বাহুবলে ভয়াবহ সংঘর্ষে ১৯ পুলিশসহ শতাধিক আহত, আটক ৪৯

স্টাফ রিপোর্টার, হবিগঞ্জ থেকে

বাংলারজমিন ২৭ মে ২০২০, বুধবার

হবিগঞ্জের বাহুবলে জমিতে হাঁসের ধান খাওয়া নিয়ে দু’গ্রামবাসীর ভয়াবহ সংঘর্ষে ১৯ পুলিশসহ শতাধিক লোক আহত হয়েছেন। বুধবার দুপুরে এ সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। পরে পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌছে ১শ’ ১৫ রাউন্ড রাবার বুলেট ও ৫৩ রাউন্ড টিয়ারসেল নিক্ষেপ করে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। সংঘর্ষের ঘটনায় উভয়পক্ষের ৪৯ জনকে আটক করেছে পুলিশ।
জানা যায়, উপজেলার অলুয়া গ্রামের মর্তুজ আলীর ধানের জমিতে সকালে একদল হাঁস উঠে ফসল নষ্ট করে। এনিয়ে হাঁসের মালিক ভেড়াখাল গ্রামের আমান উল্লার সাথে মর্তুজ আলীর বাকবিতন্ডা থেকে চ্যালেঞ্জ পাল্টা চ্যালেঞ্জের ঘটনা ঘটে। এর জের ধরে আলুয়া ও ভেড়াখাল গ্রামবাসী দেশীয় অস্ত্রশস্ত্র নিয়ে রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষে লিপ্ত হয়। ২ ঘন্টাব্যাপী স্থায়ী সংঘর্ষে বাহুবল থানার দুই এসআইসহ ১৯ পুলিশ আহত হয়। সংঘর্ষের খবর পেয়ে বাহুবল-নবীগঞ্জ সার্কেলের এএসপি পারভেজ আলম চৌধুরীর নেতৃতে বাহুবল মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মোহাম্মদ কামরুজ্জামান, ওসি (তদন্ত) আলমগীর কবিরসহ একদল দাঙ্গা পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌছে।
দীর্ঘ চেষ্টার পর ১শ’ ১৫ রাউন্ড রাবার বুলেট ও ৫৩ রাউন্ড টিয়ারসেল নিক্ষেপ করে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। সংঘর্ষে গুরুতর আহত এসআই শহীদুল ইসলামকে সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। এছাড়া আহত এসআই শাহ আলীসহ অন্যান্য আহতদের বাহুবল উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স ও হবিগঞ্জ আধুনিক সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।
এ ব্যাপারে বাহুবল মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মোহাম্মদ কামরুজ্জামান জানান, বর্তমানে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে রয়েছে। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে এলাকায় পুলিশ মোতায়েন রয়েছে। এছাড়া পুলিশ এসল্ট মামলা প্রক্রিয়াধীন রয়েছে। যারা এ দাঙ্গার সাথে জড়িত ছিলেন তাদের সবাইকে গ্রেফতার করা হবে।

পাঠকের মতামত

**মন্তব্য সমূহ পাঠকের একান্ত ব্যক্তিগত। এর জন্য সম্পাদক দায়ী নন।

SJ

২০২০-০৫-২৮ ০৩:০৭:০০

যে সকল ঠুনকো বিষয় নিয়ে যেমন হয়ে চলছে তাতে দুর্ঘটনার পরে বিচার করলে থামবে না । আইনের উপশাখা বের করে আগাম বিচার করে আটকিয়ে দিতে হবে । প্রতিজন জড়িত বেক্তিদের লিখিত আঙ্গিকার নামায় বন্ড সই রেখে ছেরে দিতে হবে । দুই পক্ষের প্রথম শ্রেণীর ১০ + ১০ জনকে ১ লক্ষ টাকা জরিমানা গুনতে হবে যদি পরবর্তী এহেন দাঙ্গায় জড়িত হয় । পরবর্তী সকল জড়িতদের ৩০ হাজার টাকা করে জরিমানা গুনতে হবে । সকল জরিমানা সরকারি খাতে জমা পরবে । জরিমানা দিতে অসমর্থ হলে ১০+১০ = ২০ জন দুই বছরের শস্রম কারাদণ্ড বাকীরা ১ বছরের শস্রম কারাদণ্ড ভোগ করতে হবে । পবরতিতে দুই পক্ষ যদি মামলায় জড়ায় তা আদালতে বিচারাধীন থাকবে । ইহাই ঘটনা সম উপযুক্ত সমাধান । এমন পদক্ষেপ এই জন্যই যে , ঐ আঞ্চলে শান্তির পক্ষে কেউ নাই , সবাই উস্কে দেয়া মনে প্রানে পোষণ করে আসছে । এমনটা করে দিলে ঐ আঞ্চল সান্ত হয়ে উঠবে । আইনে নাই, আইনে নাই বললে সব সমাধান মিলে না । কার্যকলাপে উপস্থিত আইন প্রয়গ ধরকার হয় ।

আপনার মতামত দিন

বাংলারজমিন অন্যান্য খবর

অনুমোদন ছাড়াই সিসিসির মূল্যবান গাছ বিক্রয়

৪ জুলাই ২০২০

বিসিআইসির নিয়ন্ত্রণাধীন চট্টগ্রাম কেমিক্যাল কমপ্লেক্স (সিসিসি)র মূল্যবান ১৬টি গাছ কেটে নামমাত্র মূল্যে বিক্রির অভিযোগ উঠেছে। ...

কুমিল্লায় প্রকৌশলীকে লাঞ্ছিতের ঘটনায় জড়িতদের বিচার দাবি

৪ জুলাই ২০২০

কুমিল্লার দাউদকান্দি উপজেলা প্রকৌশলী মোহাম্মদ আহসান আলীকে তাঁর সরকারি অফিস কক্ষে প্রবেশ করে স্থানীয় কয়েকজন ...

নবাবগঞ্জে দু’পক্ষের সংঘর্ষ, আহত ৭

৪ জুলাই ২০২০

ঢাকার নবাবগঞ্জে নদীর ঘাটে গোসল করা নিয়ে দু’পক্ষের সংঘর্ষে অন্তত ৭ জন আহত হয়েছে। ...

নাঙ্গলকোটে মাছ ব্যবসায়ীর লাশ উদ্ধার

৪ জুলাই ২০২০

কুমিল্লার নাঙ্গলকোটে মহসিন ইউসুফ (৩৬) নামে এক মাছ ব্যবসায়ী ও পিকআপ ভ্যান মালিকের লাশ রায়কোট ...

আমতলীতে কৃষকদের মাঝে বিনামূল্যে বীজ বিতরণ

৪ জুলাই ২০২০

মুজিব শতবর্ষ উদযাপন ও প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনা মোতাবেক নানা কর্মসূচির অংশ হিসেবে বাংলাদেশ ধান গবেষণা ইনস্টিউট ...

বরিশালে যুবকের লাশ উদ্ধার

৪ জুলাই ২০২০

বরিশালের বাকেরগঞ্জে আজ্ঞাত এক যুবকের গলাকাটা লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। শুক্রবার বিকেলে বাকেরগঞ্জ উপজেলার কবাই ...



বাংলারজমিন সর্বাধিক পঠিত