সাহস নিয়ে ভোটকেন্দ্রে যেতে বললেন তাবিথ

স্টাফ রিপোর্টার

শেষের পাতা ২৬ জানুয়ারি ২০২০, রোববার | সর্বশেষ আপডেট: ১২:৫১

ইভিএমের ব্যাপারে আবারও জোর আপত্তি তুলেছেন ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনে বিএনপির মনোনীত প্রার্থী তাবিথ আউয়াল। তিনি বলেন, সব যুক্তিগুলো আমলে নিয়ে এ নির্বাচনের জন্য ইভিএম বন্ধ রাখুন। অন্তত এ নির্বাচনে ব্যালটে ভোট নিন। ভবিষ্যতে সব রাজনৈতিক দলগুলোর সঙ্গে আলাপ আলোচনা করে এ বিষয়ে করণীয় ঠিক করা যাবে।

গতকাল সকালে রাজধানীর পল্লবীর কাঁচাবাজারের সামনে নির্বাচনী গণসংযোগ শুরুর আগে এক পথসভায় তিনি এসব কথা বলেন। তাবিথের গণসংযোগ ও পথসভাকে কেন্দ্র করে স্থানীয় থানা পুুলিশ কঠোর নিরাপত্তা ব্যবস্থা গড়ে তোলে। আগে ও পেছনে পুলিশের শক্ত নিরাপত্তা বলয় ছিল। তাবিথ আউয়াল বলেন, নির্বাচন যায় আসে কিন্তু বস্তিবাসীদের কোন উন্নয়ন হয় না।

রাজধানীর বস্তিবাসীদের উচ্ছেদ করতে বারবার পরিকল্পিতভাবে আগুন লাগিয়ে দেয়া হচ্ছে।
একটি গোষ্ঠী এর সঙ্গে জড়িত। বস্তিবাসীরা অনেক কষ্টে আছেন। আমরা নির্বাচিত হতে পারলে তাদের পুনর্বাসন করবো। তাদের জন্য সব ধরনের পদক্ষেপ নিবো। তিনি আরও বলেন, গোটা শহরে আজকে পরিবর্তনের পক্ষে জোয়ার শুরু হয়েছে। সাধারণ ভোটারেরা ধানের শীষকে ভোট দেয়ার জন্য উম্মুখ হয়ে আছেন। মানুষ দুর্নীতি মুক্ত ঢাকা চাই। টেকসই উন্নয়ন ও নিরাপদ ঢাকা চাই। এজন্য তারা ধানের শীষকে নির্বাচিত করার জন্য ভোটের দিনের অপেক্ষা করছে। আমরা কর্তৃপক্ষকে বলবো আপনারা একটি অবাদ নির্বাচনের ব্যবস্থা করুন। যাতে সাধারণ ভোটারেরা নির্বিঘ্নে তাদের ভোট প্রদান করতে পারেন। তিনি আরও বলেন, মিরপুরে চাঁদাবাজি ও মাদক ব্যবসা চলছে। এই চাঁদাবাজি ও মাদক ব্যবসা বন্ধ করার জন্য কেউ উদ্যোগ নিচ্ছে না। শুধু কথার আশ্বাস দিচ্ছে। মাদকে তরুণ সমাজ আজকে ধ্বংস হয়ে যাচ্ছে। বিএনপির মনোনীত এই প্রার্থী আরও বলেন, আমরা আইনের শাসনের পক্ষে কাজ করবো। ন্যায়ের পক্ষে কাজ করবো। কাউকে অন্যায় করতে দেয়া হবে না। তাবিথ আউয়াল আরও বলেন, বৃহত্তর মিরপুর একটি গামেন্টর্স শিল্প এলাকা। কিন্তু, এখানে গামেন্টর্স কর্মীদের নিরাপত্তা নেই। আমরা তাদের নিরাপত্তার কাজে মনোযোগী হবো।

তিনি আরও বলেন, আমাদের মূল শক্তি হচ্ছে জনগণ। তারা আমাদের সঙ্গে আছেন। প্রচারে নেমে আমরা নগরবাসীর ব্যাপক সাড়া পাচ্ছি। নির্বাচনী মাঠে আর কোনো অঘটন ঘটুক, তা চাই না। যতো বাধা আসুক আমরা শৃঙ্খলা ভাঙবো না। নেতা-কর্মী ও ভোটারদের উদ্দেশ্যে তিনি বলেন, সামনের সাত দিন কঠিন সময়। নির্বাচন থেকে দূরে সরাতে আপনাদের ভয়-ভীতি দেখানো হবে। আপনার ভয় পাবেন না। সাহস নিয়ে কেন্দ্রে গিয়ে ভোট কেন্দ্রে যাবেন। আসলে ভয় যারা দেখাচ্ছেন তারা আপনাদেরকে বেশি ভয় পায়। এসময় বিএনপি চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা ও সিটি নির্বাচনে পল্লবী ও কাফরুল এলাকার সমন্বয়কারী জয়নুল আ?বদিন ফারুক, ২০ দলীয় জোটের অন্যতম নেতা ও বাংলাদেশ লেবার পার্টির সভাপতি ডা. মোস্তাফিজুর রহমান ইরান, বিএন?পির ক্রীড়া বিষয়ক সম্পাদক আ?মিনুল ইসলাম, খুলনা সিটি করপোরেশনের সাবেক মেয়র নজরুল ইসলাম মঞ্জু প্রমুখ নেতারা অংশ নেন।

আপনার মতামত দিন



শেষের পাতা অন্যান্য খবর

করোনা : বাড়ছে মৃত্যুর কাফেলা

১৭ ফেব্রুয়ারি ২০২০

দক্ষিণখানে তিন লাশ

চিরকুট ঘিরেই তদন্ত

১৭ ফেব্রুয়ারি ২০২০

ট্রাম্পের ভারত সফর

‘কেমছো’ পাল্টে হলো ‘নমস্তে প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প’

১৭ ফেব্রুয়ারি ২০২০

টকশোঃ ভেতরে-বাইরে

১৬ ফেব্রুয়ারি ২০২০



শেষের পাতা সর্বাধিক পঠিত