পশ্চিমবঙ্গে প্রথম করোনায় আক্রান্ত চিকিৎসকের মৃত্যু

কলকাতা প্রতিনিধি

ভারত ২৬ এপ্রিল ২০২০, রোববার | সর্বশেষ আপডেট: ৮:৩১

পশ্চিমবঙ্গের হাসপাতালগুলিতে করোনা সংক্রমণ ছড়িয়ে পড়ায় চিকিৎসক, নার্স ও স্বাস্থ্য কর্মীরা করোনায় আক্রান্ত হচ্ছেন। তবে রাজ্যে এই প্রথম একজন চিকিৎসকের করোনায় মৃত্যু হয়েছে। শনিবার মধ্যরাতে হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিনি মারা গিয়েছেন। তিনি সেন্ট্রাল মেডিক্যাল স্টোরের দায়িত্বে ছিলেন। কয়েক দিন ধরে সল্টলেকের আমরিতে ভর্তি ছিলেন ওই চিকিৎসক। করোনার উপসর্গ দেখা দেওয়ায় তাঁকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছিল। লালারসের নমুনা পরীক্ষায় পজিটিভ ধরা পড়েছিল।  শনিবার সন্ধ্যা থেকে তাঁর শারীরিক অবস্থার অবনতি হওয়ায় ভেন্টিলেশনে স্থানান্তরিত করা হয়েছিল । ওই দিনই গভীর রাতে তাঁর মৃত্যু হয়েছে বলে হাসপাতাল সূত্রে খবর।
অবশ্য তাঁর মৃত্যু করোনায় নাকি কো-মর্বিডিটির কারণে সে বিষয়ে স্বাস্থ্যভবন সরকারিভাবে কিছু এখনও পর্যন্ত জানায়নি। স্বাস্থ্য দপ্তর সূত্রে জানা গিয়েছে, রাজ্যের বিভিন্ন হাসপাতালে বেশ কয়েকজন চিকিৎসক, নার্স, স্বাস্থ্যকর্মী করোনায় আক্রান্ত হয়ে চিকিৎসাধীন রয়েছেন। তবে তাঁরা আপাতত ভালই রয়েছেন বলে জানানো হয়েছে। এদিকে শনিবারই কলকাতার ন্যাশনাল মেডিক্যাল কলেজের এক ইন্টার্ন, কলকাতা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের নার্স, মিন্টো পার্কের একটি  বেসরকারি হাসপাতালের রাঁধুনি এবং স্কুল অব ট্রপিক্যাল মেডিসিনের (এসটিএম) স্টোর ইনচার্জ সংক্রমিত হয়েছেন। সংক্রমণের জেরে কলকাতা মেডিকেল কলেজ, এনআরএস মেডিকেল কলেজ, চার্নক হাসপাতাল কিছুদিনের জন্য বন্ধও রাখতে হয়েছে। হাসপাতালগুলিতে  সংক্রমণের জেরে বহু চিকিৎসক , নার্স ও স্বাস্থ্যকর্মীকে কোয়ারেন্টিনে পাঠানো হয়েছে। ফলে করোনা মোকাবিলায় স্বাস্থ্যকর্মীর সঙ্কট তৈরি হতে চলেছে। শনিবার স্বাস্থ্য দপ্তর প্রকাশিত বুলেটিনে  জানানো হয়েছে, রাজ্যে অ্যাক্টিভ করোনা-আক্রান্তের সংখ্যা ৪২৩। শুক্রবার যা ছিল ৩৬৫। ফলে এক দিনে অ্যাক্টিভ আক্রান্তের সংখ্যা ৫৮জন বৃদ্ধি পেয়েছে। করোনায় মৃত এবং অন্য কারণে করোনা-আক্রান্তের মৃত্যুর সংখ্যা ৫৭।

আপনার মতামত দিন

ভারত অন্যান্য খবর

করোনায় আক্রান্ত ভারতের প্রতিরক্ষা সচিব

৬ জুন ২০২০

দিল্লির বিভিন্ন সরকারি অফিসে ইতিমধ্যেই করোনা থাবা বসিয়েছে। তবে এই প্রথম করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন সর্বোচ্চ ...



ভারত সর্বাধিক পঠিত