ভারতের ৬টি রাজ্যে পঙ্গপালের হানা, দিল্লিতে রেড এলার্ট

কলকাতা প্রতিনিধি

ভারত ২৬ মে ২০২০, মঙ্গলবার

করোনা আতঙ্কের মধ্যেই পশ্চিম ও মধ্য ভারতের বিস্তীর্ণ অঞ্চলে ঝাঁকে ঝাঁকে পঙ্গপাল হানা দেওয়ায় তটস্থ প্রশাসন। জানা গেছে ভারতের ৬টি রাজ্যে ইতিমধ্যে হলুদ পঙ্গপালের বিশাল বিশাল ঝাঁক হানা দিয়েছে। গত ২৬ বছরের মধ্যে এবারই সবচেয়ে ভয়ঙ্কর হিসেবে পঙ্গপালের দল ভারতে হানা দিয়েছে বলে মনে করছেন বিশেষজ্ঞরা। রাজস্থান, পাঞ্জাব, হরিয়ানা, উত্তরপ্রদেশ, মধ্যপ্রদেশ ও মহারাষ্ট্রের একাধিক গ্রামে ও শহরে প্রবেশ করেছে পঙ্গপালের দল। ফসলের জমিতে হানা দিয়ে সাবার করে দিচ্ছে খাদ্য। পঙ্গপালের এই আক্রমণে শঙ্কিত কৃষকরা। বিভিন্ন রাজ্যে পঙ্গপাল যে হানা দিয়েছে সে ব্যাপারে গত সপ্তাহেই সতর্কবার্তা জারি করেছিল ভারতের পরিবেশ মন্ত্রক। আশঙ্কা করা হচ্ছে দেশটির রাজধানী দিল্লিতেও ঝাঁপিয়ে পড়তে পারে পঙ্গপালের দল।
সেখানে রেড এলার্ট জারি করা হয়েছে। পঙ্গপালের আক্রমণ ঠেকাতে রাজস্থানে আকাশ থেকে কীটনাশক স্প্রে করা হয়েছে। বিভিন্ন রাজ্যে ফসল বাঁচাতে ইতিমধ্যেই জমিতে কীটনাশক ব্যবহার করতে শুরু করেছেন কৃষকরা। মহারাষ্ট্রের কৃষি দপ্তরের জয়েন্ট-ডিরেক্টর রবীন্দ্র ভোঁসলে বলেছেন, পঙ্গপালরা খাবারের জন্য দিনের বেলায় ঝাঁকে ঝাঁকে উড়ে বেড়ায়। একেক ঝাঁকে কয়েক লাখ থেকে এক হাজার কোটি পতঙ্গ থাকতে পারে। আর যেখানে তারা একবার আক্রমণ করে, সেখানে খাদ্য শেষ না হওয়া পর্যন্ত যায় না। ফলে একবার কোনও এলাকায় পঙ্গপাল আক্রমণ করলে ফসলের দফারফা করে তবেই তারা অন্যত্র যায়। ২০১৯ সালেও গুজরাটে এমনি পঙ্গপালের ঝাঁক হামলা চালিয়েছিল। তার জেরে ২৫ হাজার হেক্টর জমির ফসল নষ্ট হয়েছিল ওই রাজ্যে। কিন্তু তার থেকেও এ বারের হানা আরও বেশি ভয়ঙ্কর বলেই মনে করা হচ্ছে। এবার এপ্রিলের ১০ তারিখে প্রথম পাকিস্তান পেরিয়ে রাজস্থানে ঢুকেছিল পঙ্গপালের দল। জয়পুর শহরেও দেখা গিয়েছিল পঙ্গপাল। এর পর তা ছড়িয়ে পড়েছে অন্যান্য রাজ্যে। সাধারণত জুলাই থেকে অক্টোবরের মধ্যে এ দেশে পঙ্গপাল দেখা যায়। কিন্তু এ বছর কিছুটা আগেই হানা দিয়েছে তারা। পতঙ্গবিদদের মতে, পঙ্গপাল গড়ে ৯০ দিন জীবিত থাকে। মরু পঙ্গপালের ঝাঁক দিনে ১৫০ কিমি পর্যন্ত উড়ে যেতে পারে। আর পঙ্গপালের এক একটি ঝাঁক প্রায় এক কিলোমিটার বিস্তৃত এলাকার জমির সব ধরণের ফসল সাবাড় করে দিতে পারে। একদিনে এরা প্রায় ৩৫ হাজার মানুষের খাবার সাবার করে দিতে পারে। বিশেষজ্ঞদের ধারণা, পূর্ব আফ্রিকা, দক্ষিণ-পশ্চিম এশিয়া এবং লোহিত সাগর সংলগ্ন এলাকায় অনুকূল আবহাওয়ার জেরেই পঙ্গপালের বিপুল প্রজনন ঘটেছে। আর সেই ধাক্কাই এখন সামলাতে হচ্ছে ভারতের অন্তত ৬টি রাজ্যকে।

পাঠকের মতামত

**মন্তব্য সমূহ পাঠকের একান্ত ব্যক্তিগত। এর জন্য সম্পাদক দায়ী নন।

A ,R ,Sarker

২০২০-০৫-২৭ ০৭:২০:৫৯

A Saboi ALLAH'r gojob.

Md. Harun Al-Rashid

২০২০-০৫-২৬ ২৩:০৫:২৬

আশংকা হয় না জানি এই পঙ্গপালের ধর্ম আবিস্কার করে আবার কি জানি কী হয়!

আপনার মতামত দিন

ভারত অন্যান্য খবর



ভারত সর্বাধিক পঠিত