্স এর রিজিওনাল ম্যানেজার মোহাম্মাদ আলী ওসমান নুর। দিয়াফাহ হলি ডেইজ ট্যুরস এন্ড ট্রাভেলস এর জেনারেল ম্যানেজার মোহাম্মাদ খালেদ সাইফুদ্দিন এর সভাপতিত্বে দুপুর একটায় শুরু হওয়া এ অনুষ্ঠানে সৌদি নাগরিকসহ যোগ দেন জেদ্দার কম্যুউনিটি ব্যক্তিত্বসহ আরও খ্যাতনামা ট্রাভেলস এজেন্সী, ট্যুস অপারেটর ও অনেক উচ্চপদস্থ কর্মকর্তারা।

দিয়াফাহ হলি ডেইজ এর সেলস এন্ড মার্কেটিং ম্যানেজার আনোয়ার হোসাইন মজুমদারের উপস্থাপনায় পরিচালিত অনুষ্ঠানটিতে কোরান তেলাওয়াত করেন, বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের  এক্সিকিউটিভ সেক্রেটারি শফিকুল ইসলাম। অনুষ্ঠানটির শুরুতেই কৃষিবিদ গ্রুপ এর ম্যানেজিং ডিরেক্টর ও ট্যুরস ডিভিশনের কর্মকর্তা মাহবুবুর রহমান প্রজেক্টরের মাধ্যমে বাংলাদেশের প্রাকৃতিক সৌন্দর্য্যকে আকর্ষণীয় বর্ণনাশৈলীর মাধ্যমে তুলে ধরলে অংশগ্রহকারীদের মধ্যে আগ্রহের সৃষ্টি হয়। সুন্দরবনের অপরুপ সৌন্দর্য্য, প্রকৃতির চাদরে ঢাকা সিলেটের চা বাগানের মনোরম দৃশ্য, আতিথেয়তাপ্রিয় বাংলাদেশের মানুষদের কারুকার্যখচিত বিভিন্ন কর্ম ও জীবনচিত্র, নদীর বুক চিরে ছুটে চলা বিলাসবহুল লঞ্চ থেকে তীর ঘেষে দু’ধারে গড়ে উঠা জনবসতি, সিলেট, ঢাকাসহ দেশের বিভিন্ন জায়গায় বিশ্বমানের হোটেলগুলোসহ ভিডিওতে উঠে আসা এক ঝলক বাংলাদেশকে দেখে বিমোহিত হন উপস্থিত দর্শকরা। উপস্থিত অতিথিদেরকে একটি করে সিডি উপহার দেয়া হয়।

এমন  ব্যতিক্রমধর্মী অনুষ্ঠানের আকর্ষণীয় উপস্থাপনা আর তাকলাগানো প্রাকৃতিক সৌন্দর্য্যৈকে তুলে ধরার সময়েই উপস্থিত দর্শকদের অনেকেই বাংলাদেশে পর্যটক হিসেবে ভ্রমণ করার সদিচ্ছা প্রকাশ করেন। অনেকেই বাংলাদেশের আকর্ষনীয় পর্যটনকে সবার কাছে পৌঁছে দেয়ার প্রস্তাব দেন। প্রধান অতিথি মুহাম্মদ রেজা ই রাব্বি পর্যটকদের ভিসাসহ যে কোন বিষয়ে সাবির্ক সহযোগিতার আশ্বাস দেন। বাংলাদেশের পর্যটনকে বিশ্ব দরবারে পরিচয় করে দেবার প্রয়াসকে স্বাগত জানিয়ে কৃষিবিদ গ্রুপ ও দিয়াফাহ হলি ডেইজ এর ভূয়সী প্রশংসা করেন তিনি। তিনি বলেন, নিজের দেশকে প্রমোট করার জন্য আমরা আপনাদের সাথে ছিলাম, আছি এবং থাকবো।

বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্স জেদ্দার রিজিউনাল ম্যানেজার মোহাম্মাদ আলী ওসমান নুর বলেন, বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্স সব সময় আপনাদের সাথেই আছে। আকাশে বিমানের অন বোর্ড আতিথেয়তা বিশ্বনন্দিত। যেহেতু বাংলাদেশের পর্যটনকে বিশ্ব দরবারে তুলে ধরার জন্য একজন নাগরিক ও বিমানের ম্যানেজার হিসেবে আমাদের নৈতিক দায়িত্ব ও কর্তব্য, তাই আমি নিশ্চয়তা দিচ্ছি- বিমানে যাওয়া এবং আসার সময় আতিথেয়তার মাধ্যমে আপনার ভ্রমণকে প্রানবন্ত এবং আনন্দদায়ক করার ক্ষেত্রে আমরা আন্তরিক থাকবো এবং আপনাদের আমন্ত্রণ জানাচ্ছি। অনুষ্ঠান শেষ হওয়ার আগে অংশগ্রহণকারীরা বাংলাদেশের পর্যটন শিল্পকে এগিয়ে নিয়ে নানা পরামর্শ দেন।

সভাপতির ভাষনে মোহাম্মাদ খালেদ সাইফুদ্দিন উপস্থিত সব ট্যুর অপারেটরসহ সবাইকে এগিয়ে আসার আহবান জানান। স্মৃতিচারন করে তিনি বলেন, বাংলাদেশে পর্যটককে চমকে দেয়ার মত অনেক উপাদান রয়েছে। আমরা যদি এ নতুন গন্তব্যকে সবার নিকট তুলে ধরতে পারি তাহলে ব্যবসায়িক সাফল্যের নতুন দ্বার উম্মোচন করার জন্য এ অনুষ্ঠানটি একটি মাইলফলক হয়ে থাকবে। মধ্যাহ্নভোজের মাধ্যমে অনুষ্ঠানটি বিকেল সাড়ে তিনটায় শেষ হয়।
এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

আপনার মতামত দিন